শিরোনামঃ-


» অনেকগুলি নির্বাচনের তারিখ ২৮ ফেব্রুয়ারি

প্রকাশিত: ২৩. জানুয়ারি. ২০১৯ | বুধবার

আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি একই সঙ্গে ঢাকা উত্তরের মেয়র পদে উপ-নির্বাচন এবং দুই সিটির সম্প্রসারিত অংশের কাউন্সিলর নির্বাচন হবে ।

আবার একই দিনে কিশোরগঞ্জ-১ আসনে সাধারণ নির্বাচনের জন্য ভোটের তারিখ রেখে তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন।

মঙ্গলবার কমিশন সভা শেষে নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ এ দুই নির্বাচনের বিস্তারিত সময়সূচি সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরেন।
এ ছাড়া পটুয়াখালী পৌরসভা, বরগুনার আমতলী পৌরসভার সাধারণ নির্বাচন ও ১১টি ইউনিয়ন পরিষদের সাধারণ নির্বাচনও ২৮ ফেব্রুয়ারি হবে।

পৌরসভা, ইউপি ও জেলা পরিষদের বিভিন্ন পদে উপনির্বাচনও একই দিন করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। স্থানীয়ভাবে রিটার্নিং কর্মকর্তা এ সংক্রান্ত তফসিল ঘোষণা করবেন ।

মেয়র আনিসুল হকের মৃত্যুতে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র পদ শূন্য হয়েছিল ২০১৭ সালের নভেম্বরে। ওই পদে উপ নির্বাচনের পাশাপাশি ঢাকার দুই সিটি নতুন ৩৬টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে নির্বাচন করার জন্য গতবছর তফসিলও ঘোষণা করেছিল ইসি।

কিন্তু আদালতের স্থগিতাদেশের কারণে সেই ভোট এতদিন আটকে ছিল। সম্প্রতি আদালতের স্থগিতাদেশ উঠে গেলে ঢাকা সিটির এ নির্বাচনের পথ তৈরি হয়।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে উপ নির্বাচন এবং উত্তর ও দক্ষিণের ৩৬টি ওয়ার্ডে সাধারণ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে আগ্রহীরা ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত মনোনয়নপত্র জমা দিতে পারবেন।

যাচাই-বাছাই হবে ২ ফেব্রুয়ারি, মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করা যাবে ৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। সব প্রক্রিয়া শেষে ২৮ ফেব্রুয়ারি ভোট হবে নির্বচনী এলাকায়।

তফসিল অনুযায়ী, কিশোরগঞ্জ-১ সংসদীয় আসনের নির্বাচনে অংশ নিতে আগ্রহীরা ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত মনোনয়নপত্র জমা দিতে পারবেন।

যাচাই-বাছাই হবে ৩ ফেব্রুয়ারি, মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করা যাবে ১০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। সব প্রক্রিয়া শেষে ২৮ ফেব্রুয়ারি ভোট হবে নির্বচনী এলাকায়।

আনিসুল হকের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া ঢাকা উত্তরের মেয়র পদে উপনির্বাচন এবং দুই সিটিতে নতুন যুক্ত হওয়া ১৮টি করে ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর নির্বাচনের জন্য ২০১৮ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি ভোটের দিন রেখে তফসিল দিয়েছিল নির্বাচন কমিশন।

ওই তফসিলের বৈধতা চ্যালঞ্জ করে রিট আবেদন হলে হাই কোর্ট ভোট স্থগিত করে রুল দিয়েছিল। পরে আপিল বিভাগেও সেই স্থগিতাদেশ বহাল থাকে। ফলে ভোট আটকে যায়। এর মধ্যে গত ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনও হয়ে যায়।

রিটকারীরা এখন আর মামলা চালাতে আগ্রহী না হওয়ায় গত ১৬ জানুয়ারি ঢাকার সিটি ভোটের বাধা কাটে।

ইসি সচিব বলেন, স্থগিতাদেশের আগে যারা মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন তাদেরও নতুন করে মনোনয়নপত্র জমা দিতে হবে।

“আগে যারা মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন, তাদের জামানাতের টাকা ফেরত দেওয়া হবে; এবার নতুন তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। এ জন্য নির্ধারিত সময়ে আগ্রহীদের মনোনয়নপত্র জমা দিতে হবে।”

তবে সে সময় যাদেরকে এ নির্বাচনের জন্য রিটার্নিং কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল, তারাই বহাল থাকবেন।

উত্তরের ৫৪ ওয়ার্ডে ভোটার ২৯ লাখ ৪৮ হাজার ৫১০ জন। ১৩৪৯ কেন্দ্রের ৭ হাজার ৫১৬ ভোটকক্ষে তারা মেয়র পদের উপ নির্বাচনের ভোট দেবেন।

উত্তরের নতুন ১৮ ওয়ার্ডে ভোটার আছেন ৫ লাখ ৭১ হাজার ৬৮৪ জন। মেয়র পদের সঙ্গে তারা নতুন কাউন্সিলর নির্বাচনেও ভোট দেবেন।

উত্তরে রিটার্নিং কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করবেন ইসির যুগ্মসচিব (চলতি দায়িত্ব) আবুল কাসেম, তার সঙ্গে থাকবেন ১২ জন সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা।

দক্ষিণের ১৮ ওয়ার্ডে ভোটার আছেন ৪ লাখ ৭৭ হাজার ৫১০ জন। নতুন কাউন্সিলর নির্বাচনে ভোট দেবেন তারা।

দক্ষিণে রিটার্নিং কর্মকর্তার দায়িত্বে পালন করবেন ঢাকার আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা রকিবউদ্দিন মণ্ডল। তার সঙ্গে থাকবেন ছয়জন সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা।

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণের একটি করে ভোট কেন্দ্রে ইসির নিজস্ব উদ্যোগে তৈরি ইভিএমে ভোট করার পরিকল্পনা রয়েছে। এছাড়া কয়েকটি কেন্দ্রে সিসি ক্যামেরা বসিয়ে ভোট পর্যবেক্ষণ করা হবে।

কিশোরগঞ্জ সদর ও হোসেনপুর উপজেলা নিয়ে গঠিত কিশোরগঞ্জ-১ আসনে গত ৩০ ডিসেম্বর দেশের অন্যান্য আসনের সঙ্গেই ভোট হয়েছিল। তাতে জয়ী হয়েছিলেন আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী সাবেক জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, যিনি অসুস্থতার কারণে দীর্ঘদিন ধরে দেশের বাইরে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

ফুসফুসের ক্যান্সারে আক্রান্ত আশরাফ গত ৩ জানুয়ারি থাইল্যান্ডের একটি হাসপাতালে মারা যান। দেশে ফিরে সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেওয়ার সুযোগ তিনি আর পাননি।

ইসি সচিব জানান, সৈয়দ আশরাফ নির্বাচিত হলেও গেজেট প্রকাশের পর শপথ না নেওয়ায় তার আসনে সাধারণ নির্বাচন হচ্ছে। আসনটি শূন্য ঘোষণা করে গেজেট প্রকাশের আর দরকার নেই।

৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে যারা এ আসনে প্রার্থী হয়েছিলেন, তারা চাইলে এবারও প্রার্থী হতে পারবেন। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে তাদের রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র জমা দিতে হবে।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৩২২ বার

Share Button

Calendar

November 2020
S M T W T F S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930