ঢাকা ১৪ই জুন ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩১শে জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৮ই জিলহজ ১৪৪৫ হিজরি

আমাকে জোর করে ধর্মান্তরিত করে বিয়ে করেছে শাকিব

redtimes.com,bd
প্রকাশিত ডিসেম্বর ৭, ২০১৭, ০৯:৪৯ পূর্বাহ্ণ
আমাকে জোর করে ধর্মান্তরিত করে বিয়ে করেছে শাকিব

জোর করে আমাকে ধর্মান্তরিত করা হয়েছে। সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মেয়েকে এভাবে ধর্মান্তরিত করে বিয়ে করার পর এখন তার জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলছেন শাকিব। ফের বিস্ফোরক অভিযোগ অভিনেত্রী অপু বিশ্বাসের। বাংলাদেশ-প্রতিদিন সংবাদমাধ্যমে তিনি এই অভিযোগ করেন। অপু বিশ্বাসের মন্তব্যের জেরে আলোড়িত বাংলাদেশের চলচিত্র-মহল। বাংলাদেশ বিনোদন জগতে যথেষ্ট পরিচিত মুখ অপু বিশ্বাস এবং শাকিব খান। গত কয়েকদিন আগে দুজনের বিবাহ-বিচ্ছেদ নিয়ে রীতিমত আলোড়ন পড়ে যায়।

এদিকে অপু বিশ্বাস বলছেন, তাঁকে জোর করে ধর্মান্তিরত করে বিয়ে করেছেন শাকিব খান। বাংলাদেশ প্রতিদিনের রিপোর্ট বলছে, ‘ বিয়ের সময় ধর্ম পাল্টে মুসলমান হিসেবে তার নাম রাখা হয়েছে ‘অপু ইসলাম খান’। এরপরেও এতদিন পর্যন্ত শাকিব চরম ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছেন। শেষ পর্যন্ত সম্প্রতি শিশু সন্তান জয়কে বাসায় কাজের লোকের কাছে রেখে শাকিবের অনুমতি না নিয়ে অপু কলকাতায় চলে গেলে শাকিব হার্ডলাইনে যেতে বাধ্য হন। শাকিবকে ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসার অনুরোধ জানিয়ে অপু বলেন, না হলে আমার আর কোনো পথ থাকবে না। প্রয়োজনীয় যা করার সবই করতে হবে আমাকে। অপু বলেন, আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা চাইছি। কারণ ধর্মান্তরিত করে বিয়ে করার পর আজ আমাকে শাকিব তালাক দিতে চাইছে। আমি এখন কোথায় গিয়ে দাঁড়াব। আমার সম্প্রদায় তো এখন আমাকে আর স্বাভাবিকভাবে মেনে নেবে না। অপু বলেন, আমাদের প্রধানমন্ত্রী অত্যন্ত সহনশীল ও সুবিবেচনাপ্রসূত মনের মানুষ। তার সহমর্মিতা অতুলনীয়। আমি দেশের একজন প্রথম শ্রেণির নাগরিক। শাকিবের একরোখা সিদ্ধান্তে আমার জীবন এখন বিপন্ন। প্রধানমন্ত্রীর সদয় হস্তক্ষেপই এই দুর্বিষহ অবস্থা থেকে আমাকে মুক্ত করতে পারে। মানবাধিকার ও নারী সংগঠনগুলোকেও পাশে চান অপু। তিনি বলেন, সেলিব্রেটি হলেও আমার সামাজিক মর্যাদা রয়েছে। ডিভোর্সের মতো একটি ন্যক্কারজনক সিদ্ধান্ত কখনো মেনে নেওয়া যায় না।’

রিপোর্টে আরও লেখা হয়েছে, ‘ অপুর কথায়, সংসারে ঝগড়া, ঝামেলা থাকা অস্বাভাবিক কিছু নয়। শাকিবের সিদ্ধান্ত মেনে নিতাম যদি একই ধর্মের হতাম। আমাকে ও জোর করে ধর্মান্তরিত করেছে, বিয়ে করেছে। তাই তার এই অমানবিক সিদ্ধান্ত কোনোভাবেই মেনে নেব না। অপু বলেন, যদিও এখন পর্যন্ত ডিভোর্সের কোনো চিঠি পাইনি তারপরও বিষয়টি শুনে অবাক হয়েছি। কারণ গত মাসের ২৮ তারিখে সন্তান জয়কে নিয়ে শাকিবের বাসায় গিয়েছি। জয়কে শাকিবের কাছে রেখে দুদিনের জন্য গ্রামের বাড়ি বগুড়া গিয়েছি। শাকিবের মা, বাবাকে বলেছি আমি নামাজ, রোজা, হজ আদায় করব আর শাকিবের সঙ্গে সুখে সংসার করব। তারাও আমার কথায় সম্মত হয়েছিলেন। এরপর এমন কী ঘটনা ঘটল যে, সে আমাকে ডিভোর্স দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল। অপু বলেন, জয়ের জন্ম নিয়েই শাকিবের সঙ্গে তার সম্পর্কের অবনতি ঘটে। সন্তানের জন্ম হোক এটি শাকিব চায়নি। জয়ের জন্মের আগে শাকিবের আপত্তির মুখে তিনবার অ্যাবরশন করাতে হয়েছে তাকে। অপু বলেন, জয় যখন গর্ভে আসে তখন অ্যাবরশন করানোর জন্য আমাকে চাপ দেওয়া হয়েছে’।

সম্প্রতি শাকিব এবং অপুর দাম্পত্য জীবন নিয়ে আলোড়িত হয়েছে ঢালিউড। বিবাহবিচ্ছেদের মামলাও করেছেন শাকিব খান। তবে তিনি কোনও চিঠি পাননি বলে দাবি করেছেন তাঁর স্ত্রী অপু বিশ্বাস। বাংলাদেশে অপু ও শাকিব একাধিক ছবিতে একসঙ্গে অভিনয় করেছেন। সেই সূত্রেই তাঁদের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। অপুকে বিয়ে করলেও দীর্ঘদিন আড়ালে রেখেছিলেন শাকিব। গতবছর ইদের আগে আনুষ্ঠানিকভাবে বিবাহের কথা স্বীকার করতে কার্যত বাধ্য হন ঢালিউডের নায়ক।

 

সুত্র:kolkata24x7

June 2024
S M T W T F S
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
30