» নগ্নতা দেখলে শরীরে শিহরন জাগে

প্রকাশিত: ০৮. অক্টোবর. ২০২০ | বৃহস্পতিবার

 

নারগিস সোমা

লজ্জা কোথায়?
চোখে?
মুখে?
শরীরে?
নাকি মনে?
নগ্নতা দেখলে শরীরে শিহরন জাগে সবার, নগ্ন শরীরের অংশ থেকেই তো জন্ম আমাদের সবার, একজন মেয়ে যখন সন্তান প্রসব করে সেই সময় ডাক্তার, নার্সের সামনে তার শরীরের গোপন অঙ্গ নগ্ন করে আর্তনাদ করে তখন আশেপাশে উপস্থিত কারো শরীরে কেন কাম ভাবের শিহরন হয়না? আমদের সমাজে যারা নিজ মায়ের নগ্ন শরীর থেকে ভূমিষ্ট হয় তারা কিভাবে অন্য একজন মার জাতিকে রেপ্ট করে?
এসব রেপিস্টদের কি তার মার শরীর দেখেও শিহরন জাগে?
আমরা লজ্জা পাই একজন মাকে,একজন মেয়েকে,একজন নবজাত শিশুকে,একজন ছাএিকে রেপ্ট করতে দেখে লজ্জা পাই, লোক লজ্জার লজ্জায় বিচার চাইতে আরো বেশী লজ্জা পাই,
রেপ হওয়া মেয়ের বিয়ে জন্য পাএ খুজতে লজ্জা পাই,
ডিভোর্স হওয়া মেয়ের পাশে দারাতে লজ্জা পাই,
আমাদের এই লজ্জার শেষ কোথায় সমাধান কি?
সমাজের এই রেপিস্টদের খাবার দেয় কারা? সমাজে থাকতে দিচ্ছে কারা? আমরা সবাই, এর দায় ভার কাদের?
সরকারের কাছে বিচার চাই আমরা সবাই, সরকার কেনো বিচার করবে? রেপিস্টকে তার পরিবারকে সমাজে আপনারা সবাই থাকতে দিচ্ছেন,খেতে দিচ্ছেন, সালাম দিচ্ছেন লালন-পালন করছেন আর বিচার চান সরকারের কাছে।
সরকারের কি সম্ভব প্রতিটা মহল্লা পাহারা দেওয়া? আপনি নিজে সরকার হলে কি তা করতেন? না করতেন না কেও করতো না, আমরা আমাদের সম্পর্ক গুলো ভুলো গিয়েছি, সমাজের মানুষ একে অন্যের তা ভুলে গিয়েছি,একই এলাকাতে কেও কাউকে চিনিনা,চিনতে চাই ও না,যার জন্য এসব রেপিস্টরা যা ইচ্ছা তাই করার সুযোগ পায়,
রেপ্ট তো একজনের হয় না হয় আমাদের গোটা সমাজ মূল্যবোধের, তার লজ্জা আমরা কেউ পাইনা,
মনের লজ্জায় কারো সাথে মন খুলে কথা বলতে চাইনা,আবার সেই মনেই অপকর্মের বাসা বাঁধতে দ্বিধা বোধ করিনা,
কারো রেপ্ট হতে দেখলে লজ্জায় চোখ বন্ধ করে চলে যাই অন্য দিকে কখনো ভাবিনা এটা আমার ঘরের কারো সাথে হয়ত ভবিষ্যতে হতে পারে,লজ্জায় ভয়ে মুখ বন্ধ, চোখ বন্ধ,
আমরা যতদিন একে অন্যের থেকে দুরত্ব কমাতে পারবোনা সমাজে এসব রেপিস্টদের জন্ম ঠেকাতে পারবোনা, সবাই একসাথে হলে সব কিছু প্রতিহত করা সম্ভব, আমরা তো একে অন্যের কাছে অপরিচিত,যেমন আমি তেমনি আপনি….

৫.১০.২০২০

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১৬২ বার

Share Button

Calendar

October 2020
S M T W T F S
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031