কাউকে কিছু না জানিয়ে নিখোঁজ হলেন সিলেট গ্যাস ফিল্ডের ব্যবস্থাপক

প্রকাশিত: ১০:১৫ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২১

কাউকে কিছু না  জানিয়ে  নিখোঁজ হলেন সিলেট গ্যাস ফিল্ডের ব্যবস্থাপক

সিলেট গ্যাস ফিল্ডের ব্যবস্থাপক (ক্যাশ ও ব্যাংকিং) মো. শাহে আলমের (৪৭) খোঁজ মিলেছে। তিনি স্ত্রীকে ফোন করে জানিয়েছেন, ‘তার চাকরি-বাকরি ভালো লাগে না। সেজন্য গ্রামের বাড়ি ভোলায় চলে যাচ্ছেন।’

 

 

শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাত পৌনে ১২টার দিকে তার স্ত্রী মোবারেকা সুরভী সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের শাহপরাণ থানাকে তার স্বামীর সঙ্গে কথা বলার তথ্য জানিয়েছেন।

 

 

শাহপরাণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ আনিসুর রহমান রাতেই এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

 

 

ওসি বলেন, ‘শাহে আলমের স্ত্রীর সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, তার স্বামী কিছুদিন ধরে মানসিক সমস্যায় ভুগছেন। শাহে আলম বাজার করার কথা বলে বাড়ি থেকে বেরিয়ে পরিবারের কাউকে না জানিয়েই গ্রামের বাড়ি ভোলার লালমোহনের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিয়েছেন।’

 

 

তিনি বলেন, ‘শুক্রবার রাত ১১টার পরে শাহে আলম স্ত্রীকে ফোন করে জানান, তিনি ঢাকার সদরঘাটে আছেন। তার চাকরি করতে ভালো লাগছে না। এজন্য তিনি গ্রামের বাড়িতে চলে যাচ্ছেন, তার জন্য কেউ যেন চিন্তা না করে।’

ওসি আনিসুর রহমান বলেন, ‘তার স্ত্রী জিডি করার পর আমরা তার মোবাইল ফোন নম্বর নিয়ে লোকেশন বের করার চেষ্টা করছিলাম। পরে আমরাও দেখেছি, তিনি ঢাকার সদরঘাটে অবস্থান করছেন।’

এর আগে দুপুরে শাহে আলম জৈন্তাপুরের চিকনাগুলের বাসা থেকে বটেশ্বর বাজারের উদ্দেশ্যে বের হয়ে নিখোঁজ হয়েছেন উল্লেখ করে থানায় জিডি করেন তার স্ত্রী মোবারেকা সুরভী।

 

 

 

জিডি করার পর নিখোঁজ শাহে আলমের ছোট ভাই সাইফুল ইসলাম জানান, সবজি ও নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কিনতে শুক্রবার দুপুরে গ্যাস ফিল্ডের গাড়ি নিয়ে তিনি জৈন্তাপুর উপজেলার চিকনাগুল থেকে শাহপরাণ থানার বটেশ্বর বাজারে যান। সেখান থেকে তার বাড়িতে ফেরার কথা থাকলেও না ফেরায় শাহপরাণ থানায় জিডি করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, তার বড় ভাই বটেশ্বর বাজারে কোম্পানির গাড়ি নিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। বাজারে নেমেই গাড়ি ফেরত পাঠিয়ে দেন শাহে আলম। এরপর থেকে তার ব্যবহৃত ফোন বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে।

 

 

 

ওই সময় শাহপরাণ থানা পুলিশ জানায়, শাহে আলমের স্ত্রী সুরভী থানায় জিডি করার পর পুলিশ বটেশ্বর এলাকায় যেখান থেকে শাহে আলম নিখোঁজ হয়েছেন, সেখানে থাকা ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করে তাকে উদ্ধারে কাজ করছে।

 

 

শাহপরাণ থানার ওসি সৈয়দ আনিসুর রহমান বলেছিলেন, ‘সিসিটিভির ফুটেজে মো. শাহে আলমের উপস্থিতি দেখা গেছে। ভিডিওতে দেখা গেছে, বটেশ্বর বাজারের সামনে সিলেট-তামাবিল মহাসড়ক দিয়ে জাফলং থেকে ছেড়ে আসা একটি বাসে উঠছেন তিনি। বাসটি জাফলং থেকে সিলেট নগরের দিকে যাচ্ছিলো।’

ছড়িয়ে দিন