কমলগঞ্জে ফেইসবুকে কটুক্তি ; অবশেষে অফিসার ইনচার্জ এর একান্ত প্রচেষ্টায় সালিশ বৈঠকে সমাধান

প্রকাশিত: ১১:২৬ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১০, ২০২৩

কমলগঞ্জে ফেইসবুকে কটুক্তি ; অবশেষে অফিসার ইনচার্জ এর একান্ত প্রচেষ্টায় সালিশ বৈঠকে সমাধান

কমলগঞ্জ প্রতিনিধি:

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার ৯ নং ইসলামপুর ইউনিয়নের কাঁঠালকান্দি গ্রামের সুয়েব আহমেদ ( Suab Ahmed) নামে আইডি থেকে মায়মুরব্বিদের নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকের মাধ্যমে কটুক্তির অভিযোগে কমলগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ করেন।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, কমলগঞ্জ উপজেলার ৯ নং ইসলামপুর ইউনিয়নের কাঁঠালকান্দি গ্রামের সুয়েব আহমেদ ( Suab Ahmed) নামে আইডি থেকে বৃহস্পতিবার (২ আগষ্ট)  কাঠাল কান্দি গ্রামের মায়মুরব্বিদের নিয়ে সুয়েব হোসেন, জাফর আলী,আশ্বাদ মিয়া,আবদুর রহিমসহ আরোও অজ্ঞাত ৪/৫ জন মিলে অত্র গ্রামের মুরব্বিয়ান এবং আলেমদের নিয়ে কটুক্তি করলে কুরুচিপূর্ণ কটুক্তি করায় উল্লেখিত ব্যাক্তিদের বিরুদ্ধে গোলাইছ কমলগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। পরে মুরব্বিয়ানরা তাকে এবং তার পরিবারকে সামাজিকভাবে এক ঘরে করে রাখার সিদ্ধান্ত নেয়৷ বিষয়টি নিয়ে এলকায় দুটি গ্রুপের সৃষ্টি হয়ে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। পরবর্তীতে কমলগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে।

এদিকে উল্লেখিত বিষয়টি নিয়ে কমলগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ এর একান্ত প্রচেষ্টায় ও পৌরসভার পৌর মেয়র জুয়েল আহমদ ও ৯নং ইসলামপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সুলেমান মিয়া এর উদ্দ্যেগে এলাকার গন্যমাণ্য ব্যাক্তিগন এক সালিশ বৈঠকের আয়োজন করেন।

বুধবার (৯ আগষ্ট) কাঠাল কান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে সালিশ বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়।

এরই ফলশ্রুতিতে কমলগঞ্জ পৌরসভার পৌর মেয়র জুয়েল আহমদ, কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সঞ্জয় চক্রবর্তী, ও ৯ নং ইসলামপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সুলেমান মিয়া,স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গসহ ও মুরব্বীদের হস্তক্ষেপে শত-শত লোকজনের উপস্থিতিতে দীর্ঘদিনের একটি সামাজিক বিরোধ দূর করে শান্তিপূর্ণভাবে বৈঠকে মিমাংসা হয়। পুলিশের হস্তক্ষেপে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি শান্তিপূর্ন সমাধান হওয়ায় স্হানীয় লোকজন পুলিশের প্রশংসা করেন।এ মিমাংসায় দুপক্ষের মুখে উজ্জ্বল হাসি নেমে আসে এবং স্থানীয়দের মাঝেও আনন্দের ঢেউ নেমে আসে।

 

এবিষয়ে উভয়পক্ষ গোলাইছ মিয়া ও সুয়েব হোসেন বলেন, আমাদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি চলছিলো। স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও মুরব্বীদের হস্তক্ষেপে সামাজিকভাবে আপোষ মীমাংসা বৈঠকে বসার পর আমাদের ভুল আমরা বুজতে পারি। এবং এর সমাধানও করি। এ বিষয়ে আমাদের আর কারও প্রতি কোনো অভিযোগ নেই।

গোলাইছ মিয়া বলেন, তাদের সাথে আমার কোনো অভিযোগ নেই এবং আইনশৃংখলা বাহিনীর নিকট দায়েরকৃত আমার অভিযোগ প্রত্যাহার করে নিবো।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

লাইভ রেডিও

Calendar

April 2024
S M T W T F S
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
282930