» সাভারে হেলানো বিদ্যুতের খুঁটিতে প্রতিনিয়ত বাড়ছে দুর্ঘটনা

প্রকাশিত: ০৭. আগস্ট. ২০২০ | শুক্রবার

সাদ্দাম হোসেন

রাজধানী ঢাকার একেবারে কাছে অবস্থিত একটি ইউনিয়ন সাভার উপজেলার বনগাঁও ইউনিয়ন। এটির ২নং ওয়ার্ডস্থ নিকরাইল এলাকায় রাস্তার পাশে দীর্ঘদিন ধরে পল্লী বিদ্যুতের একটি খুঁটি হেলানো অবস্থায় রয়েছে। এতে করে জনসাধারণ চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। প্রতিদিনই অনাকাঙ্ক্ষিত দূর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কায় এখানকার মানুষ তাদের জীবন অতিবাহিত করছে। মাঝে মাঝে অনেকে দুর্ঘটনার শিকারও হচ্ছে। এব্যাপারে স্থানীয় জনগণ ঢাকা জেলা পল্লী বিদ্যুৎ সমীতি-৩ এর কাছে বার বার ধরনা ধরেও এখনো পর্যন্ত কোনো প্রতিকার পায়নি বলে জানা গেছে।

সম্প্রতি নিকরাইল এলাকার মাহাবুব(৪০), রুবেল মিয়া(২৫), রনি মিয়া(৩০) নামে তিন ব্যক্তি ঐ বৈদ্যুতিক খুঁটির দ্বারা দুর্ঘটনার শিকার হয়ে মারাত্মক আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। এ ব্যাপারে দুর্ঘটনার শিকার মাহাবুব রেডটাইমসকে বলেন, ঈদের একদিন আগে শুক্রবার দুপুরে তারা তিনজন বিক্রয়ের জন্য গরু নিয়ে নৌকায় করে গাবতলী হাটে যাচ্ছিলেন। এসময় হেলে থাকা বৈদ্যুতিক খুঁটির তারে তড়িৎগ্রস্ত হয়ে তার পিঠ, হাত ও পা পুড়ে যায়। রুবেলের বাম হাত মারাত্মকভাবে পুড়ে যায়, যার ফলে তার বাম হাত কেটে ফেলা হয়েছে। এ ঘটনায় তার একটি গরু মারাও গিয়েছে বলে জানান মাহবুব।

স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, বিগত কয়েক বছর ধরে এখানে পল্লী বিদ্যুতের খুঁটিটি হেলে রয়েছে। এ ব্যাপারে নিকরাইল এলাকার ঢাকা জেলা পল্লিবিদুৎ সমীতি-৩ এর কাছে বার বার ধরনা দেওয়া হয়েছে কিন্তু এখনো পর্যন্ত তারা এর কোনো প্রতিকার পাননি। বিষয়টি আমলে নিয়ে কোনো ব্যবস্থাই নেয়নি কর্তৃপক্ষ।

তারা আরো বলেন, প্রতিনিয়তই এখানে মানুষজন দূর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন। অতিদ্রুত এই সমস্যা সমাধানের দাবি জানান তারা। অন্যথায় বড় ধরণের দূর্ঘটনার আশংকা করছেন তারা।

এব্যাপারে স্থানীয় ২নং ওয়ার্ড মেম্বার ফিরোজ খাঁন বলেন, তিনি সম্প্রতি ঘটা দূর্ঘটনাটির ব্যাপারে অবহিত হয়েছেন। এছাড়া এলাকাবাসীকে সাথে নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শনও করেছেন৷ একই সাথে স্থানীয় পল্লী বিদ্যুত অফিসেও বিষয়টি অবগত করেছেন।

এব্যাপারে বনগাঁও ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের সাথে কথা বলে জানা যায়, সম্প্রতি ঘটে যাওয়া দূর্ঘটনাটি নিয়ে সবাই মর্মাহত। এব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। খুব শীঘ্রই ইতিবাচক কোনো ফলাফল আসবে বলে জানান তিনি৷

এ ব্যাপারে আমিন বাজার পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের ডিজিএম নুরুল ইসলাম বলেন, তারা দূর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এসময় তারা সেখানে একটি লাল পতাকা বেঁধে দিয়েছেন। আর সতর্কতার অংশ হিসেবে এলাকায় মাইকিংও করে দিয়েছেন। তিনি আরো বলেন, বর্তমানে খুঁটিটি পানির মধ্যে রয়েছে। তাই এই মুহূর্তে কোনো কিছু করা যাচ্ছে না। তবে বন্যার পানি নেমে গেলে তিনি এই সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করবেন বলে জানিয়েছেন৷

এলাকাবাসী এই সমস্যার সমাধানে পল্লী বিদ্যুতের উর্ধতন কর্তপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১৪২ বার

Share Button

Calendar

September 2020
S M T W T F S
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
27282930