আবার বিশ্ব ভয়ানক হয়ে উঠছে

প্রকাশিত: ১২:৪১ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ১, ২০২১

আবার বিশ্ব ভয়ানক হয়ে উঠছে

আবার বিশ্ব ভয়ানক হয়ে উঠছে।
এত ভ্যাকসিন  দেয়া বৃটেন, আমেরিকা, জার্মানীতে করোনা তো কমছে না।
আমেরিকা কমে গেছিল, গতকাল ৮৪,৫৩৪ জন সনাক্ত, মৃত্যু কম কোথায়? ৪৮৩ জন।
বৃটেনেও গতকাল সনাক্ত ২৭,৫৭২, মৃত্যু ৯১। তারা সব বিধি নিষেধ উঠায় কিভাবে?
রাশিয়া শুরু থেকে কেন যেন কমেনি। গতকালও ২২,৪২০ জন সনাক্ত। মৃত্যু ভয়াবহ, ৭৯৮ জন। ১৪ কোটি লোকের দেশ। সোভিয়েত আমল হলে এমন হতো কি?
ভারত একই আছে, গতকালও ৪৩,২১১ জন সনাক্ত, মৃত্যু ৬৪১ জন।
ব্রাজিল শুরু থেকে প্রমাণ করছে তারা আইন মানে না। মেলামেশা করে বেশি। তবে সমাজতান্ত্রিক প্রেসিডেন্ট দিলমা রোসেফকে না সরালে এতটা বাড়তো না মনে হয়। দেশটা করোনায় শেষ। গতকালও ৪৮,৪৪৩ জন সনাক্ত, মৃত্যুও অনেক, ১,৩৬৬ জন।
ইউরোপে ভেক্সিন নেয়ার হার বেশি বটে। কয়েকটা দেশে সংক্রমণ কমছিলও। মৃত্যু তারা কমিয়েছে তবে সংক্রমণ আবার বেড়েছে। গতকাল ফ্রান্সে সনাক্ত ২৭,৯৩৪ জন, মৃত্যু ৪০ জন, স্পেনে সনাক্ত ২৭,১৪৯ জন, মৃত্যু ৭৩ জন, ইটালীতে কমেছে সনাক্ত ৫,৬৯২ জন, মৃত্যু ১৫ জন। এরকম কম বৃটেনে আমেরিকা, জার্মানীতেও ছিল কয়দিন, আবার তো বাড়ছে। মানে টিকা নিয়েই বেশি মুক্তভাবে চলাফেরার অবস্থা হয়নি, কিন্তু নাগরিকরা ডাবল ডোজ নিয়ই সী-বীচে ছুটেছে অবাধে মিশতে।
ব্রাজিলের মত ইরান শুরু থেকে কমছে না। দুই দেশে কারণ হয়তো দুইটা। ইরানের লোকরা বেশি নসিব আশ্রয়ী। গতকালও সনাক্ত ৩৩,৮১৭জন, মৃত্যুও কম না, আট কোটি জনসংখ্যায় গতকাল ৩০৩ জন। বাংলাদেশে তো এখনো অতটা না। তবে ইরানের মত নসিব নির্ভরতা অনেক যা ওয়াজ ব্যবসায়িদের অবদান।
তুরস্ক অনেক বেড়েছিল। এরা কিছুটা আধুনিক মুসলিম। কমিয়েছিল, তবে আবার বাড়ছে। গতকাল সনাক্ত ২২,২৯১ জন, মৃত্যু ৭৬। প্রেসিডেন্ট এরদোগান কট্টর মুসলিম হলেও উত্তম ব্যবস্থাপক।
মালেশিয়াও আধুনিক মুসলিম রাষ্ট্র। লোকে আইন মানে। সেখানেও গতকাল সনাক্ত ১৭,৪০৫ জন, মৃত্যু ১৪৩ জন। ৩.২৭কোটি লোকে কম না। কেন এ অবস্থা?
ইন্দোনেশিয়ার অবস্থাও খুব খারাপ। গতকাল সনাক্ত ৪৭,৭৯১ জন, মৃত্যু ১,৮২৪ জন। প্রায় ২৮ কোটি লোকে বিরাট সংক্রমণ। শুরুতে একেবারে কম ছিল সংক্রমণ।
ইরাকেও বেড়ে গেছে। গতকাল সনাক্ত ১৩,৫১৫জন, মৃত্যু ৬৬ জন।
