শিরোনামঃ-


» ফেইসবুক লাইভে অপপ্রচার ও অনলাইন গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

প্রকাশিত: ১২. জুলাই. ২০২০ | রবিবার


গত ৭ জুলাই ২০২০ ইং তারিখে আমি সৈয়দ আহমদ (মুকিদ) এর বিরুদ্ধে মৌলভীবাজারে অসহায় মানুষকে নির্যাতন ও ভূমি দখলের অভিযোগে দেশ প্রান্তসহ কয়েকটি অনলাইন নিউজ পোর্টালে একই শিরোনামের প্রকাশিত সংবাদ সমূহ আমার দৃষ্টিগোচর হওয়ায় জোর প্রতিবাদ ও তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি।
আমাকে জড়িয়ে যেসব সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। সরকারি খাল দখল, তুচ্ছ ঘটনায় নিরীহ মানুষকে টর্চার সেলে মারপিট, মিথ্যা মামলা দ্বারা মানুষকে হয়রানী করার মর্মে যে মৌলভীবাজার সদর উপজেলার ১২ নং গিয়াসনগর ইউ.পি এর ৪ নং ওয়ার্ডের সাবেক সদস্য ইকবাল আহমেদ এবং বর্তমান ইউ.পি সদস্য শামিম আহমেদ এবং কতিপয় ব্যাক্তি কর্তৃক মানববন্ধনে আমার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করা হয়েছে তা বিন্দু মাত্র সত্য নহে।

উল্লেখ্য যে, বর্তমান ইউ পি সদস্য এবং কিছু সংখ্যক ব্যক্তিবর্গ অন্যায় ফায়দা হাসিলের উদ্দ্যেশে আমার ব্যবসা প্রতিষ্টান ধ্বংস এবং আমার সম্মানহানি করার পায়তারা চালাচ্ছেন। যার অবতারণা গত ৩০শে জুন প্রকাশিত মিথ্যা ও বানোয়াট খবর ছাপানোর মধ্যে দিয়ে ফুটে উঠেছে। এমতাবস্থায়, বিগত ৭ জুলাই ২০২০ ইং তারিখের দেশ প্রান্ত নামক অনলাইন পোর্টালে প্রকাশিত মানববন্ধনে আনীত অভিযোগের পেক্ষাপটে আমি সৈয়দ আহমেদ সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।
আমি একজন প্রতিষ্টিত ব্যবসায়ী। আমাকে ঘায়েল ও হয়রানি করার জন্য ১২ নং গিয়াসনগর ইউনিয়ন পরিষদের ৪ নং ওয়ার্ড এর বর্তমান ইউ.পি সদস্য শামিম আহমেদ কুচক্রীমহলকে সঙ্গে নিয়ে নানা ষড়যন্ত্র চালিয়ে আসছিল। আমার সুনাম ও উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ ধ্বংস করার জন্য আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচার চালিয়েছে। যা খুবই দুঃখ জনক ।
বাস্তবতা হচ্ছে, আমি সৈয়দ আহমদ (মুকিদ), পিতা: মৃত হাজী আব্দুল লতিফ, সাং-বানিকা, করিমনগর, মৌলভীবাজার বাংলাদেশ এবং ব্রিটিশ নাগরিক হিসাবে বাংলাদেশর অর্থনীতির চাকা সচল করার লক্ষ্যে প্রবাস থেকে আয় করে বৈধ রেমিটেন্স এর মাধ্যমে দীর্ঘ ৩৫ বছর যাবত এস.কে.এল ফার্ম প্রাইভেট লি. নামের একটি ফিশারীজ প্রতিষ্টা করে পুষ্টিকর খাদ্য তথা মাছ, সবজি, ফলমুলসহ নানা প্রজাতীর খাদ্য উৎপাদন করে আসছি। আমার প্রতিষ্টানে প্রায় ৩০০ লোককে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করে দিয়েছি, যাদের বেশিরভাগ স্থানীয় এলাকার বাসিন্দা।
বিশেষভাবে উল্লেখ্য যে, ১২ নং গিয়াসনগর ইউ.পির বর্তমান ইউ.পি সদস্য শামিম আহমেদ আমার ফিশারীতে ৪ বছর পূর্বে চাকুরী করত, সেই সুযোগে সে আমার কর্মচারীদের নিকট হইতে ভয় দেখিয়ে বিভিন্ন ফসলাদি, মাছ চুরি সহ নগদ টাকা গ্রহন করিয়া নিয়ে যেত।

অতপর: আমি তাহার চুরি ও বিভিন্ন অপকর্ম করার বিষয় অবগত হয়ে আমার প্রতিষ্টান থেকে তাঁকে অব্যাহতী প্রদান করি। তখন থেকে সে আমার উপর ক্ষিপ্ত থেকে আমার সহিত বিভিন্ন সময় অসভ্য আচরন করে এবং বলে যে ফিশারী পরিচালনা করতে হলে তাহাকে চাদা দিতে হবে, অন্যথায় সে আমাকে ফিশারী ব্যবসা করতে দিবেনা। এইভাবে সে কুচক্রি মহলকে সঙ্গে নিয়ে আমাকে প্রতিনিয়ত হুমকি দামকিসহ আমার ব্যবসা প্রতিষ্টান পরিচালনা করতে বাধা সৃষ্টি করে আসছে।
তাছাড়া সে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা ও বানোয়াটভাবে মানহানী করার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যে বিভিন্ন প্রকার মানহনীকর ভিডিও রেকর্ড করে ফেইসবুকে প্রচার করে যাচ্ছে। যাহার কারনে আমার দেশ বিদেশসহ মারাত্বকভাবে মানহানী হচ্ছে। বিগত ০৫/০৭/২০২০ ইং তারিখে বর্তমান ইউ.পি সদস্য শামিম আহমেদ তাহার বাহিনীদের সঙ্গে নিয়ে আমার প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার অঙ্কুর মনির নিকট হইতে টাকা চিনতাই করে নিয়ে গেলে তাহার বিরুদ্ধে মৌলভীবাজার মডেল থানায় বিগত ০৮/০৭/২০২০ ইং তারিখে জি.আর-১৪৬/২০২০ নং একটি মামলা দায়ের হয়েছে।

তাছাড়াও সে বিগত১০/০৭/২০২০ ইং তারিখে পুনরায় আমার ফিশারীতে হামলা করে ফিশারীর সম্পদ ভাংচুর করে এবং আমাকে প্রানে হত্যার হুমকি দেয়। বর্তমান ইউ.পি সদস্য শামিম আহমেদ একজন জনপ্রতিনিধি হয়ে তাহার বাহিনীকে নিয়ে আমার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপপ্রচার ও মানাহানীকর কাজে লিপ্ত, যাহা কোনভাবেই কাম্য হতে পারেনা। পরিশেষে ৪ নং ওয়ার্ড এর বর্তমান ইউ.পি সদস্য শামিম আহমেদ কতৃক প্রকাশিত মিথ্যা সংবাদ ও অপপ্রচারের জোর প্রতিবাদ ও তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। পাশাপাশি ভিত্তিহীন সংবাদ পড়ে কেউ বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের প্রতি অনুরোধ রইল।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১৪১ বার

Share Button

Calendar

October 2020
S M T W T F S
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031