» মৌলভীবাজারে ইউপি সদস্য কর্তৃক দোকান দখল নিয়ে সংঘর্ষ: আহত-২ দেশীয় অস্ত্রসহ আটক-১৬

প্রকাশিত: ২২. অক্টোবর. ২০১৯ | মঙ্গলবার


মোঃ আব্দুল কাইয়ুম,মৌলভীবাজার:
মৌলভীবাজারের ভৈরবগঞ্জ বাজারে স্থানীয় ইউপি সদস্যে কর্তৃক লন্ডন প্রবাসীর দোকান কোটা দখলকে কেন্দ্র করে দিনভর দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। সংঘর্ষের ঘটনায় স্থানীয় ইউপি সদস্য আনোয়ার হোসেনের পক্ষের লাল মিয়া (৪০) ও দৌলত মিয়া (২৩) নামে ২জন আহত হয়েছেন। এঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে উভয় পক্ষের ১৬ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) দুপুর ২টার দিকে শ্রীমঙ্গল উপজেলার ভৈরবগঞ্জ বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, ভৈরবগঞ্জ বাজারে অবস্থিত মৌলভীবাজার সদর উপজেলার ১২ নং গিয়াসনগর ইউনিয়নের মোহাম্মদপুর এলাকার বাসিন্দা লন্ডন প্রবাসী হাজী তৈয়ব মিয়ার মালিকানাধীন দোকান কোটা অবৈধভাবে দখলের জন্য গত বৃহস্পতিবার কালাপুর ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের সদস্য আনোয়ার হোসেন গভীর রাতে লোকজন নিয়ে দরজা ভেঙ্গে প্রবেশ করে দেয়াল নির্মাণ করার চেষ্টা চালান । এসময় পুলিশ উপস্থিত হয়ে দেয়াল নির্মাণ করতে বাঁধা দিলে কাজ বন্ধ রাখে ইউপি সদস্য আনোয়ার ও তার পক্ষের লোকজন,খবর পেয়ে লন্ডন প্রবাসীর লোকজনও সেখানে উপস্থিত হলে দু-পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। এই ঘটনার চারদিন পর আজ মঙ্গলবার সকালে লন্ডন প্রবাসীর লোকজন তাদের মালিকানাধীন দোকানকোটা উদ্ধারে গেলে দু-পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা তৈরী হয়। খবর পেয়ে শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে দুপুরের দিকে দু-পক্ষের মধ্যে তুমুল সংঘর্ষ শুরু হয়। সংঘর্ষে কয়েকটি দোকান ভাংচুর ছাড়াও আনোয়ার মিয়ার পক্ষের ২ জন আহত হন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পরবর্তীতে মৌলভীবাজার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে সেখানে জেলা পুলিশ লাইনস থেকে আরো অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন হলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। এ ঘটনায় স্থানীয় মেম্বার আনোয়ার হোসেনের পক্ষের ৬ জন ও লন্ডন প্রবাসী হাজী তৈয়ব মিয়ার পক্ষের ১০ জনকে আটক করে শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশ।

এদিকে পুলিশের চেষ্টায় থমথমে পরিস্থিতি যখন উন্নতির পথে ঠিক তখনই পুলিশের সামনে দিয়ে পিকাপ ভ্যানে করে লন্ডন প্রবাসী তৈয়ব মিয়ার পক্ষের লোকজন লাটিসোটা, ছুলপি,ঝাটাসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে প্রবেশের চেষ্টাকালে চারিদিকে আতঙ্ক তৈরী হলে পুলিশ দেশীয় অস্ত্রসহ হাতেনাতে তাদেরকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

শ্রীমঙ্গল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুস ছালেক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সকাল থেকে দু পক্ষের মধ্যে উত্তেজনার খবর পেয়ে প্রথমে ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছে। পরবর্তীতে দু-পক্ষের মধ্যে সমঝোতা হলেও তৃতীয় পক্ষের কারনে সংঘর্ষ তৈরী হয়।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৩৫০ বার

Share Button

Calendar

October 2020
S M T W T F S
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031