আবার বিতর্কে জড়িয়েছেন শাকিব-অপু দম্পতি

প্রকাশিত: ৬:০৬ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৬, ২০১৭

আবার বিতর্কে জড়িয়েছেন শাকিব-অপু দম্পতি

জান্নাতুল ফেরদৌস

আবার বিতর্কে জড়িয়েছেন শাকিব-অপু দম্পতি ।সম্প্রতি অপু বিশ্বাসকে তালাকনামা পাঠিয়েছেন শাকিব খান । জবাবে অপু বিশ্বাস এখনো কিছু বলেন নি । তবে শীঘ্রই এ ব্যাপারে মুখ খুলবেন তিনি বলে একটি সুত্র জানিয়েছে । আটটা মাস তো দেখলাম, আর কী দেখব? চেষ্টা করলাম অপুকে বোঝাতে। সে যে অন্যায়গুলো করেছে, এর জন্য তার তো অনুশোচনা হওয়া উচিত! কিন্তু হায়, তার কোনো অনুশোচনা নেই। শাকিব খানের একটি ভয়েস রেকর্ডে এসব কথা বলতে শোনা যায়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি সূত্র ভয়েস রেকর্ডটি সরবরাহ করেছে।

এখন প্রশ্ন, আট মাস দেখার কথা কেন? শাকিব-অপু বিয়ে করেছেন ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল। সে হিসাবে প্রায় নয় বছরের ‘সংসার’ তাদের। অবশ্য সেকথা গোপনই রেখেছিলেন তারা। চলতি বছর ১০ এপ্রিল অপু বিশ্বাস বিয়ে ও সন্তানের খবর প্রকাশ করেন। এর পর থেকে হিসাব করলে এখন আট মাসের কাছাকাছি। শাকিব এই আট মাসের কথাই বলেছেন। যদিও এই মাসগুলোতে আটদিনও তারা ‘সংসার’ করেননি।

আর অন্যায়? অপু বিশ্বাসের যে ‘অন্যায়’গুলোর কথা শাকিব খান বিভিন্ন সময়ে গণমাধ্যমে বলেছেন তা হলো- তাদের বিয়ে এবং বাচ্চার খবর গণমাধ্যমে প্রকাশ হওয়ার পর তিনি চেয়েছিলেন অপু যেনো আর অভিনয় না করেন। পুরোপুরি সংসারি হয়ে যান। আর শাকিব যা বলেন তাই যেন মেনে চলেন।

এ ছাড়াও তাদের ব্যক্তিজীবনের কিছু ঘটনা রয়েছে। সেসব কথাও বিভিন্ন সময়ে বলেছেন শাকিব। তার মধ্যে আরেকটি হচ্ছে, একমাত্র সন্তান আব্রাম খান জয়কে তালাবদ্ধ রেখে ‘বয়ফ্রেন্ড’ নিয়ে অপু কলকাতায় গেছেন!

আজ হাতে আসা ভয়েস রেকর্ডেও শাকিবকে বলতে শোনা যায়, ‘কোনো ডাক্তারি সার্টিফিকেটও নাই, কোনো ব্যাথাও পায় নাই এখন বলে, এই ঘটনা। কিছুদিন আগে পা পিছলে পড়ার ঘটনা সে যেভাবে পাবলিসিটি করে বেরিয়েছে, সেটা কী হয় কখনও! এটা তো আমি আসলে বুঝতে পারছি না!’

শাকিব খান বলেন, ‘এখান থেকে আমার বের হওয়া উচিত। আমার এতই দোষ, এতই ভুল। দোষ দিয়েই ভরা শাকিব খান। তাইলে আর কী বলব!’

বর্তমানে শাকিব-অপুর সম্পর্ক নিয়ে যেভাবে সংবাদ প্রকাশিত হচ্ছে তাও আর চান না শাকিব খান। তিনি বলেন, ‘আব্রাম বড় হয়ে সমাজের মানুষের কাছ থেকে তার বাবা ও মায়ের সম্পর্কে নেতিবাচক কোনো কথা শুনবে তেমন কিছুও করতে চাই না।’