কঠোর শাসনের আরব দেশগুলো ভাল নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে। সৌদি আরব, কাতার, কুয়েত, আমিরাত এসব দেশ।
থাইল্যান্ডে ভালই নিয়ন্ত্রণ ছিল। এখন ভয়াবহ। গতকাল সনাক্ত ১৬,৫৩৩ জন, মৃত্যু ১৩৩ জন। ৬ কোটি লোকে সংখ্যাটা অনেক।
সাউথ আফ্রিকা বা মেক্সিকো মাঝে একটু কম হলেও আবার ভয়াবহ। সনাক্ত দুই দেশে ১৭ হাজারের উপরে। গতকাল মৃত্যু সাউথ আফ্রিকায় ৫২০ জন, জনসংখ্যা তো ৬ কোটি। মেক্সিকোতে মৃত্যু ৪৮৪ জন, জনসংখ্যা তো ১৩ কোটি।
ভেক্সিন বেশি দিয়ে ইসরাঈল বরং কিভাবে কমিয়ে রাখলো, আর বাড়তে দিচ্ছে না তা আশ্চর্য বটে। সুখী হতে হলে জ্ঞানী হতে হয়। এ জাতি জ্ঞানী জাতি।
পাকিস্তান বরং কিভাবে যেন বেশ কমিয়ে রাখছে। ইমরান খানের ব্যবস্থাপনা কৌশলের সাফল্য না অপকৌশলে তথ্য গোপন, বুঝা মুশকিল। আমরা সাফল্যই বলবো। ২২ কোটি জনসংখ্যার দেশে গতকাল সনাক্ত ৪,১১৯ জন, মৃত্যু ৪৬ জন।
বাংলাদেশের অবস্থা এত খারাপ কেন হলো? গতকালও সনাক্ত ১৬,২৩০ জন, আজ ১৫,২৭১ জন। মৃত্যু গতকাল ২৩৭, আজ ২৩৯ জন। এত লকডাউনের পর গরুর হাটের প্রভাব সম্ভবত।
– বিভিন্ন দেশে বিভিন্ন কারণ আছে। অবাধ মেলামেশা, আইন না মানা, সামাজিকতা বেশি করা, নসিবের ওপর বেশি ভরসা তথা ধর্মীয় অন্ধ বিশ্বাস, নানা কারণ। তবে একটা বিষয় স্পষ্ট, কেবল জনগণ আইন মানলেই হবে না, জনগণের উপর সরকারের যত বেশি নিয়ন্ত্রণ, করোনা তত নিয়ন্ত্রণে থাকে। মানে স্বাধীনতা সব সময় সীমাহীন না, সবার সাথে সমাজে ও রাষ্ট্রে বসবাস করতে কখনো রাষ্ট্র জনগণকে বেশি নিয়ন্ত্রণ করার দরকার আছে, যা মানতে হবে। তা না হলে সকলের বিপদ একসাথে নেমে আসে। সামাজিক বা ধর্মীয় বিষয়েও সরকারের বিধি নিষেধ কঠোরভাবে মানতে হবে সেটা আমেরিকা, রাশিয়া, বৃটেন, ইরান, বাংলাদেশ সবার জন্য প্রযোজ্য, যেমন সফল হচ্ছে অনেকটা চিন, উত্তর কোরিয়া, ভিয়েতনান, কিউবা, এসব দেশ। বেশ কিছু কল্যান রাষ্ট্রের লোকরাও সরকারের নিয়ন্ত্রণের চেয়ে বেশি সেল্প মটিভেটেড। সুইডেন, ফিনলেন্ড, অষ্ট্রেলিয়া এসব।
শেষ কথা, বেশির মৃত্যুর অভিজ্ঞতা নেয়ার আগেই বুঝতে হবে, সকলকে দুরত্ব মানতে হবে, মাস্ক পড়তে হবে ও স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে। অতি দরকার ছাড়া জনসমাগম থেকে দুরে থাকতে হবে। ভেক্সিন মানে করোনামুক্ত হওয়া না, মানে মৃত্যু সম্ভাবনা কমানো মাত্র।

সরদার আমিন; প্রকৌশলী 

ছড়িয়ে দিন

Calendar

September 2021
S M T W T F S
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
2627282930