ঊর্মি মাহমুদ ও তার থালি

প্রকাশিত: ৯:১৫ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ২৬, ২০১৭

ঊর্মি মাহমুদ  ও তার থালি

ঊর্মি মাহমুদ । লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার ছিলেন । এরপর ছোট পর্দায় অভিনয়, উপস্থাপনা ও মডেলিং- তিন ধারাতেই সবার নজর কেড়েছেন ।

বিশেষ করে একই সময়ে একাধিক টিভি চ্যানেলের ভিন্ন ভিন্ন অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করে উপস্থাপিকা হিসেবে বেশ আলোচনায় চলে এসেছেন তিনি । এর পাশাপাশি বিভিন্ন নাটক ও বিজ্ঞাপনে নিয়মিত কাজ তো আছেই ।

আরটিভির একটি সৌন্দর্যবিষয়ক অনুষ্ঠানসহ বাংলাভিশনের নাচের রিয়েলিটি শো ‘ম্যাঙ্গোলি নাচো বাংলাদেশ নাচো’ উপস্থাপনা তার মেধার স্বাক্ষর বহন করে ।
স্বামী, সংসার নিয়েই এখন ব্যস্ত সময় কাটে তার। সম্প্রতি তিনি রেস্টুরেন্ট ব্যবসা শুরু করেছেন। ধানমন্ডিতে তার রেস্টুরেন্টের নাম ‘থালি’। ঊর্মি মাহমুদ বলেন, সত্যি বলতে এটা আমার স্বপ্ন ছিল । মনের মতো একটা রেস্টুরেন্ট । ঢাকা শহরে অনেক রেস্টুরেন্ট আছে কিšতু স্বাস্থ্যকর খাবার ও পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন পরিবেশের রেস্টুরেন্ট খুব কম-ই আছে ।ঊর্মি বলেন, আমরা খাবারের উপাদান বাছাই করনে অনেক সচেতন।থালিতে ফ্রেশ ও ভালো মানের খাবার পরিবেশন করা হয়।মানুষের স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখে খাবার মসলাদার ও তৈলাক্ত নয় কিন্তু একটু স্পাইসি রেখেছি আমরা। আর অবশ্যই সেটা স্বাস্থ্যকর।ঊর্মি দাবি করেন,এখনকার রেস্টুরেন্ট গুলোতে বিশেষ করে ধানমন্ডি এলাকায় ওয়াশরুম সুবিধা অপর্যাপ্ত।ওয়াশরুম গুলি খুবই সংকীর্ণ। আবার একই ওয়াশরুমে পুরুষ, মহিলা, শিশু সবাইকে যেতে হচ্ছে যা মোটেই স্বাস্থ্যকর নয়। ‘থালি’তে তিনটি ওয়াশরুম রয়েছে। পুরুষ- মহিলা উভয়ের জন্য আছে আলাদা ওয়াশরুমের সুব্যবস্থা। কমন ওয়াশরুম ও রয়েছে।থালির খাবার সম্পর্কে তিনি জানান, মেন্যুতে ভারতীয় খাবার প্রাধান্য পাচ্ছে। রান্নার দায়িত্বে আছেন ভারতীয় শেফ যার ফলে ভোজনরসিকরা পাচ্ছেন আসল ভারতীয় খাবারের স্বাদ।রান্না ঘরের পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতার ব্যাপারে আমরা অনেক বেশি সচেতন কারন আমি নিজেই একটু খুতখুতে স্বভাবের। তাছাড়া এই খাবার গুলো আমার মা, বাবা, হাজব্যান্ড, বাচ্চা, ভাই, বোন, আত্বীয়-স্বজন পরিবারের সবাই খাচ্ছেন। আমি মনে করি আমার ‘থালি’তে যারা খেতে আসেন তারা সবাই আমার পরিবারের একটি অংশ ।এখানে শিশুদের জন্য পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন পরিবেশে বিনোদনের সুব্যবস্থা রয়েছে । প্লে- জোন এ চিত্রাঙ্কনের সুযোগ রয়েছে যা শিশুর সুপ্ত প্রতিভা বিকাশ করতে সাহায্য করছে। যা অন্য কোথাও নেই ।