শিরোনামঃ-


» লক্ষ্মীপেঁচার অস্থায়ী আবাসস্থল বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশন

প্রকাশিত: ২৭. জানুয়ারি. ২০২০ | সোমবার

 
পংকজ কুমার নাগ শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি: কমলগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস স্টেশন থেকে উদ্ধারকৃত তিনটি লক্ষীপেঁচার বাচ্চাকে শ্রীমঙ্গলের বন্যপ্রাণী সেবা ফাউণ্ডেশনে হস্তান্তর করেছে কমলগঞ্জ ফায়ার স্টেশন কর্তৃপক্ষ । 

সোমবার (২৭ জানুয়ারি) সকালের দিকে শ্রীমঙ্গলের বন্যপ্রাণী সেবা ফাউণ্ডেশনে উদ্ধারকৃত তিনটি লক্ষীপেঁচার বাচ্চাকে হস্তান্তর করে কমলগঞ্জ ফায়ার স্টেশন কর্তৃপক্ষ।

কমলগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ভারপ্রাপ্ত স্টেশন অফিসার মো. আব্দুল কাদির জানান, “ফায়ার স্টেশনের আবাসিক ভবনের তৃতীয় তলায় কেউ বসবাস করতেন না । ফলে ছাদ সংলগ্ন সিঁড়িতে নির্জন পরিবেশে বাসা বেঁধেছিল একটি লক্ষীপেঁচার পরিবার । আজ সকালে প্রচন্ড দুর্গন্ধ পেয়ে আমি তিনতলায় যাই এবং লক্ষীপেঁচার বাসায় একটি মৃত ও তিনটি জীবিত লক্ষীপেঁচার বাচ্চা দেখতে পেয়ে আমি বাচ্চা গুলোকে উদ্ধার করে নিয়ে আসি । এ সময় মা লক্ষীপেঁচা বাসায় ছিলোনা । পরে শ্রীমঙ্গলের বন্যপ্রাণী সেবা ফাউণ্ডেশনে খবর দিলে ফাউণ্ডেশনের পরিচালক সজল দেব কমলগঞ্জ এসে লক্ষীপেঁচার বাচ্চাগুলোকে উদ্ধার করেন । 

বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউণ্ডেশনের পরিচালক সজল দেব জানান, “পেঁচার বাচ্চাগুলো এখন বেশ অসুস্থ । তাদেরকে কোন পাখি বা কাক আহত করেছে বলে মনে হচ্ছে । সেবাকেন্দ্রে আমরা বাচ্চাগুলোর পরিচর্যা করছি । লক্ষ্মীপেঁচার বাচ্চাগুলো সুস্থ হয়ে উড়তে শিখলেই এগুলোকে লাউয়াছড়া জাতীয় পার্কে অবমুক্ত করে দেয়া হবে । তিনি কমলগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস কর্তৃপক্ষকে এই মহৎ কাজের জন্য ধন্যবাদ জানান । 

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৩০৬ বার

Share Button