» গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত ধর্ষক আটক !

প্রকাশিত: ২৮. নভেম্বর. ২০১৯ | বৃহস্পতিবার


মোঃ আব্দুল কাইয়ুম, মৌলভীবাজার:
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে কাজ শেষে রেশন নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে ২ সন্তানের জননী এক নারী চা শ্রমিককে (২৫) জোরপূর্বক ধর্ষনের ঘটনার সংবাদ প্রকাশের পর অবশেষে অভিযুক্ত ধর্ষক সুকু গমেজকে মধ্যরাতে আটক করেছে কমলগঞ্জ থানা পুলিশ ।

বুধবারবার (২৮ নভেম্বর) রাত দেড়টার দিকে কমলগঞ্জ উপজেলার মাধবপুর ইউনিয়নের মদনমোহনপুর চাবাগান এলাকা থেকে কমলগঞ্জ থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো: ফয়েজ উদ্দিন এর নেতৃত্বে পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাঁকে আটক করে থানা নিয়ে আসে। এঘটনার ৬দিন পর কমলগঞ্জ থানায় নারী ও শিশু নির্যতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে (মামলা নং ২২)

কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আরিফুর রহমান সুকু গমেজকে আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্তকে মধ্যরাতে আটক করা হয়েছে। পরবর্তীতে তাঁকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

জানা যায়, গত ২১ নভেম্বর বৃহস্পতিবার বাগানে কাজ শেষে নিজ বাড়ির উদ্দেশ্যে ফেরার পথে একই এলাকার প্রতিবেশী সুকু গমেজ (২০) নামে এক যুবকের হাতে ধর্ষণের শিকার হন ২ সন্তানের জননী এক নারী চা শ্রমিক।

মৌলভীবাজার সদর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে তৃতীয়তলার গাইনী ওয়ার্ডের ২০ নং বেডে চিকিৎসাধিন ঐ নারী চা শ্রমিক বলেন, আমার প্রতিবেশী দানিয়েল গমেজের ছেলে সুকু গমেজ প্রতিদিন বাড়ি ফেরার পথে আমার পথ রোধ করে নানা কটুক্তি ও সম্পর্কের প্রস্তাব দিলেও আমি তাঁকে বোঝানোর চেষ্ঠা করেছি যে আমার স্বামী ও সন্তান রয়েছে এবং আমি তোমার বয়সেও অনেক বড়। ঐ নারী বলেন, ঘটনার দিন সে আগে থেকে ঘটনাস্থলে ওৎপেতে থাকা অবস্থায় আমি বাগান থেকে রেশন নিয়ে বাড়ি ফেরার সময় সে জোর পূর্বক আমাকে পাশের চা গাছের ভিতরে নিয়ে মুখ চেপে ধরে ধর্ষণ করতে থাকে । এসময় আমি উচ্চ স্বরে চিৎকার করলেও জায়গাটি নির্জন হওয়ায় কেউ এগিয়ে আসেনি।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১৯১ বার

Share Button