করোনাভাইরাসের নতুন ধরনটি ব্যাপক হারে ছড়িয়ে পড়েছে যুক্তরাজ্যে

প্রকাশিত: ১১:৩১ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২, ২০২১

করোনাভাইরাসের নতুন ধরনটি ব্যাপক হারে ছড়িয়ে পড়েছে যুক্তরাজ্যে

নভেল করোনাভাইরাসের নতুন ধরনটি ব্যাপক হারে ছড়িয়ে পড়েছে যুক্তরাজ্যে। এক গবেষণায় দাবি করা হয়েছে, গত নভেম্বরে দেশটিতে লকডাউন চলাকালেও ব্যাপক হারে ছড়িয়ে পড়ে ভাইরাসটির নতুন ধরন। এমন পরিস্থিতিতে দেশজুড়ে আরো কঠোর বিধিনিষেধ আরোপের জন্য চাপে পড়েছেন দেশটির মন্ত্রীরা। সংবাদমাধ্যম ফিন্যান্সিয়াল টাইমস এ খবর জানিয়েছে।

এদিকে, লন্ডনের ইম্পেরিয়াল কলেজের এক গবেষণায় দেখা গেছে, করোনার নতুন ধরনের রিপ্রোডাকশন নম্বর বা আর-নম্বর শূন্য দশমিক ৪ থেকে শূন্য দশমিক ৭ পর্যন্ত বৃদ্ধি পেয়েছে। আর-নম্বরের ওপর নির্ভর করে সংক্রমণের হার। আর-নম্বর যত বেশি হবে সংক্রমণের হার ততো বাড়বে। সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে।

যুক্তরাজ্যের করোনাভাইরাসের নতুন ধরনটির সর্বশেষ আর-নম্বর ১ দশমিক ১ থেকে ১ দশমিক ৩ পর্যন্ত ধারণা করা হচ্ছে। করোনা সংক্রমণের হার কমাতে হলে এই আর নম্বর ১-এর নিচে রাখা প্রয়োজন।

গবেষণার বরাত দিয়ে ইম্পেরিয়াল কলেজের অধ্যাপক অ্যাক্সেল গ্যান্ডি জানিয়েছেন, ভাইরাসটির ধরনের পার্থক্য অনেক বেশি। মহামারি শুরুর পর থেকে এটিই সবচেয়ে আশঙ্কাজনক পরিবর্তন।

এদিকে যুক্তরাজ্যে করোনার সংক্রমণ দ্রুত বাড়তে শুরু করেছে। এর মধ্যেই গত বৃহস্পতিবার একদিনে দেশটিতে করোনা শনাক্ত রোগীর সংখ্যা নতুন উচ্চতায় গিয়ে পৌঁছেছে।

সাম্প্রতিক সময়ে দেখা যাচ্ছে, ভাইরাসটি আগের তুলনায় ২০ বছরের কম বয়সীদের মধ্যে, বিশেষ করে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে। তবে অধ্যাপক গ্যান্ডি বলছেন, ভাইরাসটি সব বয়সীদের মধ্যেই দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে।

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক জিম নেইস্মিথ জানিয়েছেন, নতুন এই অনুসন্ধান ইঙ্গিত দিচ্ছে যে, আমাদের খুব দ্রুত আরো কঠোর লকডাউন প্রয়োজন।

অধ্যাপক জিম আরো জানান, এই অনুসন্ধানের মাধ্যমে বোঝা যাচ্ছে যে, আমরা এখন পর্যন্ত যেভাবে বিধি-নিষেধ আরোপ করেছি, এ ভাবে চললে আর-নম্বর ১ এর নিচে নামানোর ক্ষেত্রে ব্যর্থ হতে হবে।

বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাসের সর্বশেষ পরিসংখ্যান জানার অন্যতম ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, গতকাল শুক্রবার যুক্তরাজ্যে মোট ৫৩ হাজার ২৮৫ জনের করোনা শনাক্ত করা হয়েছে। এর আগের দিন বৃহস্পতিবার দেশটিতে ৫৫ হাজার ৮৯২ জনের করোনা শনাক্ত করা হয়।

ছড়িয়ে দিন