» হেমন্ত সন্ধ্যায় যেতে চাই ঝরে

প্রকাশিত: ১০. নভেম্বর. ২০১৯ | রবিবার


কাকলী চৌধুরী
অতঃপর নেড়াপোড়া নবান্নের শেষে ধুধু খাঁখাঁ ফসলের মাঠ
স্মরণে তোমার মুখ, প্রিয় ফুলবতী ফাল্গুন,
জলজ সুহাসিনী বরষা, শুভ্র সীমন্তিনী শারদীয়া,
তবুও অঘ্রাণ অতীব আপন,
হিমহিম শিশিরে ওমওম আবাহন শিরশির আসন্ন বিদায়ের;
শিষ কুড়ানি পল্লিবালা, বাতাসে তার অভাবী আঁচল,
বিবর্ণ ধুমল কুয়াশা সন্ধ্যায় গৈরিক উত্তরীয়ে গম্ভীর কালাধিরাজ,
এক বিষন্ন গোধূলীর মৃত আলো দুচোখে মেখে,
শুকনো ঝরা পাতায় মিশে আছে অঘ্রাণের ঘ্রাণ,
আমি তারে ভালোবাসি, বাসনাক্লান্ত প্রকৃতি ও পুরুষের হৃদয়
আজ শান্ত স্থির, বিষন্ন দীর্ঘশ্বাস; রমন ও ফলনক্লান্ত; বুঝে নিয়েছে
এবার তবে হৃদয়েরও বেলাশেষ, এখন কেবলি পথ চলা
নক্ষত্র ও শিশিরের সাথে কোন এক শেষ সত্যের পথে, যে পথে
হয়তো কোন এক শীত রাত্রির শেষে উদিবে নব বসন্তের নতুন সূর্য;
ফলবতী রমনীর হলুদ আঁচলে শান্তিপিয়াসায় মুখ লুকোবে জলঝিরি নদীটি,
হেমন্তের রূপালি শিশিরে ভিজানো দুচোখে রবে নতুন উদয়ের ছায়া।
অফুরান ভালোবাসা ডালি ভরা আছে পৃথিবীর ‘পরে
তবু ও কোন এক হেমন্ত সন্ধ্যায় যেতে চাই ঝরে
একাকী বিষন্ন হেঁটে যেতে চাই শুণ্য ক্ষেতের আল ধরে
নি:শব্দ উল্কার মত ঝরে যেতে চাই তোমাদের পৃথিবীর কোন এক সুদূর প্রান্তরে।।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৪৫৯ বার

Share Button

Calendar

July 2020
S M T W T F S
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031