» উন্নয়ন ধারাকে ব্যহত করতেই আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার: কাউন্সিলর মানিক

প্রকাশিত: ২৩. অক্টোবর. ২০১৯ | বুধবার

অলিদ সিদ্দিকী তালুকদার: গত ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে আওয়ামী লীগে শুদ্ধি অভিযান শুরু হয়েছে। এই অভিযানে আওয়ামী লীগের অনেক ডাকসাইটে নেতাই ধরাশায়ী হয়েছেন। অনেকে নিঃসঙ্গ জীবনযাপন করছেন। আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার সূত্র জানা গেছে, বিভিন্ন পর্যায়ের শতাধিক আওয়ামী লীগ নেতা এখন গা ঢাকা দিয়েছেন। কিন্তু আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা বলছে, যেখানে যেই গা ঢাকা দিক না কেন যারা দুর্নীতি-অনিয়ম করেছে তাদের সবাইকেই আইনের আওতায় আনার কঠোর নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে, সেগুলো তদন্ত করে যদি সত্যতা পাওয়া যায়, তবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ডিএসসিসি ২৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাসিবুর রহমান মানিক বলেছেন, দেশে কোনো সন্ত্রাস, দুর্নীতিবাজ থাকবে না সবাইকে আইনের মুখোমুখি হতে হবে। কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। যারা দেশে অবৈধভাবে টাকা পয়সার মালিক হয়েছে তাদেরও আইনের আওতায় আনা হবে।

বুধবার দুপুরে ২৬ নং ওয়ার্ড আজিমপুরে এলাকার বিভিন্ন উন্নয়ন মুলক কাজকর্ম তদারকি ও স্থানীয় জনগণের সাথে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি একথা বলেন। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমার বিরুদ্ধে যে ধরনের অভিযোগ আসছে সেই বিষয়টি নিয়ে আমি চিন্তিত নই। কারণ আমার গায়ের মধ্যে সাদা পোশাকের মাঝে হলুদের মিশ্রণ লাগাবো না। আমি বিথু না, যে সমস্ত অভিযোগ আসছে সেই বিষয়টি সম্পুর্ণ কাল্পনিক অবাস্তব । আমার ওয়ার্ডের সর্বোপরি উন্নয়নের বীজ বপন দেখে একটি গোষ্ঠী বা চক্রের ইন্ধনে কারসাজির মাধ্যমে আমাকে কলুষিত করার চক্রান্ত চলছে । আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি মানিক বলেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সহ যে কোনো সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা আমার বিষয়ে সরাসরি উপস্থিত থেকে যদি আমার বিরুদ্ধে আনিত কোনো অভিযোগ উত্থাপন ও ডকুমেন্ট দেখাতে পারেন তাহলে অবশ্যই আমার শাস্তি হবে আমি মাথা পেতে নিবো । কিন্তু অহেতুক অযথা হিংস্রাত্নক মনোভাব পোষণের মাধ্যমে আমি মানিকের বিরুদ্ধে কেউ মিথ্যা ষড়যন্ত্র প্রতিহিংসা বশত কোনো অপপ্রচার চালিয়ে আমাকে দমিয়ে রাখতে পারবেন না ইনশাআল্লাহ । আমার দলের সভাপতি জননেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমার বিষয়ে অবগত আছেন । ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি) ২৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাসিবুর রহমান মানিক বলেন, দুর্নীতিবিরোধী অভিযান চালিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করতে চান, সুশাসন প্রতিষ্ঠা করতে যারা দেশে টেন্ডারবাজী, সন্ত্রাস ও ক্যাসিনো ব্যবসা করছে তাদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনা হচ্ছে। তিনি বলেন, দেশে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, ক্যাসিনো ও মাদকবিরোধী অভিযান চলবেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন বিশ্বের কাছে উন্নয়নের রোল মডেল হয়েছে। মানিক বলেন, দেশে বর্তমানে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে কেউ আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি করলে তাকে ছাড় দেওয়া হবে না। দেশ থেকে সন্ত্রাসীদের মূল উৎপাঠন করা হবে। তিনি আরও বলেন ‘ক্যাসিনো কেলেঙ্কারিতে জড়িত সহ আরও অন্যান্য দূর্নীতিগ্রস্ত যে বা যারা যেখানে আছে তাদের কাউকে ঠাঁই দেবেননা জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’ প্রশ্নবিদ্ধ ক্যাসিনো কেলেঙ্কারির সঙ্গে জড়িত ও কোন টেন্ডারবাজ ব্যক্তিকে আগামীতে আওয়ামী লীগের সঙ্গে সংযুক্ত হতে দেওয়া হবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মানিক বলেন, ‘আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কখনো কোন অন্যায়কে প্রশ্রয় দেয়নি, দেবেও না। তাই আগামীতে আওয়ামী লীগের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সম্মেলনের সময় প্রশ্নবিদ্ধ কোন ব্যক্তিকে দলের সঙ্গে সংযুক্ত করবেন না জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।’ সূত্র আরো জানায়,যেসব কাউন্সিলরদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ আসছে তাদের বিরুদ্ধে বড় ধরনের অভিযানে নামছে দুদক। এ লক্ষ্যে ক্ষমতার অপব্যবহার, ক্যাসিনো কেলেঙ্কারি এবং দলের পদ-পদবি ভাঙিয়ে যারা দুর্নীতি করেছে, তাদের পূর্ণাঙ্গ তালিকা তৈরি হচ্ছে। তালিকাভুক্তদের আইনের আওতায় আনা হবে। এদের বিষয়ে সরকারের উচ্চ পর্যায় থেকেও সবুজ সংকেত দেয়া হয়েছে। গত রোববার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল জানিয়েছেন, যারা টেন্ডারবাজি, সন্ত্রাসী কার্যক্রম ও ক্যাসিনো ব্যবসা করছেন তাদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হচ্ছে। সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ, জঙ্গিবাদ, ক্যাসিনো ও মাদকবিরোধী অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৪৪৯ বার

Share Button

Calendar

October 2020
S M T W T F S
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031