অসিত ভট্টাচার্যের স্মরণে হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের শোক সভা

প্রকাশিত: ৫:১১ অপরাহ্ণ, মার্চ ৫, ২০১৬

অসিত ভট্টাচার্যের স্মরণে হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের শোক সভা

এসবিএন: বাংলাদেশ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সিলেট জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক অসিত ভট্টাচার্য স্মরণে শোক সভায় বক্তারা বলেন, ধর্ম-বর্ণ-লিঙ্গ নির্বিশেষে সকলের সমমর্যাদা ও সম-অধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা ও অসাম্প্রদায়িক সমাজ বিনির্মাণ আন্দোলনে সিলেটের এক অকোতুভয় সৈনিক ছিলেন প্রয়াত অসিত ভট্টাচার্য।

বহুমাত্রিক গুনের অধিকারী অসিত ভট্টাচার্য পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ সৃষ্টি ও সমাজের ভ্রাতৃত্ব সূলভ সম্পর্ক তৈরীর উপর গুরুত্বারোপ করে গেছেন।

তাই তিনি মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখতেন। বক্তারা বলেন, আমৃত্যু মুক্ত চিন্তার বিশ্বাসী অসিত ভট্টাচার্য ছিলেন মানবতার পূজারী। তিনি মনে প্রাণে বিশ্বাস করতেন, মানবতার জয়গানের মধ্য দিয়েই বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠা সম্ভব হবে।

বক্তারা আরো বলেন, জঙ্গিবাদ ও সাম্প্রদায়িকতা বিরুধী লড়াইয়ে, টিপাইমুখ বাঁধ নির্মাণ প্রতিরোধের বিরুদ্ধে, অর্পিত সম্পত্তি প্রতিরোধ আন্দোলনসহ সুস্থ সমাজ বিনির্মানের প্রতিটি আন্দোলনে অসিত ভট্টাচার্যের অবদানের কারনে তিনি সমাজ জীবনে সকলের কাছে চিরকাল বেঁচে থাকবেন।

শুক্রবার বিকাল ৪টায় সিলেট জেলা পরিষদ মিলনায়তনে বাংলাদেশ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ সিলেট জেলা ও মহানগন শাখা আয়োজিত শোক সভায় সভাপতিত্ব করেন পরিষদের জেলা কমিটির সভাপতি বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ বিরাজ মাধব চক্রবর্তী মানস।

এডভোকেট বিজয় কৃষ্ণ বিশ্বাস ও প্রদীপ কুমার দেব’র যৌথ পরিচালনায় শোক সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সিনিয়র সদস্য সুপ্রিম কোর্টের প্রথিতযশা আইনজীবী সুব্রত চৌধুরী।

বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি জয়ন্ত সেন দীপু, কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক জয়ন্ত দেব, ছাত্র যুব ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও ঐক্য পরিষদের যুগ্ম-সম্পাদক নির্মল চ্যাটার্জি, মহিলা ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় নেত্রী দ্বিপালী চক্রবর্তী।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন ঐক্য পরিষদ জেলা কমিটির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট প্রদীপ কুমার ভট্টাচার্য, প্রয়াতের জীবনী পাঠ করেন পূজা উদযাপন পরিষদের জেলা সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক রজত কান্তি ভট্টাচার্য।

শোক সভায় উপস্থিত বিশিষ্টজনদের মধ্য থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করে বক্তব্য রাখেন, মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক সাংসদ শফিকুর রহমান চৌধুরী, মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইন, গণতন্ত্রী পার্টির কেন্দ্রীয় সভাপতি ব্যারিষ্টার মো. আরশ আলী, সাম্যবাদী দলের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি কমরেড ধীরেন সিংহ, ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা সিকান্দর আলী, বাসদের জেলা নেতা এডভোকেট হুমায়ূন রশিদ সুয়েব, শিক্ষাবিদ অধ্যাপক বিজিত কুমার দে, সমাজসেবক বিমলেন্দু দে নান্টু, বিশিষ্ট আইনজীবি পংকজ কুমার রায়, শিক্ষাবিদ অধ্যাপক প্রশান্ত কুমার সাহা, অধ্যাপক ড. হিমাদ্রি শেখর রায়, পূজা পরিষদের কেন্দ্রীয় যুগ্ম-সম্পাদক এডভোকেট মৃত্যুঞ্জয় ধর ভোলা, ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় সহযোগী সম্পাদক মলয় পুরকায়স্থ, মৌলভীবাজার জেলা সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট রাধাপদ দেব সজল, সুনামগঞ্জ জেলা সম্পাদক এডভোকেট বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী, মৌলভীবাজার জেলা নেতা নিহির কান্তি দেব মিন্টু, ইসকন সিলেটের অধ্যক্ষ নবদ্বিপ দ্বীজ দাস গৌরাঙ্গ, জগৎ বন্ধু মঠের অধ্যক্ষ শ্রী প্রীতম বন্ধু ব্রহ্মচারী, পূজা উদযাপন পরিষদের মহানগর সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গোপ্ত, সিলেট বিবেকের সভাপতি জ্যোতির্ময় সিংহ মজুমদার চন্দন, প্রকৌশলী মনোজ বিকাশ দেব রায়, বৌদ্ধ সমিতির নেতা রমেন্দ্র বড়ুয়া, খ্রিষ্ঠান নেতা দানেস সাংমা, মুক্তিযোদ্ধা সুবল চন্দ্র পাল, সুষেন চন্দ্র নম:, নির্মল সিংহ, ছাত্র যুব ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় নেতা অরুন দেবনাথ সাগর, এডভোকেট বিভাবসূ গোষ্মামী, জেলা সম্পাদক ধনঞ্জয় দাস ধনু, মহানগর সম্পাদক রথীন্দ্র দাস ভক্ত।

উপজেলা নেতৃবৃন্দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, দুর্গাকুমার দাস, দেবব্রত ভট্টাচার্য, বিভাকর দেশমূখ্য, জয়ন্ত আচার্য, অমলেন্দু দেব, কাঞ্চন চন্দ্র দে ও প্রয়াতের সন্তান অনিরুদ্ধ ভট্টাচার্য অভি।

শোকসভার শুরুতেই গীতা পাঠ করেন অমৃত রায় ভট্টাচার্য, ত্রিপিটক পাঠ করেন শ্রীমৎ আয়ূপাল ভিক্ষু, বাইবেল পাঠ করেন মি. ডিকম নিঝুম সাংমা, শোক সংগীত পরিবেশন করেন শিল্পী প্রতীক এন্দ টনি।

শোক সভায় প্রয়াতের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করে দাড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

শোক সভায় বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ সুশীল সমাজের প্রতিনিধি বৃন্দ, বিভিন্ন মট ও মন্দিরের প্রতিনিধি বৃন্দ সহ ঐক্য পরিষদ ও পূজা পরিষদের ইউনিয়ন, ওয়ার্ড, উপজেলা, মহানগর ও জেলার বিপুল সংখ্যক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।