আনোয়ার হোসেন চৌধুরী অতিরিক্ত সচিব হিসেবে পদোন্নতি পেয়েছেন

প্রকাশিত: ১১:৫০ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৩, ২০১৯

আনোয়ার হোসেন চৌধুরী অতিরিক্ত সচিব হিসেবে  পদোন্নতি পেয়েছেন

,সড়ক ও সেতু মন্ত্রনালয়ের যুগ্ম সচিব আনোয়ার হোসেন চৌধুরী অতিরিক্ত সচিব হিসেবে পদোন্নতি পেয়েছেন। বুধবার (২৩ অক্টোবর) সন্ধ্যায় জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা এক প্রজ্ঞাপনে এই পদোন্নতি নিশ্চিত করা হয়। রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মো. তমিজুল ইসলাম খান এ প্রজ্ঞাপনে সই করেছেন। মন্ত্রণালয়ের এ আদেশে ১৫৬ জন যুগ্মসচিবকে অতিরিক্ত সচিব পদে পদোন্নতির কথা জানানো হয়েছে।

খবরটি প্রচারিত হবার সঙ্গে সঙ্গে তাঁর পরিচিত মহলে খুশীর বন্যা বয়ে যায় । সরকারী দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি তিনি বিভিন্ন সাহিত্য, সংস্কৃতি ও সামাজিক কর্মকান্ডের সাথে সম্পৃক্ত আছেন।সৈয়দ মুজতবা আলী পরিষদের সভাপতি আনোয়ার চৌধুরী জালালাবাদ এ্সোসিয়েশন,হুমায়ুন রশীদ চৌধুরী স্মৃতি পরিষদ , সিলেট রত্ন ফাউন্ডেশন, সিলেট বিভাগ উন্নয়ন পরিষদ, সিলেট বিভাগ চাকুরীজীবি পরিষদ, হবিগঞ্জ নাগরিক কমিটি, হবিগঞ্জ এসোসিয়েশন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় লোক প্রশাসন বিভাগ প্রাক্তন ছাত্র ফোরাম,ঢাকা ও ঢাকা অফিসার্স ক্লাব প্রভৃতি সংগঠনের আজীবন সদস্য । এ সব সংগঠনের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদ ও তিনি অলংকৃত করেছেন ।
আনোয়ার হোসেন চৌধুরী ১৯৬৪ সনে হবিগঞ্জ জেলার মাধবপুর উপজেলার আন্দিউড়া গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্ম গ্রহন করেন। তার পিতা মরহুম আবদুল মালেক চৌধুরী ও মাতা মরহুমা উম্মেতুন্নেছা চৌধুরী। আনোয়ার চৌধুরী পড়াশুনা করেন আন্দিউড়া উম্মেতুন্নেছা হাই স্কুল,মুরারী চাঁদ কলেজ(এম.সি. কলেজ) ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে। তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের লোক প্রশাসন বিভাগ থেকে বিএসএস(অনার্স) ও এমএসএস ডিগ্রী লাভ করেন। এছাড়া তিনি নর্দাণ ইউনিভার্সিটি থেকে এমপিপিএম ডিগ্রী অর্জন করেন।
১৯৯৩ সনে তিনি বিসিএস(প্রশাসন) ক্যাডারে যোগ দিয়ে কর্মজীবন শুরু করেন। চাকুরী জীবনের বেশীরভাগ সময় মাঠ প্রশাসনে কাজ করেছেন। তার কর্মস্থল ছিল চাঁপাই নবাবগঞ্জ, সিরাজগঞ্জ, চাঁদপুর, চট্টগ্রাম, ঢাকা, ফেনী , ব্রাহ্মণবাড়ীয়া, কক্সবাজার ও নেত্রকোনা জেলায়। পেশাগত ও উচ্চতর প্রশিক্ষণ লাভের জন্য তিনি থাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, চীন, মায়ানমার ভারত, জাপান, ফ্রান্স,স্পেন,বেলজিয়াম,নেদারল্যান্ড ও তুরস্ক সফর করেন।
‘মেঘের দেশে পাহাড়ের দেশে’ তার প্রথম প্রকাশিত গ্রন্থ ।তার আরেকটি ভ্রমণ কাহিনীর বই এশিয়ার দেশে দেশে । ভ্রমণ সাহিত্যে অবদান রাখার জন্য তিনি পেয়েছেন সৈয়দ মুজতবা আলী পদক ২০১৮ । ‘হবিগঞ্জ প্রতিভা’, ‘মাধবপুরের গুণীজন:জীবন ও কর্ম’, ‘হবিগঞ্জ মনিষা’,‘হবিগঞ্জের আলোকিত মানুষ’ ইত্যাদি প্রকাশের অপেক্ষায় আছে।
আনোয়ার চৌধুরীর স্ত্রী ইশরাত জাহান শিক্ষকতায় নিয়োজিত এবং দুই সন্তান আবদুল্লাহ শাবাব আনোয়ার চৌধুরী ও আবদুল্লাহ সাবিত আনোয়ার চৌধুরী ম্যাপল লীফ ইন্টারন্যাশনাল স্কুলে অধ্যয়নরত।

ছড়িয়ে দিন