» ত্রাণ সহায়তায় সমস্ত দায়িত্ব আমলাদের হাতে : মেনন

প্রকাশিত: ২১. মে. ২০২০ | বৃহস্পতিবার

জনপ্রতিনিধিদের অভিযুক্ত করে আসল সত্যকে আড়াল করা হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন এমপি । তিনি বলেন ,“ত্রাণের তালিকায় ভূয়া নামের অন্তর্ভুক্তির জন্য কেবল জন প্রতিনিধিরা দায়ী নন । এই ত্রাণ সহায়তায় সমস্ত দায়িত্ব আমলাদের হাতে। তারা একদিন দু’দিনের মাথায় তালিকা তৈরির নির্দেশ দিলে অসাধু ব্যক্তিরা এর সুযোগ নিবে সেটাই স্বাভাবিক। আর এর সাথে ঐ হুকুমদাতা আমলাদের যোগসাজস নাই তাই বা কে বলবে। সংসদ সদস্য হিসেবে এই তালিকা তৈরির ব্যাপারে আমার প্রত্যক্ষ অভিজ্ঞতার ভিত্তিতেই একথা বলছি। আসলে এ ধরনের তালিকা তৈরির ব্যাপারে পাকিস্তান আমলের আমলতান্ত্রিক পদ্ধতিই অনুসরণ করা হয়েছে। ‘সফটওয়ারে’ সব কালোকে সাদা করার দাবি ঠিক না। কারণ মানুষই এর পিছনে কাজ করে। জনপ্রতিনিধিদের পিছনে ঠেলে দিয়ে আমলাতন্ত্র যখন ড্রাইভারের সিটে বসে তখন এ ধরনের অন্যায় হবেই। এটা ঠিক যে ত্রাণের চাল আত্মসাতের জন্য বহু স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের বরখাস্ত করা হয়েছে। কিন্তু যারা পিছনে থেকে নাটাই ঘোরাচ্ছে তাদের বরখাস্ত করবে কে? আসলে রাষ্ট্রযন্ত্র যখন রাষ্ট্রকে দখল করে নেয় তখন এই বিপত্তি বাড়ে। করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় জীবন ও জীবিকার উভয় প্রশ্নে আমলাতান্ত্রিক সিদ্ধান্ত ও ব্যবস্থা এর প্রমাণ। এটা হচ্ছে প্রধানমন্ত্রীকে সামনে রেখে বি-রাজনীতিকরণের প্রক্রিয়া। করোনা ভাইরাসের সাথে আমলাতান্ত্রিক ভাইরাসের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়তে হবে।”
আজ বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির ঢাকা মহানগরীর ঈদ-পূর্ব ত্রাণ প্রদান কর্মসূচির সমাপনীতে পার্টির সভাপতি কমরেড রাশেদ খান মেনন এমপি একথা বলেন। ওয়ার্কার্স পার্টির এই ত্রাণ তৎপরতায় যারা সহযোগিতা করেছেন তাদের তিনি ধন্যবাদ জানান।
মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টির এই ত্রাণ কাজে নেতৃত্ব দেন মহানগর সভাপতি কমরেড আবুল হোসাইন, সাধারণ সম্পাদক কিশোর রায়, সম্পাদকম-লীর সদস্য তৌহিদুর রহমান, জাহাঙ্গীর আলম ফজলু, নগর কমিটির সদস্য তাপস রায়, মুর্শিদা আক্তার নাহার প্রমুখ।
এদিন ওয়ার্কার্স পার্টি মহানগর হকার, গৃহকর্মী, অপ্রতিষ্ঠানিক খাতের শ্রমজীবী মানুষ, ওয়ার্কার্স পার্টির প্রাথমিক কমিটির সদস্যদের ৫০০ জনের অধিক জনকে “চাল, আলু, চিনি, ডাল, তেল ও সাবানে”র প্যাকেট প্রদান করেন।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১৫৩ বার

Share Button

Calendar

August 2020
S M T W T F S
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031