» রুদ্র হাসানের কবিতাগুচ্ছ

প্রকাশিত: ২৬. জুন. ২০২০ | শুক্রবার


প্রকৃতির প্রকৃতরূপ ও মানুষ

ফুল-বৃক্ষ, গুল্মলতাদের দিকে তাকালেই
মনে হয় উপহাস আর বিদ্রুপ দৃষ্টিতে
চেয়ে আছে আমার দিকে

নির্মল হিমেল বাতাসেরাও কানের দুয়ারে
মুচকি হেসে ফিসফিস করে বলে
কোথায় গেলো তোমাদের বিষাক্ত ধোঁয়া
আর গ্যাসের তেজস্ক্রিয়তা

নদীরাও আড়চোখে দাঁড়কাকের মতো
তাকিয়ে দেখছে আর ছলাৎ ছলাৎ
জলের ভাষায় বলছে
দেখো গতকালের রাজাধিরাজ
আজ পরাজিত সৈনিকের মতো মাথা নুয়ে
চেয়ে আছে প্রকৃতির প্রকৃতরূপের দিকে

একনায়কতন্ত্রের দাপটের কপাটে
আতংকের খিল এঁটে বসে আছো আজ
দেহলিজের একঘেয়েমি চৌকাঠে।

এখনই সময়

নিজেকে শুধরে নাও
প্রকৃতির অদৃশ্য বার্তা এখন
তোমার দুয়ারের কড়া নাড়ছে
এখনো সময় আছে নিজেকে শুধরে নাও

শহরের অলিগলি, রাজপথ, অফিস
আদালত সবকিছু ছেড়ে-ছুঁড়ে
মৃত্যুর ভয়ে লোটাকম্বল বগলদাবা করে মুখগুঁজে
বসে আছো চারদেয়ালের কোলে

অথচ কি অদ্ভুত
সৃষ্টির সেরা জীব হয়েও আজ তুমি
কতইনা নগন্য কতইনা অসহায়

জানালা কিংবা বারান্দায় যাও
রাস্তার দিকে তাকাও দেখতে পাবে
জীর্ণশীর্ণ গাছগুলো আজ কতো ফুরফুরে
এবং সবুজে-শ্যামলে টইটম্বুর

যেমন বিয়ের মণ্ডপে নববধূ অলংকারে অলংকারে
পা থেকে মাথা পর্যন্ত মোড়ানো থাকে
ঠিক তেমনই প্রকৃতির প্রকৃত পরিবেশে
আজ গাছেদের ডালপালা-গুল্মলতারাও
ফুলে-ফলে পাতায় পাতায় অলংকৃত

ছাদে যাও দেখো
হরেকরকমের পাখপাখালি নির্ভয়ে
বিচরণ করছে কখনো গাছের ডালে
কখনো পাঁচিলে কখনোবা বারান্দার গ্রিলে
আপন মনে গাইছে জয়ও গান

পাতা আর ফুলেদের হাসিগল্পে মুখরিত
শহরের রাস্তা, উদ্যান, খোলামাঠ
গাড়ি আর ইঁটভাটার ধোঁয়া ও শব্দের চাবুকে
ঝলসে যায় না গাছেদের শ্যামল গা
আঁতকে ওঠে না পাখিদের বুক

আজ আর নদীকে ধর্ষণ করে না
মিল, ফ্যাক্টরির বর্জ-তেজস্ক্রিয়গ্যাস
ঝাঁকে ঝাঁকে মাছেরা নিজের স্বভাব আর
জলের স্বভাবের সাথে একাকার

যে শহর তোমার কাছে আজ মৃত
প্রকৃতির কাছে সে আজ প্রাঞ্জল অভয়ারণ্য।

চোখভরা প্রত্যাশা

আকাশে বিমানের আনাগোনা নেই
নদীর বুক চিরে ছুটে যায় না ট্রলার-লঞ্চ
রেললাইন সেও আজ নির্বাক দৃষ্টিতে
চেয়ে আছে একে অপরের দিকে

মৃত শহরের বুকে একবুক দীর্ঘশ্বাস নিয়ে
দাঁড়িয়ে আছে নিস্তব্ধ ফ্লাইওভার

নগরের হৈ-হুল্লোড়
আর বাসের কন্ডাকটরদের কানফাটা ডাক
গাড়ির মুহুর্মুহু হর্ণের তীব্র আওয়াজ
গিলে খেয়েছে করোনাভাইরাস

তবুও প্রতিদিন জীবন সংগ্রামী কিছু মানুষ
জীবিকার তাগিদে জীবন মুঠোয় নিয়ে
ছুটে চলেছে পিচঢালা পথে

আজ পৃথিবী চোখভরা অপেক্ষা নিয়ে
জেগে আছে পাথর কালো-রাত
জীবনারণ্যে চঞ্চলা-হরিণী-সকাল
আবার ফিরে আসবে এই প্রত্যাশায়।

মানুষ হও

হাত ধোয়ার সাথে সাথে
এবার আত্মাটাকেও ধুয়ে নাও মহারাজ

তা-না-হলে প্রকৃতি আবার আসবে ফিরে
অন্যকোন রূপে অন্যকোন নামে
মৃত্যুভয়ে হবে তুমি গৃহবন্দী

চাল চোর ঔষধ চোর
বাদ পড়বে না কোন হারামখোর
মৃত্যুর কোন ধর্ম নেই বর্ণ নেই
নেই আপোষনামা

মৃত্যুর ভয়ে বাদ পড়েনি
উপার্জনালয় ও উপাসনালয়ে তালা

সময় থাকতে আত্মা ধোও
‘মানুষ হও’
তাহলে বাঁচবে তুমি
বাঁচবে মানুষ
বাঁচবে পৃথিবী।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ২৭৭ বার

Share Button

Calendar

October 2020
S M T W T F S
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728293031