কাজে কোন ধরণের গাফিলতি সহ্য করা হবে না ঃবস্ত্র ও পাট মন্ত্রী

প্রকাশিত: ১১:০৫ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১৯

কাজে কোন ধরণের গাফিলতি সহ্য করা হবে না ঃবস্ত্র ও পাট মন্ত্রী

কাজে কোন ধরণের গাফিলতি সহ্য করা হবে না ।
দুর্নীতিমুক্তভাবে কাজ করলে প্রত্যেকটি সংস্থা এগিয়ে যাবে এতে দেশ উন্নত হবে বলে জানিয়েছেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী,বীর প্রতীক,এমপি।
রোববার (২৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর কাওরানবাজারে বাংলাদেশ তাঁত বোর্ডে কর্তৃক আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন।
গোলাম দস্তগীর গাজী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে একটি দুর্নীতিমুক্ত দেশ হিসেবে তৈরী করার প্রয়াসে কাজ করছে। আমরা প্রত্যেককে যদি দুর্নীতিমুক্তভাবে কাজ করি তাহলে প্রতিটি সংস্থা এগিয়ে যাবে। আর তার সুফল ভোগ করবে দেশবাসী। এজন্য দুর্নীতিকে না বলে কাজ করতে হবে। দুর্নীতিমুক্তভাবে তাঁত বোর্ডকেও কাজ করতে হবে তাহলে দেশের তাঁতিরা তার সুফল ভোগ করবে। তাঁত বোর্ড তাঁতশিল্পে বয়নে উন্নত প্রশিক্ষণ প্রদান, ফ্যাশন ডিজাইন ইনস্টিটিউট/কেন্দ্র স্থাপন, ঐতিহ্যবাহি মসলিন বস্ত্রের সুতা তৈরির প্রযুক্তি পুনরুদ্ধারসহ প্রান্তিক তাঁতিদের সুবিধার্থে ঋণের ব্যবস্থা করার মত গুরুত্বপূর্ণ কাজ করে । এ সকল কাজে কোন ধরণের গাফিলতি সহ্য করা হবে না ।
তিনি আরও বলেন, তাঁত শিল্পকে রক্ষা কারার জন্য সব ধরনের কার্যক্রম গ্রহন করা হবে। এজন্য তাঁতের সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে সমাধান করতে হবে। বাংলাদেশের তাঁত শিল্পকে বিশ্বে ব্র্যান্ডিং করতে হবে। বেনারশি,জামদানি এবং তাঁত আমাদের জাতীয় সম্পদ। প্রতি পহেলা বৈশাখে ছোট,বড় সকলে তাঁতদ্রব্য ব্যবহার করে। আমরা এই একটি উৎসবের মাধ্যমে মনে করি ৯০ শতাংশ তাঁতের ব্যবহার বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে করে এই একটি উৎসবেই তাঁতিদের অনেক অর্জন প্রকাশ পাই। একই সাথে প্রধানমন্ত্রী বৈশাখী ভাতা চালু করায় তাঁতিদের অগ্রগামী হয়েছে। কেননা সবাই এই উৎসবটি আনন্দমুখর পরিবেশে পালন করে থাকে।
আলোচনা শেষে, বাংলাদেশ তাঁত বোর্ডে কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সন্তানদের এসএসসি পরীক্ষা ২০১৬,১৭,১৮ সালে ভালো ফলাফলের জন্য বাংলাদেশ তাঁত বোর্ডের পক্ষ থেকে মেরিট সার্টিফিকেট তুলে দেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মিজানুর রহমান,বাংলাদেশ তাঁত বোর্ডের চেয়ারম্যান মো.রফিকুল ইসলাম,তাঁত বোর্ডের সদস্যবৃন্দ, মহা-ব্যবস্থাপক কামনাশীষ দাশ, প্রধান হিসাব রক্ষক সুকুমার চন্দ্র সাহা, প্রধান পরিকল্পনা বাস্তবায়ন অফিসার মো আউয়ুব আলীসহ প্রমুখ।