শিরোনামঃ-


» ‘কিবরিয়া নবীন ছাপচিত্র’ পুরস্কার পেলেন ঢাবির মশিউর রহমান

প্রকাশিত: ১৭. ফেব্রুয়ারি. ২০১৯ | রবিবার


সাদ্দাম হোসেন, ঢাবি প্রতিনিধি

জয় অফ লাইট (দা লেডি) শিরোনামে আঁকা কাঠ খোদাইকৃত চিত্রকর্মের জন্য ‘কিবরিয়া নবীন ছাপচিত্র’ পুরস্কার পেয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের শিক্ষার্থী মশিউর রহমান মিশু। গত ৫ জানুয়ারি এ পুরস্কারের জন্য মশিউরসহ আরো ৫ জনের নাম ঘোষণা করা হয়।

গত শুক্রবার (১৫ই ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় চারুকলা অনুষদ প্রাঙ্গণে
শিক্ষামন্ত্রী ড. দীপু মনি ৮ম কিবরিয়া আন্তর্জাতিক ছাপচিত্র মেলা ২০১৯ উদ্বোধন করেন। সেসময় মশিউর রহমানসহ আরো পাঁচজনের হাতে পুরস্কার তুলে দেয়া হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন শিল্পী অধ্যাপক সৈয়দ আবুল বারাক আলভী। এতে বিশেষ
অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিল্পী অধ্যাপক রফিকুন নবী ও শিল্পী মনিরুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন চারুকলা অনুষদের ডিন অধাপক নিসার হোসেন ও শিল্পী শহিদ
কবির। অনুষ্ঠানে শিল্পী শহীদ কবিরকে আজীবন সম্মাননা দেয়া হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. দীপু মনি বলেন, আমি শিল্পী নই, শিল্পী যোদ্ধাও নই। কিন্তু শিল্পীদের অনেক ভালবাসি ও শ্রদ্ধা করি। আমি এ মেলার সফলতা কামনা করি।

অনুষ্ঠানে রফিকুন্নবী বলেন, এই আয়োজন আগের চাইতে বড় হচ্ছে। এ থেকে বোঝা যাচ্ছে, আজকের তরুণ প্রজন্ম বিষয়টিকে গুরুত্ব সহকারে দেখছে।

তিনি আরো বলেন, ছাপচিত্র একটি কঠিন মাধ্যম। প্রথমে বিষয় ভাবতে হয়, পরে উপস্থাপনা নিয়ে ভাবতে হয়। এগুলো ভেবে এগোতে হয়। যখন একজন শিল্পী ছাপচিত্রে সই করেন তখন ছাপচিত্র
মূল্যবান হয়।

কাঠখোদাইকৃত চিত্র জয় অফ লাইটে বোল্ড রংয়ের মাধ্যমে নৈসর্গিক আলো ছায়ার খেলার নৈপুণ্যতা ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। মশিউর রহমান কাঠখোদাই মাধ্যমেই ছবি আঁকেন এবং নৈসর্গিক আলো ছায়ার মাধ্যমে সেই চিত্রকর্মকে ফুটিয়ে তোলেন।

মশিউর রহমান চারুকলা অনুষদ থেকে বি এফ এ (BFA) এবং এম এফ এ (MFA) পাস করেন। সম্প্রতি তিনি ভারতের শান্তিনিকেতনে রবীন্দ্র ভারতীতে ওয়ার্কশপ করে এসেছেন। ছাপচিত্র এবং ফটোগ্রাফি দুটোতেই সমান দক্ষতা রয়েছে তার। এর আগে তিনি ফটোগ্রাফিতেও অনেক পুরস্কার গ্রহন করেছেন বলে জানা যায়।

উল্লেখ্য বরেণ্য চিত্রশিল্পী মোহাম্মদ কিবরিয়ার নামে প্রদত্ত এই ”কিবরিয়া নবীন ছাপচিত্র পুরস্কার’’ দেওয়া হচ্ছে বেশ কয়েক বছর ধরে। কিবরিয়া প্রিন্টমেকিং স্টুডিও এই ছাপচিত্র পুরস্কার এর আয়োজন করে থাকে। ২০১৮ তে বাংলাদেশ ও ভারত থেকে আগত ৫০ জনেরও বেশি ছাপচিত্র শিল্পী এ প্রতিযোগিতার জন্য পোর্টফলিও জমা
দেন। পরে তাদের মধ্য থেকে ১৭ জন কে শর্টলিষ্ট করা হয়। এই ১৭ জনের কাজ
নিয়ে কলাকেন্দ্রে ২১ ডিসেম্বর ২০১৮ থেকে এই প্রদর্শনী শুরু হয়ে ৫ জানুয়ারি ২০১৯ পর্যন্ত চলে। পরে ৫ জন পুরস্কার প্রাপ্তের নাম ঘোষনা করা হয়।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৬৭১ বার

Share Button

Calendar

November 2020
S M T W T F S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930