শিরোনামঃ-


» ‘উসকানির ফাঁদে পা’ না দিতে আহবান জানিয়েছেন ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত: ০৫. ফেব্রুয়ারি. ২০১৮ | সোমবার

‘উসকানির ফাঁদে পা’ না দিয়ে সতর্ক থাকতে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

৪ ফেব্রুয়ারি, রবিবার বিকেলে বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের উদ্যোগে ‘বিএনপির সন্ত্রাস, নৈরাজ্য জঙ্গিবাদী’ রাজনীতির প্রতিবাদে আয়োজিত যুব সমাবেশে তিনি এ আহ্বান জানান।

চার দিন আগে অবশ্য মন্ত্রী বলেছিলেন, ‘বিএনপি রায়ের আগে যা বলছে, তা আদালত অবমাননার শামিল। আমি এখনই বারুদের গন্ধ পাচ্ছি। বাস পোড়ানো, মানুষ পোড়ানোর গন্ধ পাচ্ছি। সত্যিই ওই দিন যদি এ রকম কিছু হয়, তবে সমুচিত জবাব দেওয়া হবে।’

যুব সমাবেশে দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, “আপনারা বিএনপির উসকানির ফাঁদে পা দিবেন না। তারা যদি বিশৃঙ্খলা করে, রাস্তা দখল করে জনগণের জন্য ভোগান্তি সৃষ্টি করে- জানমালের নিরাপত্তা রক্ষায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী উদ্ভূত পরিস্থিতি মোকাবেলা করবে। ‘যেমন কুকুর, তেমন মুগুর’। কুকুরের যেমন ঘেউ ঘেউ মুগুরটাও ঠিক তেমনি নেমে আসবে। ও নিয়ে আপনাদের ভাবার দরকার নেই। আপনারা শুধু সতর্ক থাকবেন। প্রয়োজনে নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে এ পরিস্থিতি মোকাবেলা করব। আমরা উসকানি দেব না।”

তিনি বলেন, ‘৮ তারিখে খালেদা জিয়ার মামলার রায়কে কেন্দ্র করে আজকে বিভিন্নভাবে উত্তেজনা ছড়ানো হচ্ছে। আমি পরিস্কারভাবে বলে দিতে চাই যে, আমরা কারো সাথে পাল্টাপাল্টিতে যাব না। আমরা ক্ষমতায় আছি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ চালাচ্ছি। আমাদের এখন মাথা গরমের সুযোগ নেই, ঠাণ্ডা মাথায় পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে হবে। আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা ৮ তারিখকে ঘিরে কোনো কর্মসূচি দিতে বলেন নাই। আমরা কর্মসূচি দিব না, তবে মামলার রায়কে কেন্দ্র করে যদি পরিস্থিতি অশান্ত করার চেষ্টা করা হয়, বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হয়- তাহলে আমরা নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে সতর্ক পাহারায় থাকব।’

‘কিন্তু দলীয়ভাবে রাস্তা দখল করে সভা-সমাবেশ করার পরিকল্পনা আমাদের নেই। ভরা কলসি নড়বার দরকার নেই। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের উন্নয়ন হচ্ছে, আমরা কেন দেশকে অশান্ত করব? বিএনপিকে নিয়ে আওয়ামী লীগে কোনো অস্থিতিরতা নেই’, যোগ করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

বিএনপির গঠনতন্ত্রের ৭ ধারা সংশোধনের কথা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, “মামলার রায়ের আগে বিএনপি খালেদা জিয়াকে উন্মাদ বানিয়েছে, দেউলিয়া বানিয়েছে, দণ্ডপ্রাপ্ত বানিয়েছে এবং সর্বশেষ দুর্নীতিবাজ বানিয়ে প্রমাণ করেছে তারা দুর্নীতিবাজ দল। ৭ ধারা পরিবর্তনের মাধ্যমে তারা প্রমাণ করল ‘ঠাকুর ঘরে কে রে, আমি কলা খাই না’।”

সংগঠনের সভাপতির ইসমাইল চৌধুরী সম্রাটের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন- যুবলীগের কেন্দ্রীয় চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক হারুন-উর রশিদ, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন, যুবলীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মাহবুবুর রহমান হিরণ, ফারুক হোসেন, মুজিবুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন মাহি প্রমুখ।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৬৭৮ বার

Share Button