কবিতার বিষয় আশয়

প্রকাশিত: ৮:৩৭ পূর্বাহ্ণ, মে ৯, ২০১৯

কবিতার বিষয় আশয়


কামরুল হাসান

কবিতা সম্পর্কে সমাজে নানা ধরণের ধারণা প্রচলিত আছে । আছে নানা মুনির নানা মত ।

বিতা সম্পর্কে ১০টি সঠিক ধারণা:

১। কবিতা পুরনো ভাষারীতি ও প্রকাশভঙ্গিকে পরিত্যাগ করে। ক্লিশে এড়িয়ে যায়। লতাপাতাফুলপাখিনারী নিয়ে সে উচ্ছ্বসিত নয়।
২। কবিতা আমি-তুমির ক্লিশে ব্যবহার করে না। বিশেষ করে তরল প্রেমের ন্যাকামি বর্জন করে।
৩। কবিতা প্রতিবাদ করলেও শ্লোগান বা চীৎকার করে না।
৪। কবিতা রহস্যময় ও অন্তঃসলিলা। গূঢ়ার্থবাচক।
৫। কবিতা কখনো ফ্লাট নয়। তার ভেতরে শব্দ, ছন্দ, অলঙ্কারের সুষম বিন্যাস থাকে।
৬। কবিতা স্বতঃস্ফূর্ততা ও নির্মাণের মিশোল।
৭। কবিতা দর্শন ও অধিবিদ্যাকে ধারণ করে। সে আপন সংস্কৃতির ধারক।
৮। কবিতা ঐতিহ্যসন্ধানী, ইতিহাসচেতন, ভূগোলবিহারী ও বিজ্ঞানমুখী।
৯। কবিতা বাকপরিমিতি ও আড়ালে বিশ্বাসী। সে বাহুল্য ও পুনরাবৃত্তি অপছন্দ করে।
১০। কবিতা বহুমাত্রিক, সামষ্টিক ও অন্তর্ভুক্তিমূলক। তাতে বহুস্বর শোনা যায়।

কবিতা সম্পর্কে দশটি ভ্রান্ত ধারণা :

১। ছন্দোবদ্ধ পদ মানেই কবিতা। অর্থাৎ ছড়াও কবিতা।
২। ভাষার ব্যবহার যাই হোক, অন্তমিল থাকলেই হলো।
৩। কবিতায় যত অপ্রচলিত, যত দুর্বোধ্য শব্দ ঠেসে ধরা যাবে, কবিতা তত মজবুত হবে।
৪। বর্ণনা ও পুনরাবৃত্তি (ক্যাটালগিং) ভালো কবিতার বৈশিষ্ট্য।
৫। তাৎক্ষণিক বিষয়ের কবিতা উৎকৃষ্ট কবিতা।
৬। কবিতায় প্রেম ও প্রতিবাদ থাকতেই হবে।
৭। কবিতা ঝর্ণাজলের মতো স্বতোৎসারিত। এর ঘষামাজা দরকার নেই।
৮। কবিতা পুরোপুরিই একটি ক্রাফট। একে নির্মাণ করতে হবে।
৯। যে কোনোভাবে আলাদা হতে হবে, তাতে কবিতা যত উদ্ভটই হোক না কেন।
১০। ট্যাবু ভেঙ্গে দেয়, বিবমিষা জাগায় এমন সব বিষয় নিয়ে কবিতা লিখতে হবে।