» রাজনগরে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসী হামলায় শিশুসহ আহত-৮

প্রকাশিত: ১০. এপ্রিল. ২০১৮ | মঙ্গলবার

মশাহিদ আহমদ ঃ রাজনগরে ছোয়াবালী গ্রামে পৃর্ব শক্রতার জের ধরে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসী হামলায় ২ বছরের শিশু সন্তানসহ ৮ জন গুরুতর আহত হওয়ার সংবাদ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ১নং ফতেপুর ইউপি মোঃ আব্দুল কাদির বাদী হয়ে একই এলাকার কাইয়ুম মিয়া (২২), রাইমা বেগম (২০), আনছ আলী (২২), নুর মিয়া (৫০), মালিক মিয়া (৪০), এখলাছ মিয়া (৪৫), করিম আলী (১৮), ইউনুছ মিয়া (২৪)সহ অজ্ঞাতনামা ২/৩জনকে আসামী করে রাজনগর থানায় মামলা (নং-০৭, তারিখ ঃ ০৫/০৪/২০১৮ইং) দায়ের করেছেন। এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় রাজনগর থানার পুলিশ কাইয়ুম মিয়া (২২), রাইমা বেগম (২০) ও মালিক মিয়া (৪০) কে দেশীয় অস্ত্রসহ আটক করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করেছে। ঘটনার বিবরনে জানা গেছে- পৃর্ব শক্রতার জের ধরে গত ৫ এপ্রিল সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বসতবাড়ীর উঠানে নুর মিয়াগংরা তাদের হাতে থাকা দা, লোহার রড, জিআই পাইপ, লাঠি-সোটাসহ দেশীয় অস্ত্রেশস্ত্রে সজ্জিত হইয়া হামলা চালায়। এ সময় তাদের হামলায় গুরুতর আহত হন ফজির আহমদ (৩২), জোসনা বেগম (২৮), জোসনা বেগম @ , স্কুল শিক্ষিকা স্বপ্না বেগম (২২), সুনারা বেগম (৩০), লীলজান বেগম (৫৫), আব্দুল কাদির, আফাজ মিয়া (৩০), শেভী বেগম (২৮), ও ২ বছরের অবুঝ শিশু সন্তান আহসান হাবিব। হামলাকারিরা তাদের বাড়ী ঘরে হামলা চালিয়ে ঘরের সুকেচের গ্লাস, দরজা জানালাসহ বিভিন্ন আসবাবপত্র ভাংচুর করে লুটপাট চালায়। এ সময় আশাপাশের লোকজন তাদেরকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে রাজনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্য্রে চিকিৎসা গ্রহন করেন এবং গুরুতর আহত ফজির আহমদ ও মালিক মিয়াকে উন্নত চিকিৎসার জন্য মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। স্থানীয় মজনু মিয়া, মনর মিয়া, মোঃ আমির আলী, কাওছার আহমদ, সুমন আহমদ, খসরুজ্জামান (শফিক), সুজেল মিয়া, ছানা মিয়া ও মোশাহিদ মিয়া জানান- নুর মিয়াগংরা এলাকার চিহ্নিত খারাপ ও দাঙ্গাবাজ লোক। তার বিরুদ্ধে হত্যামামলা, জোরপৃর্বক মসজিদের জায়গা দখল, গরু চুরিসহ একাধিক মামলা রয়েছে। নুর মিয়া ভবিষ্যৎতে আর এ ধরনের অপকর্মে লিপ্ত হবেনা মর্মে স্থানীয় লোকজনদের কাছে স্বরনলিপি প্রদান করেছিল। এতকিছুর পরও তাদের অপকর্ম থামছেনা।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১৩৮ বার

Share Button