» তবে কি ফারুক হাসান তুহিনই পাচ্ছেন মনোনয়ন?

প্রকাশিত: ১০. আগস্ট. ২০১৮ | শুক্রবার

সাদ্দাম হোসেন

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-১৯ আসনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পাওয়ার ক্ষেত্রে এগিয়ে আছেন কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক হাসান তুহিন। নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন দেয়ার ক্ষেত্রে এবার মনোনয়ন প্রত্যাশীদের ৬ টি গুণাবলি বিচার করছে দলটি। এগুলো হল: জনপ্রিয় জননেতা হওয়া, কর্মীবান্ধব নেতা হওয়া, ব্যক্তিগত ইমেজ থাকা, ত্যাগী নেতা হওয়া, শিক্ষিত- ভদ্র হওয়া এবং দলীয় জরিপে এগিয়ে থাকা। যাদের এই ৬টি গুণাবলিই থাকবে কেবল তারাই আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পাবে বলে জানা গেছে। আর ফারুক হাসান তুহিনের মাঝে এর সবগুলো গুণাবলির প্রতিফলন দেখা যায়।

সাম্প্রতিক সময়ে তিনি সবচেয়ে বেশি জনসংযোগমূলক কর্মকান্ড চালাচ্ছেন। তার সমর্থকরাও ব্যাপকভাবে জনগণের কাছে তার কথা প্রচার করছে। শুধু তাই নয় মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে এখন পর্যন্ত তার কর্মকান্ডগুলোই কেবল চোখে পড়ার মতো। সিটি কর্পোরেশনগুলোর প্রায় প্রতিটির মেয়র নির্বাচনে তিনি সক্রিয় থেকে দলকে সহযোগিতা করছেন।

ফারুক হাসান তুহিন সম্পর্কে তার অনুসারীরা বলেন, তিনি একজন কর্মীবান্ধব ও ত্যাগী জননেতা। কর্মীদের সাথে সবসময় তিনি যোগাযোগ রাখেন এবং ভালোমন্দ খোজ খবর নেন। বিপদে-আপদে সাভার-আশুলিয়ার জনগণ সবসময় তাকেই আগে পায় এবং তিনিও তার সর্বোচ্চটা দিয়ে জনগণকে সাহায্য সহযোগিতা করার চেষ্টা করেন। একারণে তিনি সাভার আশুলিয়ায় জননন্দিত জননেতা হয়ে উঠেছেন। তার কর্মীবান্ধব ও ত্যাগী মনোভাব সবাইকে আকৃষ্ট করেছে।

ফারুক হাসান তুহিনের সাভার আশুলিয়ায় একটি ব্যক্তিগত ইমেজ রয়েছে। তার এ ইমেজের জন্য জনগণ তাকে ভয় পায় না বরং মনে প্রাণে তাকে ভালোবাসে। সাভার আশুলিয়ার জনগণের কাছে তিনি বর্তমানে একজন আইকন হয়ে উঠেছেন বলেও জানান তার অনুসারীরা।

এছাড়া তার অনুসারীদের সাথে কথা বলে আরো জানা যায়, তিনি অত্যন্ত ভদ্র ও মার্জিত স্বভাবের অধিকারী। সকলের সাথে সুমিষ্ট ব্যবহার করাই তার স্বভাব। আজ পর্যন্ত তিনি তার কোনো কর্মীকে ধমক দিয়ে কথা বলেননি।যদিও কখনো দলীয় স্বার্থে কঠোর হয়েছেন কিন্তু কখনোই নিজের ব্যক্তিগত কারণে কারো সাথে কঠোর আচরণ করেননি বলেও জানান তারা।

তাই এসকল দিক বিবেচনা করলে আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়ন দিতে যেরকম গুণাবলি সম্পন্ন প্রার্থী চাচ্ছে তার সবগুলো গুণাবলিতে ফারুক হাসান তুহিন গুণান্বিত। আর একারণে অনেকেই মনে করছেন এবার ঢাকা-১৯ আসনে ফারুক হাসান তুহিনই মনোনয়ন পেতে যাচ্ছে।

তবে এব্যাপারে ফারুক হাসান তুহিন বলেন, আওয়ামী লীগ মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের দল। এ দল সবসময় দেশের মানুষের অধিকার আদায়, জনগণের কল্যাণ, দেশের মানুষের ভাগ্য উন্নয়ন, দেশের উন্নয়নের জন্য কাজ করে। এ দলের অন্যতম সহযোগী সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির একজন সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে আমি শুধু আমার দায়িত্ব পালন করছি।

তিনি আরও বলেন, সাভারে এক সময় বিএনপি-জামায়তের ত্রাসের রাজত্ব ছিল।তাই সাভারের জনগন পর পর দুই বার আওয়ামী লীগকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করেছে এবং এবারও এই ধারা অব্যাহত থাকবে । সাভার বাসীর উন্নয়নের জন্য জননেত্রী শেখ হাসিনা যাকে মনোনয়ন দিবেন তার সাথেই আমরা কাজ করে যাব। আমরা সাভারবাসী কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে সাভারকে আরও আধুনিক আরও পরিকল্পিত আরও উন্নত করে গড়ে তুলব।যাতে ভবিষ্যত প্রজন্মের কাছে সাভার হয় আরও নিরাপদ ও বাসযোগ্য হয়ে ওঠে।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১৪১৭ বার

Share Button

Calendar

February 2019
S M T W T F S
« Jan    
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
2425262728