» প্রতিপক্ষ হাতুরুসিংহে

প্রকাশিত: ১৩. ফেব্রুয়ারি. ২০১৮ | মঙ্গলবার

সাবেক কোচ চান্দিকা হাতুরুসিংহের কাছে হেরে গেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। মিরপুরে রীতিমতো মুখ থুবড়ে পড়েছিল তারা ! এমন হারের পিছনে উইকেট, ক্রিকেটারদের অ্যাপ্রোচ সব কিছুকেই দায়ী করা হচ্ছে। তবে দলের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজনের কণ্ঠে অন্য সুর। তার দাবি, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে খেললে ভালো করত বাংলাদেশ। কিন্তু খেলেছে সাবেক কোচ চান্দিকা হাতুরুসিংহের বিপক্ষে!

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে ব্যর্থতার পর সেখান থেকেই বাংলাদেশের কোচের পদ থেকে সরে দাঁড়ান হাতুরুসিংহে। তার এমন নাটকীয় পদত্যাগে সমালোচনার মুখেও পড়তে হয় তাকে। যদিও বাংলাদেশের এসব সমালোচনার তোয়াক্কা করেননি সাবেক লঙ্কান ওপেনার। দায়িত্ব নেন শ্রীলঙ্কা জাতীয় দলের। প্রথম মিশনই বাংলাদেশে। তখন থেকেই আলোচনায় শ্রীলঙ্কা নয়, ‘প্রতিপক্ষ’ হাতুরুসিংহে।

সুজনের মতে, বাংলাদেশ ক্রিকেট দল খেলবে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের সঙ্গে। কিন্তু তারা মনস্তাত্বিকভাবে লড়েছে হাতুরুসিংহের বিপক্ষে। তাতেই গোল বেঁধেছে।

তিনি বলেন, ‘হাথুরুকে নিয়ে মনে হয় আমাদের মাথায় বড় চিন্তা ছিল। এটা নেগেটিভভাবে গেছে। পুরো জাতি হিসেবে হাথুরু চলে গেছে, হাথুরুর সঙ্গে ফাইট…কিন্তু হাথুরুর সঙ্গে তো ফাইট ছিল না। ফাইট ছিল শ্রীলঙ্কার সঙ্গে! ১১টা ছেলে খেলবে ১১টা ছেলের বিপক্ষে। হাথুরু মনে হয় বেশি ছিল মাথায়। ওর আমলে কী করেছে না করেছে, এটা নেগেটিভ মাইন্ডসেট ছিল।’

তবে কোচের এই ব্যাপারের সঙ্গে দলের মূল সমস্যাগুলোকে এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেননি বাংলাদেশ দলের সাবেক এই অধিনায়ক। দলের সামর্থ্য নয়, মানসিক অবস্থান, দৃষ্টিভঙ্গি সবকিছুকে দায় দিয়েছেন।

বলেছেন, ‘ম্যানেজমেন্ট তো ক্রিকেট খেলে না, খেলবে খেলোয়াড়রা। তারা যদি না করতে পারে তবে কঠিন। বুঝতাম এদের সামর্থ্য নেই, তাহলে মনে খারাপের কিছু নেই। এদের তো সামর্থ্য আছে। সামর্থ্য থাকার পরও না পারলে বলতে হবে মাইন্ডসেট। অন্যকিছু নয়। অ্যাপ্রোচ, মাঠে অ্যাটুচিউড, মাঠে চিন্তা—সবকিছুই পিছিয়ে ছিলাম।’

টেস্টের ধকল গেছে। আপাতত লক্ষ্য টি-টোয়েন্টি। চলতি ফেব্রুয়ারির ১৫ ও ১৭ তারিখে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুটি ২০ ওভারের ম্যাচ খেলবে সুজনের দল।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৭৪ বার

Share Button