আজ থেকে শুরু হচ্ছে সনাতন ধর্মালম্বীদের বৃহৎ ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা

প্রকাশিত: ৩:১৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২০, ২০২৩

আজ থেকে শুরু হচ্ছে সনাতন ধর্মালম্বীদের বৃহৎ ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা
কপিল দেব:
মৌলভীবাজারের  প্রতিটি পূজা মন্ডপে চলছে সাজ সাজ রব। প্রতিমাকে তুলির আঁচড়ে আকর্ষনীয় করে ফুটিয়ে তুলেছে কারিগররা। আলোকসজ্জাসহ বাহারী সব আয়োজন দুর্গাপুজাকে ঘিরে চারিদিকে বিদ্যমান।
আজ শুক্রবার (২০ অক্টোবর) থেকে ষষ্ঠী পূজার মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হচ্ছে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা। মৌলভীবাজার জেলা জুড়ে প্রতিটি পাড়া মহল্লাসহ প্রতিটা গ্রামে উৎসব ছড়িয়ে পড়েছে। শেষ হয়েছে পূজার কেনাকাটা। মৌলভীবাজার  জেলাজুড়ে এবারে ১০৩৬টি পূজা মন্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।
দুর্গাপূজা উপলক্ষ্যে প্রশাসনের কড়া নজরদারী রয়েছে সর্বত্র। গড়ে তোলা হয়েছে কয়েক স্তরের নিরাপত্তা বলয়। আসন্ন দুর্গাপূজা উপলক্ষে মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার সার্বিক প্রস্তুতির অংশ হিসেবে মৌলভীবাজার পূজা উদযাপন কমিটি ও হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাথে প্রস্তুতিসভা সম্পন্ন করেছেন।
মৌলভীবাজার জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের তথ্যমতে, এবছর মৌলভীবাজার সদর উপজেলায় ১১৭টি , রাজনগর ১৩৮টি,  শ্রীমঙগল ১৭৩টি, কুলাউড়া ২২২টি , জুড়ী ৭১টি, কমলগঞ্জ ১৬২টি ও  বড়লেখা উপজেলায় ১৫৩টি মন্ডপে শারদীয় দুর্গাপূজা উদযাপিত হবে।
মৌলভীবাজার পৌর এলাকার কয়েকটি পূজা মন্ডপে গিয়ে দেখা যায় শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি সম্পন্ন করতে ব্যস্ত সময় পার করছেন পূজা উদযাপন কমিটি।
মৌলভীবাজার জেলা পূজা উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক মহিম দে জানান, প্রতিমা তৈরীর কাজ শেষ হয়েছে। এবছর জেলায় ১০৩৬টি মন্দিরে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে। আমি আশা রাখি পরিপূর্ণ উৎসবমুখর পরিবেশে আমরা শারদ অনুষ্ঠান উদযাপন করতে পারবো। আমরা সকলের সহযোগিতা কামনা করি।
জেলা প্রশাসক ড. উর্মি বিনতে সালাম আজ ২০ অক্টোবর  জানান,সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব উপলক্ষে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক   ইতোমধ্যে জেলা প্রশাসনের পক্ষ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিগন, পূজা উদযাপন পরিষদ, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ সকলের সাথে সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা উপজেলায় সম্প্রীতি সভা হয়েছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রতিটি উপজেলায় কন্টোল রুম খোলা হয়েছে। ইতোমধ্যে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। পূজামণ্ডপগুলোতে সকল আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নজরদারি থাকবে।পাশাপাশি সকলের সহযোগিতা কামনা করি। সকলের মাঝে ধর্মীয় সম্প্রীতি বজায় থাকবে বলে আশা ব্যক্ত করেন তিনি।
দুর্গাপূজার প্রস্তুতির বিষয়ে জেলা পুলিশ সুপার মোঃ মনজুর রহমান পিপিএম (বার) জানিয়েছেন,হাজারোর্ধ্ব এই মন্ডপগুলোকে গুরুত্বপূর্ণ, অতি গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে সাজিয়ে নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। মন্ডপগুলোতে পুলিশ, আনসার, মোবাইল টিম, স্ট্রাইকিং ফোর্সের ও সার্বক্ষনিক নজরদারী থাকবে।
পুলিশ সুপার আরও জানান, ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা মন্ডপকেন্দ্রিক হবে। প্রতিটি উপজেলায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপারগন সার্বক্ষনিক দেখভালের দায়িত্বে থাকবেন।
এছাড়া ৯৯৯, সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা, ডিউটি অফিসার কাজ করবেন মাঠে। যেকোন প্রয়োজনে উনাদের সাথে যোগাযোগ রাখার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে । জেলায় দুর্গাপূজা উদযাপনে সার্বিক শৃংখলা বজায় রাখতে প্রতিটি পূজা মন্ডপে সিসিটিভি ক্যামেরা, মন্দিরভিত্তিক স্বেচ্ছাসেবক দল গঠন ও পুলিশী টহলসহ নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় এই উৎসবে কোন বিশেষ গোষ্ঠী বা মহল কর্তৃক ধর্মীয় ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিতে আঘাত করতে চাইলে তা কঠোরভাবে দমন করা হবে।আমারা সবার সাথে মিলেমিশে কাজ করবো। আমাদের পক্ষ থেকে জেলায় পর্যাপ্ত পরিমাণে পুলিশ মোতায়েন থাকবে। তবে এ জন্য তিনি সব স্তরের মানুষের সহযোগিতা কামনা করেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

লাইভ রেডিও

Calendar

February 2024
S M T W T F S
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
2526272829