শ্রীমঙ্গলে উৎসবমুখর পরিবেশে স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন

প্রকাশিত: ৭:৪৩ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৫, ২০২০

শ্রীমঙ্গলে উৎসবমুখর পরিবেশে স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচন

পংকজ কুমার নাগ শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি: শ্রীমঙ্গলে বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনা ও উৎসবমুখর পরিবেশে বিভিন্ন বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে “স্টুডেন্টস কেবিনেট” নির্বাচন ।

শনিবার (২৫ জানুয়ারি) সারাদেশের মতো শ্রীমঙ্গলের ২১টি বিদ্যালয় ও ২টি দাখিল মাদ্রাসায় একযোগে সকাল ৯টা থেকে ভোটগ্রহনের মাধ্যমে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় । 

শ্রীমঙ্গল উদয়ন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা কবিতা দাশ জানান, ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণী পর্যন্ত প্রত্যেক শ্রেণীতে শিক্ষার্থীদের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত হবে পাঁচজন এবং সকল শ্রেনীর মধ্যে ভোটের আধিক্যের ভিত্তিতে নির্বাচিত হবে আরো তিনজন । মোট আট সদস্যের স্টুডেন্টস কেবিনেট গঠিত হবে । 
তিনি জানান, উদয়ন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের স্টুডেন্টস কেবিনেট নির্বাচনে ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণীর মোট ১৫ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে । ষষ্ট শ্রেণী থেকে ৪ জন, সপ্তম শ্রেণী থেকে ৩ জন, অষ্টম শ্রেণী থেকে ৩ জন, নবম শ্রেণী থেকে ২ জন ও দশম শ্রেণী থেকে ৩ জন নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে ।

এদের মধ্যে ষষ্ঠ শ্রেণীর খ শাখা থেকে মাইশা আক্তার (প্রাপ্ত ভোট ৮১৮), সপ্তম শ্রেণীর গ শাখা থেকে ফারজানা আক্তার (প্রাপ্ত ভোট ৮২৮), অষ্টম শ্রেণীর ক শাখা থেকে সুস্মিতা দেব পৃথা (প্রাপ্ত ভোট ৭৯৭), নবম শ্রেণীর ক শাখা থেকে তানজিলা আক্তার (প্রাপ্ত ভোট ৮৭৪) এবং দশম শ্রেণীর খ শাখা থেকে ডলি বেগম (প্রাপ্ত ভোট ৮৩৩) মোট পাঁচজন নির্বাচিত হয় । এছাড়া ভোটের আধিক্যের ভিত্তিতে দশম শ্রেণীর ক শাখা থেকে পায়েল গোস্বামী (প্রাপ্ত ভোট ৮১৮), অষ্টম শ্রেণীর ক শাখা থেকে প্রথমা বৈদ্য (প্রাপ্ত ভোট ৭৮৭) ও সপ্তম শ্রেণীর ক শাখা থেকে আকলিমা আক্তার (প্রাপ্ত ভোট ৭৭০) নির্বাচিত হয় । মোট ভোটার ছিলো প্রায় ১১০০ শিক্ষার্থী । 

শ্রীমঙ্গল উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা দিলিপ কুমার বর্ধন জানান, শিক্ষার্থীদের মধ্যে দশম শ্রেণী থেকে একজন প্রধান নির্বাচন কমিশনার, নবম শ্রেণী থেকে একজন প্রিজাইডিং অফিসার ও অষ্টম শ্রেণী থেকে একজন পোলিং অফিসার এই নির্বাচন পরিচালনা করে থাকে । নির্বাচন ও এ সংক্রান্ত কার্যক্রম পরিচালনার জন্য প্রতিষ্ঠান প্রধান প্রয়োজন সাপেক্ষে একজন সহকারী শিক্ষককে সমন্বয়কারী হিসেবে নিয়োগ দিতে পারেন । প্রয়োজনীয় সংখ্যক ভোটকক্ষে গোপন ব্যালটের মাধ্যমে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয় ।

নির্বাচনী বিধান অনুযায়ী প্রচারের জন্য হাতে লেখা পোস্টার, ফেস্টুন, লিফলেট ব্যবহার করা হয় ।  নির্বাচিত আটজন প্রতিনিধির আটটি কার্যক্রম পরিচালনার দায়িত্ব পেয়ে থাকে । কার্যক্রমগুলো হলো- ১.পরিবেশ সংরক্ষণ (বিদ্যালয়, আঙিনা ও টয়লেটপরিষ্কার এবং বর্জ ব্যবস্থাপনা), ২. পুস্তক ও শিখনসামগ্রী, ৩. স্বাস্থ্য, ৪. ক্রীড়া ও সংস্কৃতি এবং সহপাঠকার্যক্রম, ৫. পানি সম্পদ, ৬. বৃক্ষ রোপণ ও বাগানতৈরি, ৭. দিবস ও অনুষ্ঠান উদযাপন ও অভ্যর্থনাও আপ্যায়ন, ৮. আইসিটি ।

স্টুডেন্টস কেবিনেট মাসে কমপক্ষে একবার করে সভা করবে, ছয়মাস পরপর সাধারণ ছাত্র-ছাত্রীদের উপস্থিতিতে সাধারণ সভা করবে । শিক্ষা গ্রহণের পাশাপাশি শিশুকাল থেকে গণতন্ত্রের চর্চা, গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়া, অন্যের মতামতের প্রতি সহিষ্ণুতা ও শ্রদ্ধা প্রদর্শন, একে অপরকে সহযোগিতা করা, শতভাগ শিক্ষার্থী ভর্তি ও ঝরেপড়া রোধে সহযোগিতা, পরিবেশ উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণ নিশ্চিতকরনসহ ক্রীড়া, সংস্কৃতি ও সহশিক্ষা কার্যক্রমে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা “স্টুডেন্টস কেবিনেট” নির্বাচনের উদ্দেশ্য । 

ছড়িয়ে দিন