» পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের নিয়ে বৈঠক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর

প্রকাশিত: ২১. নভেম্বর. ২০১৯ | বৃহস্পতিবার

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল সড়কে ধর্মঘটের পরিপ্রেক্ষিতে পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের নিয়ে বৈঠকে বসেছেন।

বুধবার রাত ৯টার পর মন্ত্রীর ধানমণ্ডির বাড়িতে এই বৈঠক শুরু হয় । সেখানে পরিবহন মালিক-শ্রমিক নেতাদের পাশাপাশি সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব নজরুল ইসলাম, বিআরটিএ কর্মকর্তারাও রয়েছেন।

আনুষ্ঠানিকভাবে ধর্মঘট আহ্বানকারী ট্রাক-কভার্ড ভ্যান মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের নেতাদের মধ্যে বৈঠকে রয়েছেন রুস্তম আলী খান, তাজুল ইসলাম, মকবুল আহমেদসহ অন্তত ১০ জন।
বাস মালিক সমিতির নেতা খন্দকার এনায়েত উল্লাহও রয়েছেন বৈঠকে।

সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন, এই বৈঠকের পর আন্দোলনরত পরিবহন শ্রমিকরা ঘরে ফিরবেন বলে তিনি আশাবাদি ।

নতুন সড়ক পরিবহন আইনের কয়েকটি ধারা নিয়ে আপত্তি জানিয়ে মঙ্গলবার থেকে ধর্মঘটের ডাক দেয় ট্রাক ও পণ্য পরিবহন শ্রমিকরা। পণ্য পরিবহনে এই ধর্মঘটের প্রভাব পড়ছে।

আনুষ্ঠানিক ঘোষণা না দিলেও দুদিন ধরে বিভিন্ন রুটে বাস চলাচল বন্ধ রেখেছে চালকরা, যাতে রাজধানীর সঙ্গে সারা দেশের সড়ক যোগাযোগ কার্যত বন্ধ হয়ে গেছে। বুধবার ঢাকায়ও ছিল বাস সঙ্কট।

মালিক-শ্রমিকদের ‘স্বেচ্ছা কর্মবিরতির’ কারণে সৃষ্ট দুর্ভোগের দায় নিতে চান না পরিবহন মালিক ও শ্রমিক নেতারা। বাস মালিকরা বলছেন, আইন নিয়ে ভীতি এবং আন্দোলনরত শ্রমিকরা বিভিন্ন জায়গায় বাধা দেওয়ায় বাস চলাচল ব্যাহত হচ্ছে।

সড়কে অচলাবস্থা নিরসনে এই বৈঠক ডাকা হলেও তাতে যোগ দিতে চাননি সাবেক মন্ত্রী ও বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি শাজাহান খান।

যারা ধর্মঘট ডেকেছে, তাদের ধর্মঘট প্রত্যাহারের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।

সড়ক পরিবহন আইনের কিছু বিষয় নিয়ে শ্রমিক ফেডারেশনের নেতারা বৃহস্পতিবার আলোচনায় বসবেন বলে জানান শাজাহান খান।

তিনি বলেন, কী কী ‍বিষয়ে পরিবর্তন ও সংশোধন করা দরকার, সেগুলো চিহ্নিত করা হবে। আইনের পরিবর্তন সংশোধনের বিষয়ে আলোচনা করে যে সিদ্ধান্ত আসবে তার আলোকে সরকারকে একটি ‘ডিমান্ড’ দেওয়া হবে।”

পরিবহন মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন সমিতির সভাপতি ও জাতীয় পার্টির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গাঁও বলছেন, এই ধর্মঘটে মালিক সমিতির ‘কারও কোনো সম্পৃক্ততা নেই’।

তবে সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ বলছেন, সঙ্কট সমাধানে তাদের দিক থেকে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি ।

বাস চলাচল স্বাভাবিক হবে কি না তা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের ওপরই নির্ভর করছে মন্তব্য করে পরিবহন মালিক সমিতির এই নেতা।

এদিকে কর্মবিরতির নামে অঘোষিত পরিবহন ধর্মঘটে ব্যাপকভাবে যাত্রী ভোগান্তি হওয়ায় এই কর্মসূচি প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি।

সমিতির মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী বলেন, একটি চিহ্নিত কায়েমি স্বার্থবাদী গোষ্ঠী পরিবহন সেক্টরে প্রভাব বিস্তার করে নানা সময়ে সরকারের ভালো কাজগুলোকে প্রশ্নবিদ্ধ করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত আছে।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৩৬৪ বার

Share Button

Calendar

August 2020
S M T W T F S
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031