গত ৪ ডিসেম্বর সোমবার দুপুরের দিকে চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসকে তালাকের নোটিশ পাঠিয়েছেন শাকিব খান। তালাক নোটিশ প্রসঙ্গে শাকিবের আইনজীবী সিরাজুল ইসলাম ৪ ডিসেম্বর প্রিয়.কমকে বলেন, ‘তালাক নোটিশে দুটি কারণ দেখিয়েছেন শাকিব। প্রথম অভিযোগ হিসেবে তিনি উল্লেখ করেছেন, অপু তাদের সন্তানকে বাসার কাজের লোকের কাছে রেখে, কথিত বয়ফ্রেন্ডকে নিয়ে ভারতে বেড়াতে গিয়েছিলেন। দ্বিতীয় অভিযোগ প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, যেহেতু অপু তার নির্দেশ মেনে চলেন না, ফলে তিনি এই বিবাহ বিচ্ছেদ চান।’

প্রসঙ্গত, বিয়ের দীর্ঘ নয় বছর পর এ বছরের ১০ এপ্রিল বিকালে একটি টেলিভিশন চ্যানেলে ছয় মাস বয়সের ছেলে আব্রামকে সঙ্গে নিয়ে উপস্থিত হন অপু। সে সময় জানান, কলকাতার একটি ক্লিনিকে ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর জন্ম হয় শাকিব-অপুর ছেলে আব্রাহাম খান জয়ের। সে সময় অপু বিশ্বাসের সিজারও করা হয়।

সেদিন অপু বলেন, ‘আমি শাকিবের স্ত্রী, আমাদের ছেলে আছে।’তখন বিষয়টি নাটকীয়তার জন্ম দেয়। এ খবর প্রকাশের পর থেকেই শাকিবের সঙ্গে অপুর মান-অভিমান চলছেই। একটা সময় গিয়ে এ নিয়ে শাকিবের সঙ্গে অপুর দূরত্ব তৈরি হয়।

এর আগে গত ১৭ নভেম্বর শাকিব অভিযোগ করেন, ছেলে আব্রামকে ঘরের ভেতরে রেখে বাইরে থেকে তালা দিয়ে কলকাতায় গেছেন অপু বিশ্বাস। তবে অপু বলেছেন, চিকিৎসার জন্য তিনি কলকাতায় গেছেন। আর তিনি বাসায় না থাকায় ভেতর থেকে তালা দিয়ে রাখা হয়েছে।

গত ১ ডিসেম্বর ভারতের হায়দরাবাদ গেছেন শাকিব খান। সেখানকার রামুজি ফিল্ম সিটিতে ‘নোলক’ নামের একটি ছবির শুটিংয়ে এখন ব্যস্ত রয়েছেন তিনি। ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে এই ছবির শুটিং।

গত ৩০ নভেম্বর শাকিবের পক্ষ থেকে আইনজীবী তালাকের নোটিশটি পাঠান। কিন্তু অপু বিশ্বাস নোটিশটি গ্রহণ করেননি। অপুর নিকেতনের বাসা ছাড়াও তালাকের এই নোটিশটি ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়রের কার্যালয় এবং অপুর বগুড়ার বাসার ঠিকানাতেও পাঠানো হয়েছে। কিন্তু এ তালাক কার্যকর হবে নোটিশ পাঠানোর তারিখ থেকে তিন মাস পর। আর বিয়ের দেনমোহর বাবদ সাত লাখ টাকা অপুকে পরিশোধ করবেন শাকিব খান। এছাড়া তিনি একমাত্র পুত্র সন্তান আব্রাম খান জয়ের ভরণ-পোষণ করবেন।

আইনজীবী সিরাজুল ইসলাম জানান, নিয়ম মেনে ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের সালিশি পরিষদ দুজনকে ডেকে নিয়ে বসবেন, যেন সংসারটি ভেঙে না যায়। যদি শাকিব খান তারপরও মনে করেন এটাই তার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত, তবে ৯০ দিন পর তালাকনামা স্বয়ংক্রিয়ভাবে কার্যকর হবে।

অপু বিশ্বাস ২০০৪ সালে আমজাদ হোসেনের ‘কাল সকালে’ ছবির মাধ্যমে চলচ্চিত্রে পা রাখেন। এরপর ২০০৬ সালে পরিচালক এফ আই মানিক পরিচালিত ‘কোটি টাকার কাবিন’ ছবিতে নায়িকা হিসেবে শাকিব খানের বিপরীতে অভিনয় করেন তিনি। ২০০৬ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত টানা এই জুটি একাধারে ৭০টির মতো ছবিতে জুটি বাঁধেন। একসঙ্গে কাজ করতে গিয়ে একসময় পরস্পর প্রেমের বাঁধনে জড়িয়ে যান। এরপর ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল বিয়ের পিঁড়িতে বসেছিলেন শাকিব-অপু।