খালেদা জিয়ার সমস্যাগুলো বহুবছরের পুরনো ঃ তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৬:৫৭ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২০

খালেদা জিয়ার সমস্যাগুলো বহুবছরের পুরনো ঃ তথ্যমন্ত্রী

তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়াকে সর্বোচ্চ স্বাস্থ্যসেবা দেবার জন্যে সরকার আন্তরিকভাবে সবসময় কাজ করে যাচ্ছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকায় জাতীয় বেতার ভবনে ‘বিশ্ব বেতার দিবস’ র‌্যালী উদ্বোধনের প্রাক্কালে সাংবাদিকদের এসংক্রান্ত প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী একথা জানান।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বেগম জিয়াকে কারাগারের প্রকোষ্ঠে না রেখে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রাখা হয়েছে। তার সাথে তার পছন্দের গৃহপরিচারিকাকে রাখা হয়েছে। বাংলাদেশের ইতিহাসে এমনকি পাক-ভারতের ইতিহাসে কোন কয়েদীর ইচ্ছা অনুযায়ী এভাবে দিনের পর দিন, মাসের পর মাস, বছরের পর বছর কোন পছন্দের গৃহপরিচারিকাকে রাখা হয়েছিল কি না আমার অন্তত জানা নেই।’

‘এছাড়া নিয়মিত তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়, তার বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা তাকে মাঝে মধ্যেই পরীক্ষা করেন’ উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘বেগম জিয়ার সমস্যাগুলো বহুবছরের পুরনো। এসব সমস্যা নিয়ে তিনি দু’বার প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন, দু’বার বিরোধী দলীয় নেত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন আর ২০১৩-১৪ ও ‘১৫ সালে পেট্রোল বোমার আন্দোলনেও তিনি নেতৃত্ব দিয়েছেন। সুতরাং তার এ সমস্যা পুরোনো সমস্যা।’

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘বিএনপির পক্ষ থেকে সবসময় তার পুরোনো স্বাস্থ্য সমস্যাকে ফুলিয়ে ফাঁপিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করার অপচেষ্টা করা হয়। কিন্তু বেগম খালেদা জিয়া দেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী, একটি বৃহৎ দলের নেত্রী ও চেয়ারপার্সন, তাকে সর্বোচ্চ স্বাস্থ্যসেবা দেয়ার জন্য সরকার আন্তরিক।’

এসময় বেগম জিয়ার প্যারোলে মুক্তির আবেদন প্রসঙ্গে প্রশ্নের উত্তরে ড. হাছান বলেন, ‘আমরা পত্র-পত্রিকার মাধ্যমে জেনেছি, পরিবার প্যারোলে মুক্তি চায়, সেটি কতটুকু সত্যি তা আমরা জানিনা। কিন্তু বিএনপির পক্ষ থেকে এ ধরণের কোনো দাবি উত্থাপন করা হয়নি। বরং মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাহেবকে যখন জিজ্ঞাসা করা হয়েছে, তিনি বলেছেন আমি এ ব্যাপারে কিছু জানি না।’

ছড়িয়ে দিন