একসঙ্গে চার অভিষেক

প্রকাশিত: ৭:১৯ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২০, ২০১৬

একসঙ্গে চার অভিষেক

এসবিএন ডেস্ক: বাংলাদেশ দলে ৫ পরিবর্তন নিয়ে তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে মাসাকাদজার দলের মুখোমুখি হলো মাশরাফি বিন মুর্তজা। এর মধ্যে চারজনেরই অভিষেক।

এর আগে বাংলাদেশের হয়ে টি-২০তে একসঙ্গে ৬ জনের অভিষেক হয় কেনিয়ার বিপক্ষে নাইরোবিতে। সে খেলায় অভিষেক হয় অলক কাপালি, আশরাফুল, মাহমুদুল্লাহ, নাজিম উদ্দিন, সৈয়দ রাসেল ও তামিম ইকবালের।

গতকাল তামিম ইকবালের পরিবর্তে দলে ইমরুল কায়েস খেলেন ওপেনার হিসেবে। অন্যদিকে পেসার আল আমিন ও মুস্তাফিজের পরিবর্তে অভিষেক হয়েছে তিন পেসার মো. শহীদ, মুক্তার আলী ও আবু হায়দার রনির।

শুভাগম হোমের পরিবর্তে অভিষেক তরুণ মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের। এর আগে বাংলাদেশ দলে ৫০তম টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটার হিসেবে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে নুরুল হাসান সোহানের অভিষেক হয়েছিল সিরিজের প্রথম খেলায়।

গতকাল ৫১তম ক্রিকেটার হিসেবে আবু হায়দার রনিকে ক্যাপ পরিয়ে দেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুতর্জা। কিন্তু শুরুটা মোটেও ভালো হয়নি এই সম্ভাবনাময় পেসারের। নিজেরে প্রথম ওভারেই ৭ রান দিয়ে তার যাত্রা। দ্বিতীয় ওভারটি ছিল আরও ভয়ঙ্কর। ৩ চার ও একটি ছয়ের মারে জিম্বাবুয়ের ওপেনার সিবান্দা এক ওভারে তুলে নেন ১৮ রান।

যদিও শেষ পর্যন্ত ৪ ওভার বল করে নিয়েছেন ২টি উইকেট। বাকি দুই পেসার শহীদ ও মুক্তারের প্রথম ওভারেই চারের মার হাঁকান জিম্বাবুয়ের দুই ওপেনার।

৫২তম অভিষিক্ত হিসেবে পেসার মো. শহীদকে ক্যাপ পরিয়ে দেন জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক ও বিসিবি পরিচালক আকরাম খান। দলকে প্রথম উইকেট উপহার দিয়েছেন তিনিই।

শেষ পর্যন্ত ৩ ওভার বল করে খরচ করেন ৩২ রান। ৫৩তম অভিষিক্ত মুক্তার আলী কোনো উইকেট না পেলেও দিয়েছেন ২ ওভারে ১৭ রান। ১৫ বলে ১৯ রান করে অপরাজিত থাকেন তিনি।

মুক্তারকে ক্যাপ পরিয়ে দেন সাকিব আল হাসান। ৫৪তম অভিষিক্ত মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতকে ক্যাপ পরিয়ে দেন মাহমুদুল্লা রিয়াদ। জিম্বাবুয়ে যখন রানের বন্যাতে ভাসছে ঠিক তখনই অধিনায়ক বল তুলে দিয়েছিলেন তার হাতে।

২ ওভার বল করে দেন ১০টি রান। আর ব্যাটিংয়ে ১৯ বলে ১৫ রান করে খুব বাজেভাবে আউট হন তিনি।

ছড়িয়ে দিন