» উল্লাপাড়ায় দুর্নীতিবাজ প্রধান শিক্ষক

প্রকাশিত: ১৭. জুলাই. ২০২০ | শুক্রবার

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় জহুরা মহিউদ্দীন খান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক ফজলে করিম মিঠু একজন দুর্নীতিবাজ । বিদ্যালয়ের অন্য শিক্ষকেরাও তার দুর্নীতির কারণে অতিষ্ঠ । বিষয়টির তদন্ত দাবি করেছে জনগণ । শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রক্ষার জন্য সরব হচ্ছেন এলাকাবাসী ।

অনুসন্ধানে জানা গেছে , ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি এডভোকেট সিমকী ইমাম খানের সরলতার সুযোগ নিয়ে ক্ষমতার অপব্যবহার করেন প্রধান শিক্ষক ফজলে করিম মিঠু । ।বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়ার ৮০ দিন পূর্বে খসড়া ও চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রস্তুত করার জন্য ম্যানেজিং কমিটির সভা ও রেজুলেশন করতে হয় মর্মে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ আছে। কিন্তু তিনি ম্যানেজিং কমিটি গঠনের জন্য কোন প্রকার রেজুলেশন বা মিটিং করেন নি । এমনকি এই প্রধান শিক্ষক খসড়া এবং চূড়ান্ত ভোটার তালিকায় সভাপতির কোন স্বাক্ষর নেন নি ।বরং স্বাক্ষর জাল করে ম্যানেজিং কমিটি গঠনের জন্য সকল কাগজপত্র দাখিল করেন ।
এ ব্যাপারে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি এডভোকেট সিমকী ইমাম খানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ সব তথ্যের সত্যতা স্বীকার করেন ।সিমকী ইমাম খান জানান, তার বাবা মরহুম হাসান ইমাম খান একজন প্রকৌশলী ছিলেন । তিনি তার মা জহুরা খান ও বাবা মহিউদ্দীন খানের নামে এই স্কুল প্রতিষ্ঠা করেন । সে কারণে পরিবারের দানকৃত এই স্কুলের প্রতি আলাদা একটা মমতা আছে তার । প্রধান শিক্ষক ফজলে করিম মিঠুকে অনেক বেশী বিশ্বাস করতেন তিনি । কিন্তু তার দুর্নীতির কিছু খবর পেয়ে প্রধান শিক্ষককে কারণ দর্শাতে বলায় তাকে নানা ধরণের হুমকি দেন প্রধান শিক্ষক । তখন তিনি বিধি অনুযায়ি কিছু ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হন । সিমকী ইমাম খান বলেন , বিধি বিধান না মেনে প্রধান শিক্ষক নিজের সুবিধার জন্য তার পছন্দের লোকদের নিয়ে ম্যানেজিং কমিটি গঠনের আবেদন করে।এছাড়া বিধি বহির্ভূত ভাবে ম্যানেইজিং কমিটির রেজুলেশন ছাড়া বিদ্যালয়ের একটি টিনের ঘর ও গাছ বিক্রি করেছেন । তিনি দীর্ঘদিন যাবত কোন বিল ভাউচার স্বাক্ষর করান নি এবং আড়াই লক্ষ টাকার একটি এফডিআর ছিল সেটা ভেঙে ৫০ হাজার টাকা স্কুলে জমা করেছেন এবং ২ লক্ষ টাকার ঠিকমতো হিসাব দেখাতে পারেন নাই । বিভিন্ন সময়ে বিভিন্নভাবে স্কুলের অর্থ আত্মসাৎ করে আসছেন ।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১৬৬ বার

Share Button

Calendar

August 2020
S M T W T F S
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031