» একটি বইমেলা ও একজন গুণবান মেয়র

প্রকাশিত: ১৩. জুলাই. ২০২০ | সোমবার

সৌমিত্র দেব

দেখতে দেখতে ছোট ছেলে পৃথ্বীশ চক্রবর্ত্তী কবি হয়ে গেল । সে যখন স্কুলের ছাত্র তখন থেকে আমি তাকে চিনি । তখন থেকে সে ছড়া কবিতা লিখতো । আমি মৌলভীবাজারে থাকতাম । আর পৃথ্বীশ পাশের জেলা হবিগঞ্জে । হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলা মৌলভীবাজারের খুব কাছে । সেখানেই পৃথ্বীশদের বাড়ি । কিন্তু কাছে হলে কি হবে , আমার সেখানে খুব একটা যাতায়াত হয় না ।
পেশাজীবনের প্রয়োজনে আমি এক পর্যায়ে ঢাকা চলে আসি । কাজ শুরু করি জাতীয় দৈনিকে । কলেজের ছাত্র হয়ে পৃথ্বীশ ও এসেছিল ঢাকায় । লক্ষ্য ছিল বড় কবি হওয়া । কিন্তু ঢাকা শহরের কঠিন জীবন তাকে টানে নি । আবার ফিরে গেছে নবীগঞ্জ । কিন্তু যোগাযোগ আমার সঙ্গে রেখেছে সবসময় । বিশেষ করে ফেব্রুয়ারী মাসে কবিতা উৎসব ও বইমেলা উপলক্ষে প্রায় প্রতিবছর ঢাকা আসে । আমার সঙ্গে দেখা করে । একদিন সেই বালক আমাকে জানালো নবীগঞ্জ পৌরসভায় চাকরি করছে।তারপর একদিন জানাল সে বিয়ে করেছে । তার লেখা নিয়মিত বিভিন্ন জাতীয় পত্রিকায় ছাপা হয়। বই ও বের হয় । কিন্তু সে যে বয়সেও এখন পরিণত হয়ে গেছে, সেটা আমার মাথায় থাকে না । সে চাকরিতে ঢোকার আগেই অবশ্য একবার আমাকে নবীগঞ্জে নিয়ে গিয়েছিলেন মুক্তিযুদ্ধে বীর প্রতীক আমার চাচা মাহবুবুর রব সাদী । তিনি এক সময় সেখানকার এমপি ছিলেন । সে এক রাজকীয় সফর । কিন্তু খবর পেয়েই ছুটে এসেছে পৃথ্বীশ । নিয়ে গেছে তার বাড়িতে ।
যাক, এবার পৃথ্বীশবন্দনা ছেড়ে কাজের কথায় আসি । এ বছর ফেব্রুয়ারী মাসে হঠাত সে জানালো এক আমন্ত্রণ ।কয়েকবছর ধরে নবীগঞ্জ পৌরসভা অমর একুশে বইমেলার আয়োজন করছে । সেখানকার সাহিত্য অঙ্গণে এটা খুব বড় ব্যাপার । বিশেষ করে পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব ছাবির আহমদ চৌধুরী এ ব্যাপারে খুব আগ্রহী । এবারে তারা আমাকে অতিথি করতে চান । উদ্বোধন করবেন কবি অসীম সাহা । প্রধান অতিথি হবিগঞ্জের জেলাপ্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান । অসীম সাহা আমার অগ্রজপ্রতীম । বহুকাল ধরে আমি তাঁর স্নেহধন্য । অন্যদিকে কামরুল হাসানের সঙ্গেও আমার পরিচয় অনেক দিনের । তিনি কর্মজীবন শুরু করেছিলেন মৌলভীবাজার সরকারী কলেজে । আমি তখন মৌলভীবাজারে উৎসর্গ নামে শহরের একমাত্র ভিন্নধারার বইয়ের দোকান চালাই । সেখানেই তার সঙ্গে পরিচয় । এরপর বহু বছর তার সঙ্গে দেখা নেই । অধ্যাপক মেসবাহ কামালের সঙ্গে বগুড়ায় এক অনুষ্ঠানে গিয়ে আবার দেখা হল। তিনি তখন সেখানে এসি ল্যান্ড । এরপর তিনি যখন উপসচিব হয়ে মন্ত্রনালয়ে চলে আসেন , তখন তার সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ শুরু হয় । কারণ সাংবাদিক হিসেবে আমি মন্ত্রণালয় কাভার করি । তিনি সেখানে সর্বশেষ সংস্কৃতিমন্ত্রীর একান্ত সচিব ছিলেন । বইমেলায় গিয়ে দুই প্রিয়মুখকে পাওয়া যাবে , তবু আমি আমন্ত্রণে সাড়া দিতে পারছিলাম না। কারণ এই মাসে আমি প্রচণ্ড ব্যস্ত থাকি । অনেক অনুষ্ঠান । তাছাড়া আমার একটা কবিতার বই ও বের হচ্ছে । কিন্তু পৃথ্বীশ নাছোড়বান্দা । আমার মুখে কোন নেতিবাচক কথা শুনতে রাজি নয় । বারবার বলল মেয়র সাহেবের কথা । তার গুণাবলীর কথা । এমন একজন মানুষের আমন্ত্রণ অগ্রাহ্য করতে মনে সায় পেলাম না। তার ওপরে পৃথ্বীশ অসীম সাহা আর আমার জন্য ট্রেনের ফাস্ট ক্লাশ রিটার্ন টিকিট পাঠিয়ে দিয়েছে । কিন্ত আমি গেলেও অসীম সাহা সেখানে যেতে পারলেন না। শারীরিক কারণে । পথেই আমাকে ফোন করে কূশল জেনে নিলেন নবীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব ছাবির আহমদ চৌধুরী ।

