» মৌলভীবাজারে মারা যাওয়া প্রবাসী নারী করোনা আক্রান্ত ছিলেন না ঃ সিভিল সার্জন

প্রকাশিত: ২৫. মার্চ. ২০২০ | বুধবার

মৌলভীবাজার শহরের কাশিনাথ রোডে মারা যাওয়া লন্ডন প্রবাসী করোনা আক্রান্ত ছিলেন না। যুক্তরাজ্য ফেরত ষাটোর্ধ্ব বয়সী রেজিয়া বেগমের শরীরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার কোনো লক্ষণও ছিল না! পর্যবেক্ষণ করে জানিয়েছেন মৌলভীবাজারের সিভিল সার্জন ডা: তৌহিদ আহমদ। তিনি জানান, বিলেত প্রবাসী আব্দুল মকছুদ মিয়ার স্ত্রী রেজিয়া বেগম হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপসহ বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন। সেই রোগেই মারা গেছেন । ওই মহিলার বাসাসহ আশেপাশের ৫টি বাসার সব মানুষকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রেখে তারা বিষয়টি গভীর অনুসন্ধান করেন ।
সোমবার বিকেল ৪টা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত প্রবাস ফেরত ওই মহিলার স্বামীর সাথে কথা বলে ও বিভিন্ন কাগজপত্র পর্যবেক্ষন করে তিনি করোনা সংক্রমণে মারা যাননি বলে তাদের কাছে প্রতীয়মান হয়েছে বলে জানান।
উল্লেখ্য ওই লন্ডন প্রবাসী করোনা সিমটম নিয়ে মারা যান এমন গুজব ছড়িয়ে পড়লে তারা গভীর অনুসন্ধান পরিচালনা করেন এবং ওই এলাকায় ৫টি বাসাকে কোয়ারেন্টাইন করেছিলেন।

কাশিনাথ রোডের বাসিন্দা খেলু দেব জানান, প্রবাসী রেজিয়া বেগম বেশ কয়েক মাস আগেই এসেছেন । সে সময় বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ছিল না ।

রেজিয়া বেগমের গ্রামের বাড়ি মৌলভীবাজার সদর উপজেলার কনকপুর ইউনিয়নের ভাদগাঁও গ্রামে। কনকপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রেজাউর রহমান চৌধুরী বলেন, রোববার (২২ মার্চ) আনুমানিক বেলা ১টা থেকে দেড়টার দিকে সুগার নীল হয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হন রেজিয়া বেগম। পরে মৌলভীবাজার-২৫০ শয্যা হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকেরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মৌলভীবাজার পৌরসভার মেয়র ফজলুর রহমান বলেন, রেজিয়া বেগমের স্বামী আব্দুল মকছুদের সাথে কথা হয়েছে। স্বামী-স্ত্রী দুইজন একসাথে তিনমাস আগে লন্ডন থেকে আসেন। মকছুদ মিয়ার স্ত্রী রেজিয়া বেগম হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপসহ বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন। কিন্তু নিউমোনিয়া, শ্বাসকষ্ট, সর্দি-জ্বর, গলাব্যথা; করোনাভাইরাসের কোনো লক্ষণ তার মধ্যে ছিলোনা। রোববার রেজিয়া বেগম হঠাৎ করে হৃদরোগে আক্রান্ত হন। তাকে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকেরা মৃত ঘোষণা করেন। এ তথ্যগুলো জানিয়েছেন আব্দুল মকছুদ- বলে জানান মেয়র। সোমবার বিকেলের দিকে সদর উপজেলার গিয়াসনগরে রেজিয়া বেগমকে স্বাভাবিক নিয়মে দাফন করা হয়েছে। সেখানে (গিয়াসনগর) তিনি একটি মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করেছেন। এর আগে যোহরের নামাজের পর গ্রামের বাড়ি কনকপুর ইউনিয়নের ভাদগাঁও গ্রামে তার নামাজে-জানাযা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রসঙ্গত বিদেশ ফেরত অসুস্থ রেজিয়া বেগম মৃত্যুর ঘটনায় করোনা সন্দেহে সোমবার (২৩ মার্চ) মৌলভীবাজার শহরের কাশিনাথ সড়কের ৫টি ভবনকে হোম কোয়ারেন্টাইন (স্বেচ্ছাবন্দী) নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এদিকে পাশের আরেকটি বাসায় সদ্য ইতালি ফেরত এক যুবক অসুস্থ রয়েছেন। এছাড়া এই এলাকায় বিদেশফেরত একাধিক প্রবাসী রয়েছেন।

এ অবস্থায় এম আর ভিলাসহ আশেপাশের ৫টি ভবনকে করোনা সন্দেহে ‘হোম কোয়ারেন্টাইন’ ঘোষণা করে সাইনবোর্ড টানিয়ে দেয় জেলা পুলিশ।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১৫৫ বার

Share Button