শিরোনামঃ-


» মানবতাবিরোধী অপরাধে মৌলভীবাজারি ৫ আসামীর রায়

প্রকাশিত: ১০. জানুয়ারি. ২০১৮ | বুধবার

সামছুল হোসেন তরফদারসহ পাঁচ আসামির বিরুদ্ধে একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলার রায় দিচ্ছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।
সামছুল হোসেন তরফদারসহ তাদের  বাড়ি মৌলভীবাজার জেলায় ।পাঁচ আসামির মধ্যে কারাগারে থাকা ইউনুছ আহমেদ ও ওজায়ের আহমেদ চৌধুরীকে সকালে কারাগার থেকে আদালতে নিয়ে আসা হয়। বাকি তিন আসামি সামছুল হোসেন তরফদার ওরফে আশরাফ, মো. নেছার আলী ও মোবারক মিয়া মামলার শুরু থেকেই পলাতক।বিচারপতি শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বাধীন তিন বিচারকের যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনাল বুধবার বেলা সাড়ে ১০টার পর ২০২ পৃষ্ঠার এই রায়ের সংক্ষিপ্তসার পড়া শুরু করে।
বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় মৌলভীবাজারের রাজনগরের বিভিন্ন গ্রামে লুটপাট, অগ্নিসংযোগ, আটকে রেখে নির্যাতন, হত্যা ও গণহত্যার মত মানবতাবিরোধী অপরাধের পাঁচটি ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে।

২০১৪ সালের ১২ অক্টোবর ওই পাঁচ আসামির বিরুদ্ধে তদন্ত শুরুর পর ২০১৬ সালের ২৬ মে ট্রাইব্যুনালে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দাখিল করে প্রসিকিউশন। একই বছর ৮ ডিসেম্বর অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে বিচার শুরু হয় এ মামলার। সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয় ২০১৭ সালের ১৫ জানুয়ারি।

দুই পক্ষের যুক্তিতর্ক শেষে গত বছরের ২০ নভেম্বর ট্রাইব্যুনাল মামলাটির রায়ের জন্য অপেক্ষমাণ (সিএভি) রাখে। এরপর মঙ্গলবার জানানো হয়, বুধবার ঘোষণা করা হবে এ মামলার রায়।

এর আগে ২০১৬ সালের ১৩ অক্টোবর ট্রাইব্যুনাল আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করলে ওইদিন বিকালেই রাজনগর উপজেলার গয়াসপুর গ্রামের ওজায়ের আহমেদ চৌধুরীকে (৬০) মৌলভীবাজার শহরের চৌমোহনা থেকে ও ইউনুছ আহমদকে (৭০) তার সোনাটিকি গ্রামের বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়, আসামিদের মধ্যে সামছুল হোসেন তরফদার একাত্তরে আল-বদর বাহিনীর এবং নেছার আলী রাজাকার বাহিনীর স্থানীয় কমান্ডার ছিলেন। বাকি তিনজন রাজাকার বাহিনীর সদস্য হিসেবে বিভিন্ন যুদ্ধাপরাধে লিপ্ত হন।

আদালতে এ মামলায় রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন প্রসিকিউটর সুলতান মাহমুদ সীমন ও তাপস কান্তি বল; আর ইউনুছের পক্ষে আইনজীবী আবদুস সোবহান তরফদার ও ওজায়েরের পক্ষে আইনজীবী মুজাহিদুল ইসলাম।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৬৯৮ বার

Share Button

Calendar

November 2020
S M T W T F S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930