আসুন সমাজবদলের অঙ্গীকারে নিজেদের পাল্টাই

প্রকাশিত: ৭:০৪ অপরাহ্ণ, মে ২২, ২০১৯

আসুন সমাজবদলের অঙ্গীকারে নিজেদের পাল্টাই

মীরা মেহেরুন

অতীতে নারীর একমাত্র কাজ ছিলো সন্তান উৎপাদন,তাদের দেখাশোনা এবং গৃহস্থালির সব কাজ, যেগুলো ছিলো সম্পূর্ণ অনুৎপাদনশীল খাত। এছাড়া পৈত্রিক বা স্বামীর সম্পদে তাদের কোনো অধিকার ছিলো না, পারিবারিক সিদ্ধান্ত গ্রহণেও তাদের কোনো অধিকার ছিলো না। এককথায় তাদের জীবন ছিলো অনেকটা পরগাছা ধরণের অসম্মানজনক। ধীরে ধীরে নারী এ বলয় ছেড়ে বেরিয়ে এসে উৎপাদনশীল খাতে নিজেদের নিয়োজিত করছে কিন্তু অনুৎপাদনশীল খাতটার সমস্ত দায়দায়িত্ব তাদের কাঁধে রয়েই গেছে।প্রকৃতিগত ভাবে সন্তান জন্মদানের বিষয়টি নারীর একক। কিন্তু একজন কর্মজীবী নারী চব্বিশ ঘন্টায় আটচল্লিশ ঘন্টার সমান কাজ করছে, এই দায়টুকুই ভাগাভাগি হোক না সুখ-দু:খ ভাগাভাগির মতো। প্রতিটি সংসারে এটা চালু হোক, অফিস থেকে ফিরে দুজন একসঙ্গে সংসারের কাজে লেগে পড়বে কারণ দুজনেই তো পরিশ্রান্ত-ক্লান্ত-ঘর্মাক্ত!এতে নারীর পাশাপাশি পুরুষের সম্মান বাড়বে বৈ কমবে না।আসুন সমাজবদলের অঙ্গীকারে নিজেদের পাল্টাই!