» পুরনো দলগুলো দিয়ে হবে না. নতুন দল লাগবে ঃ মান্না

প্রকাশিত: ৩০. আগস্ট. ২০২০ | রবিবার

নাগরিক ঐক্যের নেতা মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, পুরো দেশেরই কোনো বিধান নেই। খালি স্বাস্থ্যের মধ্যে বিধান চালু করলে তো হবে না। যদি গঠন করতে হয় পুরো দেশ গঠন করতে হবে, পুরো দেশের খোলনলচে বদলে নতুন করে সাজাতে হবে। তার জন্যে পুরনো দলগুলো দিয়ে হবে না. নতুন দল লাগবে।

আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মান্না বলেন, আওয়ামী লীগ করতাম। আওয়ামী লীগ থেকে… হঠাৎ করে ১৪ তলা থেকে মানুষকে ফেলে দেয় না যে রকম, আমাকে এ রকম ফেলে দেওয়া হল। টেলিভিশনে মাঝে-মধ্যে দেখায় না- উপর থেকে পড়ে গেছে মেঝের মধ্যে পারদের মতো সেটা একটা লিকুইড হয়ে গেছে। সেই লিকুইড চলতে চলতে আস্তে আস্তে একটা মানুষ দাঁড়িয়ে গেল।“আমি এ রকম পড়ে গিয়ে আমার হাত-পা সব ভেঙে গেল। কিন্তু আমার মনটা ঠিক থাকল। আমি মনে করলাম, না কিছু একটা করব। কিছু একটা যেহেতু করছি, করতেই থাকব। এই যে হাঁটতে শুরু করলাম। মানুষ বলে পায়ে লক্ষ্মী। চলেন, হাঁটেন, কথা বলেন, আপনি আরও সম্পদ, শক্তি সংগ্রহ করতে পারবেন এবং এ রকম করে আস্তে আস্তে করে আজকে এই মঞ্চে যাদের দেখছেন, এর বাইরেও অজস্র মানুষ রয়েছে।”

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক থাকাকালে ২০০৭ সালে ওয়ান-ইলেভেন পরবর্তী সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় দলে সংস্কারপন্থি হিসেবে পরিচিতি পান মান্না। ২০০৮ সালে নির্বাচনের পর আওয়ামী লীগের কাউন্সিলে পদ হারান তিনি। এরপর গত মহাজোট সরকার আমলে নাগরিক ঐক্য গঠন করে আহ্বায়ক হিসেবে দলটির নেতৃত্ব দিচ্ছেন মান্না।

শনিবার সাবেক কূটনীতিক সাকিব আলীসহ কয়েকজনের নাগরিক ঐক্যে যোগদান অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগ থেকে বাদ পড়ার সময়ে তার অবস্থার কথা তুলে ধরেন মাহমুদুর রহমান মান্না।

পুরনো দলগুলোকে দিয়ে বাংলাদেশের পরিবর্তন হবে না মন্তব্য করে মান্না বলেন, “প্রায়ই পত্রিকায় ছবি দেখবেন, কেউ স্বাস্থ্যবিধি মানে না। শুধু স্বাস্থ্যবিধি মানেন প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রীরা এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। ওরা ঘর থেকে বেরোয় না। রিকশাওয়ালা স্বাস্থ্যবিধি মানবে কীভাবে? দিনমজুর স্বাস্থ্যবিধি মানবে কীভাবে? নিম্ন বেতনভুক কর্মচারী স্বাস্থ্যবিধি মানবে কীভাবে? ইনফরমাল সেক্টরে কাজ করে বেশিরভাগ লোক, বেতন পায় না, তারা স্বাস্থ্যবিধি মানবে কীভাবে?
পুরো দেশেরই কোনো বিধান নেই। খালি স্বাস্থ্যের মধ্যে বিধান চালু করলে তো হবে না। যদি গঠন করতে হয় পুরো দেশ গঠন করতে হবে, পুরো দেশের খোলনলচে বদলে নতুন করে সাজাতে হবে। তার জন্যে পুরনো দলগুলো দিয়ে হবে না. নতুন দল লাগবে।

এই লক্ষ্যেই নাগরিক ঐক্যের জন্ম জানিয়ে মান্না বলেন, আসলে নতুন কিছু দরকার তার বড় প্রমাণ আজ সাকিব আলী, নাজমুস সাদাত, রাজ্জাক শরীফসহ এতজন মানুষ এই দলে যোগ দিয়েছেন।

ডাকসুর সাবেক ভিপি মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ৪৯ বছরে বাংলাদেশ এ রকম শাসক কখনও পায়নি, যাদের উপরে এই দেশ নির্ভর করতে পারে। নাগরিক ঐক্য গঠন করেছি কেন? যখন আমাদের মনে হয়েছে, আমাদের প্রথম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে পোস্টার ছেপেছিলাম, দুই নেত্রীর হাতে নিরাপদ নয়, তৃতীয় রাজনৈতিক শক্তি গড়ে তোলার এখনই সময়।

“মানুষ বিশ্বাস করতে পারছে না, মানুষ আস্থায় নিতে পারছে না। মানুষ বলছে, এই ওসি প্রদীপ কে, কোথা থেকে আসল। কে তাকে গোল্ড মেডেল পরিয়ে দিল? কে তাকে এত অভিযোগের পরও তার জায়গায় রেখে দিল? শুধুমাত্র একজন নাকি অনেকে মিলে? এই প্রশাসনকে নষ্ট করেছে কারা? ৪৯ বছর যদি আমরা দেখি, তাও উপায় নেই।”

সরকারের সমালোচনা করে তিনি বলেন, “আমাদের রাজনীতিতে দুর্বৃত্তায়নটা মূল কথা। আমাদের রাজনীতিতে কোনো সুস্থতা নেই, আমাদের রাজনীতিতে কোনো ইতিবাচকভাবে গঠন করবার অবস্থা নেই।”
জাতীয় প্রেস ক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে এই অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে আবদুর রাজ্জাক তালুকদার, নাজমুস সাদাত, সামিউল আলম রাসু, সেলিম রেজা. শফিকুল ইসলাম জয়, সাইফুল ইসলাম, শাহিন মণ্ডল, ফেরদৌসী আক্তার, রাজ্জাক শরীফ নাগরিক ঐক্যে যোগ দেন।

দলটিতে যোগ দিয়ে সাকিব আলী বলেন, আমি প্রায় পাঁচ বছর আগে সরকারি চাকুরি থেকে পদত্যাগ করেছিলাম রাজনৈতিক কারণে। পাঁচ বছর দেখলাম। আমি মান্না ভাইকে একমাত্র মনে করি জাতীয় নেতাদের মধ্যে যিনি যুক্তিবাদী মানুষ। উনি সবাইকে কথা বলতে দেন, সবার কথা শুনেন, সেটা বিবেচনা করেন।

অন্যের মতামতের প্রতি তাঁর একটা শ্রদ্ধাবোধ আছে। আমি সেই হিসেবে বলি নাগরিক ঐক্য একমাত্র দল যেখানে একটা সিস্টেম আছে। সেজন্য আমি মান্নার নেতৃত্বে এগোতে পারব বলে এই দলে যোগ দিয়েছি।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৮১ বার

Share Button

Calendar

October 2020
S M T W T F S
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031