» ফেইসবুকে স্ট্যাটাস দেখে দুই বছর পর নিখোঁজ সন্তানকে ফিরে পেলেন বাবা

প্রকাশিত: ২৭. সেপ্টেম্বর. ২০২০ | রবিবার

মো. আব্দুল কাইয়ুম,মৌলভীবাজার:
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের স্ট্যটাস দেখে নিখোঁজের দুই বছর পর নিখোঁজ হওয়া আদরের সন্তানকে ফিরে পেলেন তাঁর বাবা। স্থানীয় ব্যক্তিদের সহায়তায় শ্রীমঙ্গল উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে হারিয়ে যাওয়া মানসিক ভারসাম্যহীণ ছেলেটিকে তার পিতার নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।

সূত্রে জানা যায়, লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের বনে মানসিক ও শারীরিকভাবে অসুস্থ এক অজ্ঞাত পরিচয়ের ব্যক্তির কথা উল্লেখ করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন পার্থ সারথি দাশ নামে এক ব্যক্তি। বিষয়টি নজরে আসে শ্রীমঙ্গলের অঙ্গীকার সামাজিক সাহিত্য পরিষদ নামে একটি সামাজিক সংগঠনের সদস্যদের।

লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের প্রবেশ পথের প্রদান গেইটের সামনে পড়ে থাকা ওই লোকটিকে গত বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) উদ্ধার করে শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিয়ে চিকিৎসার করানো হয়। ওই উদ্ধারে অংশ নেন স্বেচ্ছাসেবক সরোয়ার জাহান জুয়েল, দিগিবিজয় রায় আকাশ, আজিজুর রহমান নাঈম প্রমুখ। ছেলেটির ছবি ফেসবুকে পোস্টসহ ব্যক্তিগত পর্যায়ে নানা জায়গায় যোগাযোগের মাধ্য ছেলেটির পরিচয় ফিরে পেতে সর্বাত্মক চেষ্টা চালানো হয়। এরই মধ্যে ফেইসবুকের সেই পোস্ট ভাইরাল হলে ময়মনসিংহের একজন লোক ছেলেটির ছবি দেখে চিনে ফেলেন এবং নিখোঁজ হওয়া ছেলেটির বাবাকে জানালে তিনিও তার ছেলেকে দেখে চিনে ফেলেন।

পরিবারিক সূত্রে জানা যায়, নিখোঁজ হওয়া ছেলেটির নাম শরিফ মিয়া (২০) । তার পিতার নাম খোরশেদ আলী, মাতার নাম আকলিমা খাতুন, জেলা ময়মনসিংহ, উপজলা তারাকান্দা, ইউনিয়ন, ৯নং কামারগাঁও এর বাসিন্দা সে। গতকাল শনিবার দুপুরে শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম ছেলেটিকে তার বাবার কাছে তোলে দেন। এসময় নিখোঁজ হওয়া ছেলেটির বাবা শ্রীমঙ্গলে এসে ছেলেটিকে দেখে আবেগ আপ্লুত হয়ে কেঁদে ফেলেন।

এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে রোবরার (২৭ সেপ্টেম্বর) বিকালের দিকে শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নজরুল ইসলাম এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে এক হতভাগ্য পিতার কাছে তার হারানো সন্তানকে খুঁজে পেতে সর্বাত্মক সহযোগিতা করেছেন শ্রীমঙ্গলের কিছু তরুন। এ বিষয়টি এটা আমাদের সমাজের জন্য অত্যন্ত ইতিবাচক ঘটনা।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১৩১ বার

Share Button