আবার শৈত্যপ্রবাহ ছড়িয়ে পড়েছে সারাদেশে

প্রকাশিত: ১২:১৯ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৭, ২০২০

আবার  শৈত্যপ্রবাহ ছড়িয়ে পড়েছে সারাদেশে

আবার শৈত্যপ্রবাহ ছড়িয়ে পড়েছে সারাদেশে । বয়ে যাচ্ছে দেশের উত্তর ও মধ্যাঞ্চলের বিভিন্ন জেলায়।
দুই দিনের গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির পর আবার দেখা দিয়েছে ভয়ংকর রূপে ।

মঙ্গলবার সকালে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় তাপমাত্রা নেমেছে ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসে; যা সারা দেশের মধ্যে সবচেয়ে কম। ওই সময় ঢাকায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১১.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আবহাওয়াবিদ রাশেদুজ্জামান বলেন, ফরিদপুর, গোপালগঞ্জ, রাজশাহী, পাবনা, কুড়িগ্রাম, পঞ্চগড়, যশোর ও চুয়াডাঙ্গায় মৃদু থেকে মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে।

“এই শৈত্যপ্রবাহ অব্যহাত থাকবে। আগামী ২৪ ঘণ্টায় বিস্তারও বাড়বে।”

মঙ্গলবারের আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, আকাশ আংশিক মেঘলা থাকতে পারে, সারা দেশে মোটামুটি শুষ্ক আবহাওয়া বিরাজ করতে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের উত্তর পশ্চিমাংশে এবং নদী অববাহিকায় হালকা থেকে মাঝারি মাত্রার কুয়াশা থাকতে পারে।

সারা দেশে রাতের তাপমাত্রা আরও একটু কমতে পারে, তবে দিনের তাপমাত্রা সামান্য বাড়তে পারে।

বাংলাদেশে ডিসেম্বর থেকে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত শীত মৌসুম ধরা হয়। তবে জানুয়ারির মাঝামাঝিতে বাংলা পঞ্জিকার মাঘ মাসের শুরুতে বরাবরই শীতের তীব্রতা বাড়ে।

এবারের শীত মৌসুমে ডিসেম্বরের শেষার্ধে দুটি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যায় দেশের বিভিন্ন এলাকায়। ২৯ ডিসেম্বর তেঁতুলিয়ায় থার্মোমিটারের পারদ নেমে যায় ৪ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। এ মৌসুমে এটাই দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।

রাশেদুজ্জামান বলেন, “পৌষের আজ ২৩ তারিখ। স্বাভাবিকভাবেই দেশের বিভিন্ন এলাকায় তাপমাত্রা কমছে। মেঘলা আবহাওয়া কেটে গিয়ে কোথাও কোথাও কনকনে শীত অনুভূত হচ্ছে। রাজধানীসহ অনেক এলাকায় উত্তুরে হাওয়া বাড়ায় শীত অনুভূত হচ্ছে বেশি।”

আবহাওয়া অফিস বলছে, চলতি জানুয়ারি মাসে সারা দেশে তিনটি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে। প্রথম দফায় সোমবার থেকে একটি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাওয়ার পর মাসের মাঝামাঝি সময়ে মাঝারি মাত্রার একটি এবং মাসের শেষ সপ্তাহে একটি তীব্র শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে দেশের বিভিন্ন এলাকায়।

সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে নেমে গেলে তাকে তীব্র শৈত্যপ্রবাহ হিসেবে ধরা হয়। আর তাপমাত্রা ৬-৮ ডিগ্রির মধ্যে থাকলে মাঝারি এবং তাপমাত্রা ৮-১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে থাকলে তাকে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বলে।

ছড়িয়ে দিন