একাকিত্ব

প্রকাশিত: ৪:৩৪ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ১, ২০১৭

একাকিত্ব

কুমকুম খাতুন

আমার একাকিত্বের গল্পটা শোনার মতো কেউ নাই।
কতোদিন যে ভোরবেলা কুয়াশা চাদরে ঢাকা
ঘাসের উপড় দিয়ে নগ্ন পায়ে একা একা হেঁটেছি,
তা আমিও বলতে পারব না।

রৌদ্র ঠা ঠা ক্লান্ত দুপুরে
যখন উদাস হয়ে তাকিয়ে থাকি পথের পানে,
তখন নিজেকে নিতান্তই অসহায় মনে হয়।
এই অসহায়ত্ব দেখে যখন
পাশ দিয়ে হেঁটে যাওয়া লোকটি মুখ ফিরে তাকায়
তখন নির্বাক হয়ে যাই কিছুই বলার থাকে না।

বিকেলে স্নিগ্ধ শীতল হাওয়া গায়ে লাগিয়ে
যখন একা ঘুরে বেড়াই তখনও কেউ আসে না,
একাকিত্বকে কমিয়ে দিতে।
একাকিত্ব যে কতোটা যন্ত্রণাদায়ক,
তা আমি ছাড়া কেউ বলতে পারবে না।

রাত্রিতে যখন নির্মল হাওয়ায় ছাদে একা বসে থাকি
ওই চাঁদটাকে একটু রোমাঞ্চকর করে দেখতে,
একাকিত্ব বলে তখন এতোটাই কষ্ট হয় যে
কিছুই করার থাকে না।

এই একাকিত্বকে দূর করার জন্য
আজও কেউ এসে পাশে দাঁড়ায় নি,
আমি এতোটাই হতভাগা যে
আমার একাকিত্বকে সবার ন্যাকামো মনে হয়েছে।