নবীগঞ্জ পৌরসভা আয়োজিত ৩দিন ব্যাপী ‘অমর একুশে বইমেলা ২০২০’ শুভ উদ্বোধন হলো। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হবিগঞ্জ জেলার জেলাপ্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান এলেন। অসীম সাহার অনুপস্থিতিতে তার ভুমিকা আমাকেই পালন করতে হল । নবীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব ছাবির আহমদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে মুখ্য আলোচক ছিলেন অধ্যাপক ড. আবুল ফতেহ ফাত্তাহ। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিশ্বজিত কুমার পাল, বিশিষ্ট চিকিৎসক সফিকুর রহমান, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুমাইয়া মুমিন, নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান গতিগোবিন্দ দাশ, ভাইস চেয়ারম্যান (মহিলা) নাজমা বেগম, অধ্যাপক মুজিবুর রহমান-সহ অতিথিবৃন্দ।

মেয়র আলহাজ্ব ছাবির আহমদ চৌধুরী আগাগোড়া একজন গণমুখি মানুষ । তিনি মেয়র হবার আগে দীর্ঘদিন এই পৌরসভায় কাউন্সিলর ছিলেন । অনুষ্ঠান পরবর্তী আড্ডায় অন্তরঙ্গ ভাবে তাঁর সঙ্গে অনেক কথা হলো । নবীগঞ্জে মেয়রের সবচেয়ে ঘনিষ্ট বন্ধু একজন কবি । তিনি আফতাব আল মাহমুদ । এই কবির বাড়িতেই আমার থাকা খাওয়ার ব্যবস্থা হয় ।এ রকম গভীর বন্ধুত্ব এবং পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ সচরাচর দেখা যায় না । তবে মেয়র সাহেবের যে দুর্লভ গুণ আমি আবিষ্কার করলাম,সেটা আসলেই বিরল । মেয়র সাহেব খুব ধর্মপ্রাণ । তিনি হজ করেছেন । নফল রোজাও রাখেন। এমনকি মেলা উদ্বোধনের দিনেও রোজা রেখেছেন। কিন্তু তাঁর নেতৃত্বে নবীগঞ্জ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিতে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে । হিন্দু সম্প্রদায়ের কাছে তার জনপ্রিয়তা সীমাহীন । তিনি আমাকে বলেছেন , সম্প্রীতি রক্ষার মাধ্যমে মানুষের সেবা করে যেতে চান । এ ভাবে ধর্মের মর্মকথা কয়জন বুঝতে পারেন ? এ রকম জন প্রতিনিধির জন্য আমার মনে সব সময় শুভ কামনা ।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ২৬৯ বার

Share Button

Calendar

August 2020
S M T W T F S
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031