কাজী নজরুল ইসলাম : সুর ও শব্দের জাদুকর

প্রকাশিত: ১১:১১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৭, ২০১৮

কাজী নজরুল ইসলাম : সুর ও শব্দের জাদুকর

 

বিবেক অনুপ
আজওকি আমাদের মন কেমন করলে আমরা গুন গুন করি “নিজ গৃহে বনবাস সয় না,প্রিয়া মোর”। আন্দোলন সংগ্রামে কি এখনো “কারার ওই লৌহ কপাট” আমাদের মুখের গান হয়ে ওঠে। আজও কি আমরা প্রিয়তম কে বলি “আলগা করোগো খোপার বাঁধন, দিল ওয়াহি মেরা ফাস গায়ি”।

এমন অসংখ্য গানের স্রষ্টা কবি কাজী নজরুল ইসলাম। তিনি ছিলেন শব্দ ও সুরের জাদুকর। তার আগে কথা ও সুরের এতো বৈচিত্র্য বাংলাগানে দেখা যায় নি ।আমাদের উপমহাদেশীয় রাগ সঙ্গীতকে এতো বিস্তৃত ভাবে ব্যাবহার করে কেউ গান বাধেনি এমন করে। শুধু রাগই নয় মধ্যপ্রাচ্যেরও দৃশ্যকল্প ও সুরের আলামত পাওয়া যায় তার গানে।
মানুষের প্রত্যেকটি অনুভূতি আর প্রতিটি রাগের চলণকে মিলিয়ে এক অনবদ্য মিশ্রণে তিনি সৃষ্টি করেছেন শব্দ ও সুরের মূর্ছনা। তার গান যেমন বিদ্রোহীর বুকে যুগিয়েছে প্রেরণা, তেমনি ভাঙিয়েছে প্রিয়ার অভিমান। গজল আর হামদ নাদ এ আল্লাহ প্রেমে মশগুল করেছেন সবাইকে আবার সেই হাতেই সৃষ্টি করেছেন সংখ্যাতীত কীর্তন আর শ্যামা সঙ্গীত।

কাজী নজরুল ইসলামকে কোন জাতি- ধর্ম-গোত্র-মাজহাব এ বিচার করা সম্ভব না। তিনি সকল কিছুর ঊর্ধ্বে প্রাধান্য দিয়েছেন মানুষকে,গেয়ে গেছেন সাম্যের গান।

আমাদের দুর্ভাগ্য যে মাত্র ৪০ তিনি সক্ষম ছিলেন। কিন্তু এই সল্প সময়ে তিনি বাংলার শিল্পভান্ডারকে সমৃদ্ধ করতে দিয়ে গেছেন নিজের সবটুকু।

এর বিনিময়ে আমারা তেমন কিছুই দিতে পারিনি তাকে।আমাদের দেশে নজরুল সঙ্গীত এর চর্চায় ইতিবাচক কোন পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছেনা।এমনকি নজরুলের গান নিয়ে তরুণ প্রজন্মকে তেমন কাজ করতেও দেখা যায় না।
একটা সময় ছিলো যখন নজরুলের গান ছিলো তরুণ প্রজন্মের ভাবপ্রকাশের মাধ্যম। কিন্তু আধুনিকতার হাওয়ায় আমরা হারিয়েছি আমাদের নজরুল চর্চা।তবে নজরুল আমাদের মাঝেথেকে হারিয়ে যেতে পারবে না কখনোই।

কারণ যাহা সত্য ও সুন্দর তাহা চিরন্তন।