» মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালে এমআরআই বন্ধ থাকায় দুর্ভোগে রোগীরা

প্রকাশিত: ০৬. মার্চ. ২০১৯ | বুধবার


মোঃ আব্দুল কাইয়ুম, মৌলভীবাজার:
চিকিৎসা সেবার সবচেয়ে আধুনিক রোগ নির্ণয়কারী যন্ত্র এমআরআই মেশিন
দীর্ঘদিন যাবত বন্ধ রয়েছে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালে। জেলা সদরে
সরকারি চিকিৎসা সেবার সবচেয়ে বড় এই প্রতিষ্ঠানে উন্নত এই যন্ত্রটি বন্ধ
থাকার ফলে বঞ্চিত হচ্ছেন এখানে সেবা নিতে আসা সাধারণ রোগীরা। বর্তমান
সময়ে চিকিৎসা সেবার সবচেয়ে অত্যাধুনিক এই যন্ত্রটি মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা
হাসপাতালে চালু হওয়ার পর থেকে এখানকার রোগীদেরকে এমআরআই পরীক্ষা করাতে আর
সিলেটে যেতে হতনা,এখন মেশিনটির কার্যক্রম বন্ধ থাকার কারনে দূর্ভোগে পড়তে হচ্ছে সাধারণ রোগীদেরকে।

একদিকে সিরিয়াল পেতে হয়রানি অপর দিকে মাসের পর মাস দীর্ঘ অপেক্ষার পর সিরিয়াল পেলেও একজন রোগীর এমআরআই করাতে দীর্ঘ সময় লেগে যাওয়ার কারনে অনেকে পরীক্ষা না করেই ফিরে যান। এরকমই একজন রোগী মৌলভীবাজার পৌর শহরের ইসলামবাগ এলাকার বাসিন্দা লাভলী বেগম এর সাথে দেখা হয় ঐ হাসপাতালে। এসময় তিনি এ প্রতিবেদককে নিজের দূর্ভোগের কথা বলতে গিয়ে জানান ১ মাস পূর্বে থেকে এমআরআই করাতে সিরিয়ালের জন্য অনেক লবিং করেও ব্যর্থ হয়ে ফিরে যেতে হচ্ছে। এখন সিলেট যাওয়া ছাড়া আর কোন উপায় নেই বলে জানা তিনি।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, এমআরআই বা মেগনেটিক রিজোনেন্স ইমেজিং যন্ত্রটিতে সর্বরাহকৃত হিমিয়াম জাতিয় গ্যাস শেষ হয়ে যাওয়ার কারনে মেশিনটি চালানো যাচ্ছেনা। সাপ্তাহে প্রতি রোববার মাত্র ৩জন করে রোগী মাসে মোট ১২জন রোগী এই যন্ত্র ধারা পরীক্ষা করে থাকেন। যা এখানে আসা রোগীর চাহিদা অনুযায়ী একেবারেই অপ্রতুল। এখানে এমআরআই করাতে হলে অন্তত দু মাস পূর্বে
সিরিয়াল সংগ্রহ করতে হয় বলে জানা গেছে।

মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালের এমআরআই ও সিটিস্ক্যান এর দ্বায়িত্বে থাকা মেডিকেল টেকনোলজিষ্ট বিরেন্দ্র চন্দ্র বৈষ্ণব জানান এমআরআই মেশিনের হিমিয়াম জাতিয় গ্যাস শেষ হয়ে যাওয়ার কারনে মেশিনটির বন্ধ রয়েছে, নতুন করে টেন্ডার হলে পরে মেশিনটিতে গ্যাস সর্বরাহ করা সম্ভব হবে।

এবিষয়ে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও)
ডা: পলাশ রায় জানান এমআরআই যন্ত্রটির মধ্যে সর্বরাহকৃত হিমিয়াম জাতিয় গ্যাস শেষ হওয়ার কারনে বন্ধ রয়েছে এর কার্যক্রম। গ্যাস সর্বরাহে নতুন করে
টেন্ডারের প্রয়োজন নেই জানিয়ে তিনি বলেন আমরা এবিষয়ে মন্ত্রনালয়ে চিঠি পাঠিয়েছি ব্যবস্থা নেয়ার জন্য , আশা করছি দ্রুত হয়ে যাবে।

এমআরআই বা মেগনেটিক রিজোনেন্স ইমেজিং  হল, সবচেয়ে আধুনিক রোগ নির্ণয়কারী একটি পরীক্ষা, যার মাধ্যমে নির্দিষ্ট রোগ বা রোগীর অস্বাভাবিক অবস্থা খুঁজে বের করতে মানব দেহের অভ্যন্তরীণ অঙ্গের খুব স্পষ্ট ছবি নেওয়া হয়।

মস্তিষ্কের রোগ, টিউমার, স্ট্রোক এবং অন্যান্য, মেরুদণ্ডের রোগ,আঘাত, জোড়া রোগ ও ক্রীড়াজনিত আঘাত, হাড় ও মাংসপেশির সমস্যা, রক্তনালীর
অস্বাভাবিকতা, মহিলাদের স্তন ও তল পেটের সমস্যা,  প্রস্টেট সমস্যা, লিভার, পিত্ত নালী ও কিছু আন্ত্রিক রোগ, নির্দিষ্ট নাক, কান ও গলাসহ শরীরের বিভিন্ন অংশের সুক্ষ রোগ নির্ণয়ের জন্য বর্তমানে এমআরআই একটি নির্ভরযোগ্য ও পছন্দের পদ্ধতিতে পরিণত হয়েছে। মস্তিষ্ক, মেরুদণ্ড, জয়েন্ট যেমন হাঁটু, কাঁধ, কব্জি, এবং গোড়ালি, পেট, স্তন, রক্তনালী, হার্ট এবং শরীরের অন্যান্য অংশের পরীক্ষার জন্য এমআরআই ব্যবহার করা  হয়ে থাকে ।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১০০ বার

Share Button

Calendar

May 2019
S M T W T F S
« Apr    
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031