ঢাকা ১৪ই জুন ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩১শে জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৮ই জিলহজ ১৪৪৫ হিজরি

অত্যাধুনিক কনভেনশন সেন্টার ও টাওয়ারভবন নির্মাণ করবে আইইবি

redtimes.com,bd
প্রকাশিত জানুয়ারি ৩১, ২০১৮, ০৪:৩৯ অপরাহ্ণ
অত্যাধুনিক কনভেনশন সেন্টার ও টাওয়ারভবন নির্মাণ করবে আইইবি

ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটের সামনের মিলনায়তনসহ সকল পুরাতন স্থাপনা ভেঙ্গে ফেলা হবে। এর পরিবর্তে পুরো এলাকা জুড়ে অত্যাধুনিক কনভেনশন সেন্টার, সেমিনার কক্ষসহ ষোলতলা টাওয়ারভবন নির্মাণ করা হবে। এর স্থ্াপত্য শৈ^লী হবে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও রমনা পার্কের সবুজের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ।

গতকাল (মঙ্গলবার) প্রস্তাবিত এ ভবনের নকশা প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে এ তথ্য জানানো হয়। গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন প্রধান অতিথি হিসেবে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার বাবদ অর্থ ও সনদ তুলে দেন।

প্রতিযোগিতায় মোট ৫৪টি নকশা জমা পড়ে। একটি জুড়িবোর্ড এসব নকশা যাচাই-বাছাই, পর্যবেক্ষণ ও বিশ্লেষণ করে আটটি নকশাকে চূড়ান্তভাবে নির্বাচন করে। ‘এ প্লাস এম আর্কিটেক্ট’ প্রতিষ্ঠান প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অর্জন করে। তাদেরকে সাত লাখ টাকা ও একটি সনদ প্রদান করা হয়।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় গণপূর্ত মন্ত্রী বলেন,বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র ব্যতীত ঢাকা শহরে বড় কোন কনভেনশন সেন্টার নেই। সে দৃষ্টিকোণ থেকে এ কনভেনশন সেন্টারের প্রয়োজন রয়েছে। রমনা-সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ঘিড়ে একটি সাংস্কৃতিক বলয় গড়ে তোলার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর একটি নির্দেশনা রয়েছে। সোহারাওয়ার্দী উদ্যানের ঐতিহাসিক গুরুত্বকে সমুন্নত রাখতে এর সংস্কার ও সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতে ২৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে একটি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। রমনা পার্কেরও সৌন্দর্য বৃদ্ধি করা হচ্ছে। সোহারাওয়ার্দী উদ্যানে ৭ মার্চের ভাষণের স্থান এবং পাকিস্তানীদের আত্মসমর্পনের স্থানসমূহ পরিকল্পিতভাবে নষ্ট করা হয়েছে।

আইইবি’র প্রেসিডেন্ট কবির আহমেদ ভূইয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন জুড়িবোর্ডের প্রধান অধ্যাপক ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী, জুড়িবোর্ডের সদস্য আইইবি’র সাবেক প্রেসিডেন্ট শামীম উজ্জামান বসুনিয়া, জুড়িবোর্ড সদস্য স্থপতি প্রকৌশলী জহির উদ্দিন, বাংলাদেশ স্থপতি ইনস্টিটিউটের সহসভাপতি জালাল আহমেদ, জুড়িবোর্ড সদস্য স্থপতি মোবাশে^র হোসেন, আইইবি’র সম্মানীয় সেক্রেটারি আব্দুস সবুর ও বাংলাদেশ স্থপতি ইনস্টিটিউটের সাধারণ সম্পাদক কাজী আরিফ।

প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয় স্থান অর্জনকারী ‘ডিজাইন স্টুডিও আর্কিটেক্ট’ পাঁচ লাখ টাকা ও একটি সনদ এবং তৃতীয় স্থান লাভকারী ‘গ্রুপলিভার স্টুডিও’ তিন লাখ টাকা ও একটি সনদ পায়। অপর পাঁচটি প্রতিষ্ঠানের প্রত্যেককে এক লাখ টাকা ও একটি করে সনদ দেওয়া হয়। সংস্থাগুলো হলো- ‘ফর্ম থ্রি আর্কিটেক্টস’, ‘ভার্নিকাটার আর্কিটেক্টস’, ‘জিওমেট্রিক আর্কিটেক্টস’, ‘আইও টেক আর্কিটেক্টস’, ‘থ্রি সিক্সটি ডিগ্রি আর্কিটেক্ট এন্ড ডিজাইন’।

June 2024
S M T W T F S
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
30