» সূচক ইতিবাচক রেখেই লেনদেন শেষ হয়েছে পুঁজিবাজারে

প্রকাশিত: ০৯. ফেব্রুয়ারি. ২০১৮ | শুক্রবার

সূচক ইতিবাচক রেখেই লেনদেন শেষ হয়েছে পুঁজিবাজারে

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণার দিন অস্থিরতার কারণে নেতিবাচক প্রভাবের শঙ্কা ছিল। কিন্তু তা কাটিয়ে সূচক ইতিবাচক রেখেই লেনদেন শেষ হয়েছে পুঁজিবাজারের ।

বৃহস্পতিবার দেশের দুই পুঁজিবাজারেই আগের দিনের চেয়ে শেয়ারের সার্বিক মূল্য সূচক বাড়ার পাশাপাশি লেনদেনে থাকা বেশিরভাগ শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের দর বেড়েছে।

এর আগে পুঁজিবাজারে সাম্প্রতিক দরপতনের জন্য বৃহস্পতিবারের এই রায়ের দিন ঘিরে রাজনৈতিক পরিস্থিতি অস্থিতিশীল হওয়ার শঙ্কা ছিল বলে সংশ্লিষ্ট কোনো কোনো মহলে আলোচনা ছিল।

এটাকে ‘গুজব’ বলে উড়িয়ে দিয়ে বিনিয়োগকারীদের আশ্বস্ত করতে এ মাসের শুরুতে বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশনসহ সংশ্লিষ্ট দুটি সংগঠনের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলনও করা হয়।

এরপর টানা পাঁচ দিন পুঁজিবাজারে দরপতনের ধারা চলতে থাকে; এই পতনে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের প্রধান সূচক নেমে ছয় মাস আগের পর্যায়ে নেমে যায়। রায়ের আগের দিনও দুই বাজারেই সূচকের পতন হয়।

কিন্তু বৃহস্পতিবার দিনের লেনদেনের শুরু থেকেই সূচকের ঊর্ধ্বগতি চলতে থাকে; মাঝে উত্থান-পতন হলেও ইতিবাচকই ছিল সূচক এবং সেভাবেই লেনদেন শেষ হয়েছে।

দিন শেষে প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৩০০ কোটি ৬৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে, যা আগের দিনের চেয়ে ৯৮ কোটি টাকা কম।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, এদিন ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নিয়েছে ৩৩৫টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৮৫টির, কমেছে ৯০টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৬০টির।

বৃহস্পতিবার ডিএসইতে লেনদেনে শীর্ষে ছিল যথাক্রমে- স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস, গ্রামীণফোন, মন্নু সিরামিকস ইন্ডাস্ট্রিজ, ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড, লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, ফার্মা এইডস, বিবিএস ক্যাবলস, বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস, ওসমানিয়া গ্লাস শিট ফ্যাক্টরি, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইলস ও আলিফ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড।

দিন শেষে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২৯ পয়েন্ট বেড়ে ৫ হাজার ৯৬৫ পয়েন্টে অবস্থান করছে। ডিএসইএস বা শরিয়াহ সূচক পাঁচ পয়েন্ট বেড়ে প্রায় এক হাজার ৩৮৯ পয়েন্টে অবস্থান করছে। ডিএস৩০ সূচক নয় পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ২২৫ পয়েন্টে।

এদিন ডিএসইতে দরবৃদ্ধিতে শীর্ষ দশ কোম্পানি হল- প্রাইম ইন্স্যুরেন্স, ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্স, নর্দার্ন জুট ম্যানুফ্যাকচারিং, সোনালি আঁশ ইন্ডাস্ট্রিজ, এশিয়া ইন্স্যুরেন্স, এনসিসিবি মিউচুয়াল ফান্ড, এআইবিএল ফার্স্ট ইসলামিক মিউচুয়াল ফান্ড, ওসমানিয়া গ্লাস শিট ফ্যাক্টরি, অ্যাটলাস বাংলাদেশ ও আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক।

অপরদিকে দরপতনে শীর্ষ দশ কোম্পানি হল- নাহী অ্যালুমিনিয়াম কম্পোজিট প্যানেল, বিবিএস ক্যাবলস, মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক, বাংলাদেশ ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট, এসইএমএল আইবিবিএল শরীয়াহ ফান্ড, অ্যারামিট সিমেন্ট, মিথুন নিটিং অ্যান্ড ডাইং, এমবিএল ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড, গ্রীণ ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স ও এইচআর টেক্সটাইল।

এদিন চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৭ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৮ হাজার ৩৬৫ পয়েন্টে।

লেনদেন হয়েছে ৪৫ কোটি ৫২ লাখ টাকার শেয়ার, যা আগের দিনের চেয়ে ৩১ কোটি টাকা বেশি। লেনদেনে অংশ নেওয়া ২২১টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১০৭টির, কমেছে ৭৮টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৬টির।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১০৩ বার

Share Button