» একজন মাশরাফি এবং আমাদের শুভকামনা

প্রকাশিত: ১২. নভেম্বর. ২০১৮ | সোমবার

 

অঞ্জন করঃ
নড়াইলের ছেলে মাশরাফি বিন মর্তুজা বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অন্যতম বোলিং স্তম্ভ ও একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট দলের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি একজন ডানহাতি ব্যাটসম্যান। তার বোলিংয়ের ধরণে ডানহাতি মিডিয়াম পেস বোলার। বাংলাদেশ জাতীয় দল ছাড়াও তিনি এশিয়া একাদশের একদিনের আন্তর্জাতিক দলে খেলেছেন। মাশরাফি বাংলাদেশের ইতিহাসের সর্বকালের সেরা পেস বলার ও সেরা অধিনায়ক।

বিভিন্ন মাধ্যমে জানা যায়, মাশরাফি বিন মর্তুজা একজন নিরহংকারী, কোমল হৃদয় ও জনদরদি সত্তার অধিকারী একজন মানুষ। শুধু মাত্র তার ক্রিকেট দক্ষতা কিংবা সেলিব্রেটি প্লেয়ার হবার কারনেই নয়, দল-মত নির্বিশেষে মানুষজন তাকে পছন্দ করেন-ভালোবাসেন তার সাবলীল ব্যক্তিত্ব আর মানবিক গুনাবলীর জন্য। কিন্তু ইদানিংকালে এই ভালোলাগা কিংবা ভালোবাসায় খানিকটা ভাটা পড়ছে। তার মূল কারণ, আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম নিয়েছেন জাতীয় ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। গত রোববার দুপুরে আওয়ামী লীগের ধানমন্ডি কার্যালয়ে গিয়ে দলটির সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের কাছ থেকে নড়াইল-২ আসনে নিবার্চনের লক্ষ্যে মনোনয়ন ফরম নেন মাশরাফি।

মূলত মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষের শক্তি তথা যারা জাতীয় বেঈমানদের ঐক্যজোটের সমর্থক তারাই এখন মাশরাফিকে নিয়ে নাক সিটকাচ্ছেন, ইনিয়ে বিনিয়ে নানা কথা রটাচ্ছেন। অনেকে বলছেন, “রাজনীতি করার এতো ইচ্ছে থাকলে পাকিস্তানের ইমরান খানের মতো আলাদা ও নিজস্ব দল করে নির্বাচন করতে পারতেন তিনি।”

মাশরাফি বিন মর্তুজা রাজনীতির প্ল্যাটফর্ম হিসেবে বেছে নিয়েছেন, ১৯৭১ এর মহান মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্বদানকারী দল এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষক সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাংগালী জাতির জনক বংগবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের আদর্শে লালিত মৌলবাদ, জঙ্গিবাদ এবং সন্ত্রাসবাদ বিরোধী শক্তিশালী রাজনৈতিক সংঘটন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগকে। বাংলাদেশের একটি ঐতিহ্যবাহী এবং বর্তমান ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল। এই রাজনৈতিক দলটির গোড়াপত্তন হয় ২৩ জুন ১৯৪৯ খ্রিস্টাব্দে পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী মুসলিম লীগ প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়ে। পরবর্তী কালে এর নাম ছিল নিখিল পাকিস্তান আওয়ামী লীগ। ১৯৭০ সাল থেকে এর নির্বাচনী প্রতীক নৌকা। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে ১৯৭১ সালে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসাবে বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার পর এই সংগঠনটির নামকরণ করা হয় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ যার বর্তমান ক্যাপ্টেন একজন সফল রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব ও প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা; স্বাধীনতার মহান স্থপতি, স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি ও ভারতীয় উপমহাদেশ তথা সমগ্র বিশ্বের একজন অন্যতম প্রভাবশালী রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা।

মাশরাফি বিন মর্তুজা খেলার মাঠে যেমন দক্ষ, রাজনৈতিক প্ল্যাটফর্ম নির্বাচন দেখেই অনেকটা বুঝা যায় রাজনীতির মাঠেও তিনি দক্ষতা এবং সাবলীলতার পরিচয় দেবেন। প্রত্যেক ব্যক্তি মানুষেরই নিজস্ব রাজনৈতিক পছন্দ বা আগ্রহ থাকতে পারে। সেই বিচারে একজন মানুষকে ভালো কিংবা খারাপ মানুষ হিসেবে আখ্যায়িত করা খুব একটা সাবলীল কাজ নয়।

বাংলাদেশের ক্রিকেটকে অনন্য এক উচ্চতায় পৌঁছে দেওয়ার পেছনের সেরা কারিগর এই মাশরাফিই। ক্রিকেটের বিশ্বদরবারে যুদ্ধ করেছেন, নেতৃত্ব দিয়েছেন বাংলাদেশকে জয়ী করার লক্ষ্যে। তাই তো পেয়েছেন কোটি কোটি মানুষের ভালোবাসাও। এমন একজন দেশ প্রেমিক খেলোয়ারই বাংলাদেশের রাজনীতির মাঠে বেশ মানানসই। হাজারো তরুণ ক্রিকেটারের অনুপ্রেরণা হয়ে, হাজারো ক্রিকেট ভক্তের ভালোবাসা নিয়ে এগিয়ে চলুন মাশরাফি। হিংসুটে দুনিয়ার অমানবিকতা এড়িয়ে আপনি হয়ে উঠুন সাধারণ মানুষের সত্যিকার বন্ধু। জাতির জনকের সোনার বাংলা গড়ার একজন তুখোড় সৈনিক হিসেবে নির্দ্বিধায় ঝাঁপিয়ে পড়ুন যুদ্ধে। কারণ এখনই সময়।

লেখক-অঞ্জন কর  প্রধান সমন্বয়ক, এলএএইচপি

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ২০৬ বার

Share Button

Calendar

February 2019
S M T W T F S
« Jan    
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
2425262728