কানাইঘাটের শাহীঈদগাহ বাজারে ২লাখ টাকা ছিনতাই: আহত-১

প্রকাশিত: ১:১৯ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৭, ২০১৭

cnbangladesh.comসিলেটের কানাইঘাটের চতুল বাজার শাহীঈদগাহ এলাকায় দুই লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে । এসময় ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে উপজেলার দুর্গাপুর নয়াগ্রামের মৃত আব্দুল মজিদের ছেলে হেলাল উদ্দিন ( ৩৮) গুরুতর আহত হন। ঘটনাটি ঘটে গতকাল শনিবার (১৬ জুলাই) সকাল সাড়ে ১১টায় শাহীঈদগাহ মাদরাসার পশ্চিম পার্শ্বের রাস্তায় । স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্র জানায়, শনিবার সকালে হেলাল উদ্দিনের সম্বন্ধিক আমিন উদ্দিন কানাইঘাট উপজেলার জনতা ব্যাংক শাখা থেকে দুই লাখ টাকা উত্তোলন করে শাহীঈদগাহ বাজারের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিলে তাকে কানাইঘাট বাজার হতে কয়েকজন ছিনতাইকারী একটি সিএনজি  ফোরষ্ট্রোক নিয়ে অনুসরন করে । বিষয়টি আমিন উদ্দিন বুঝতে পেরে একপর্যায় শাহীঈদগাহ বাজারে এসে গাড়ি থেকে নেমে যান । পরবর্তীতে ওই টাকা হেলাল উদ্দিনকে দিয়ে বাড়িতে পাটানোর ব্যাবস্থা করেন । কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাস দুর্বত্ত ছিনতাইকারীরা এতেও পিছু হটেনি । হেলাল উদ্দিন কৌশলে ছিনতাইকারীদের এড়িয়ে যেতে পায়ে হেটে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন । অবশেষে তিনি বাজারের মাদরাসার পশ্চিমপার্শ্বে যাওয়া মাত্রই ৫-৬জন মূখোশপড়া অস্ত্রধারী ছিনতাইকারী একটি সিএনজি নিয়ে তার গতীরোধ করে সঙ্গে থাকা টাকা ছিনিয়ে নিতে চেষ্টা করে । এসময় তিনি টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে তাকে এলোপাতাড়িভাবে ছুরিকাঘাত ও কুপিয়ে আহত করে টাকার ব্যাগ ছিনিয়ে নিয়ে যায় দুর্বত্তরা। ছিনতাইকারীরা তার ডান হাতের একটি আঙ্গুল ঘটনাস্থলেই কেটে ফেলে দেয় । এবং দুটি হাতেরই অবস্থা অত্যন্ত লাজুক । এছাড়াও শরীরের বিভিন্ন অংশে ছুরিকাঘাত ও কুপিয়ে গুরুতর রক্তাত্ব জখম করে দুর্বত্তরা । পরবর্তীতে তার আত্মচিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে দুর্বত্তরা পালিয়ে যায় । পরে তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় কানাইঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে স্থানীয়রা নিয়ে গেলে চিকিৎসকরত ডাক্তার তার অবস্থার অবনতি দেখে সাথে সাথে সিলেট এমএজি ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন । শেষ কবর পাওয়া পর্যন্ত তার শরীর থেকে প্রচন্ড রক্তক্ষরন হচ্ছিল বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা ।
এদিকে সিলেট এমএজি ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়,শনিবার রাত সাড়ে দশটার দিকে তাকে ওসমানি মেডিকেল কলেজ’র ৫ম তলায় ওটি’তে নেয়া হয়েছে ।  এব্যাপারে আমিন উদ্দিনের সাথে মুঠোয় ফোণে আলাপকালে তিনি বলেন,তাকে উদ্ধারের সময় স্থানীয়রা তিনজনকে চিনতে পেরেছেন । তারা হলেন, একই এলাকার সাবেক এক ইউপি সদস্য আব্দুল্ল্যাহ ওরফে আব্দুলহক,(২) শাহজাহান,(৩)সেলিম আহমদসহ আরো অঞ্জাতনামা দুইজন । এসময় তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,হেলাল উদ্দিনের একটি হাত ঝুলে রয়েছে,একটি আঙ্গুল পড়ে গেছে । এবং সে অপারেশন তিয়ের্টারে রয়েছে এখন কিছু বলা যাচ্ছেনা । ধারণা করা হচ্ছে আগামীকাল রবিবার সকালে তাকে ওটি থেকে বের করতে পারেন ডাক্তাররা । তিনি আরো বলেন,ইতিমধ্যে একজন চিকিৎসক জানিয়েছেন তার অবস্থা বেশ ভাল নয় । তাকে ঢাকা’য় নেওয়া পড়তে পারে । তার প্রচুর রক্তক্ষরন হচ্ছে । তখন তিনি জানান, কানাইঘাট থানা পুলিশের মাধ্যমে থাকে ওসমানিতে আনা হয়েছে । এবিষয়ে পরে মামলা দায়ের করবেন বলে জানান তিনি ।

এবিষয়ে কানাইঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ মুঠোয় ফোণে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন  ।