কুড়িগ্রাম থেকে উদ্ধার হওয়া বিশ্ব বিপন্ন বনরুই লাউয়াছড়ায় অবমুক্ত

প্রকাশিত: ১২:২৪ পূর্বাহ্ণ, জুন ৪, ২০১৯

কুড়িগ্রাম থেকে উদ্ধার হওয়া বিশ্ব বিপন্ন বনরুই লাউয়াছড়ায় অবমুক্ত

মোঃ আব্দুল কাইয়ুম,  মৌলভীবাজার : কুড়িগ্রামে পাচারকারীদের হাত থেকে পুলিশ কতৃর্ক উদ্ধার হওয়া বিশ্ব বিপন্ন বন্যপ্রাণী বনরুইটি অবশেষে লাউয়াছড়ায়  অবমুক্ত করা হয়েছে। সোমবার (৩ জুন) বিকালের দিকে লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের জানকিছড়া নামক স্থানে বিপন্ন এই প্রাণীটি অবমুক্ত করা হয়। এর পূর্বে গত ৩০ মে লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে প্রাণীটি অবমুক্ত করার জন্য আনা হলে প্রাণীটি অসুস্থ হয়ে পড়ায় বন কর্মকর্তাদের পরামর্শে প্রাণীটিকে শ্রীমঙ্গলস্থ বণ্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়।

প্রানীটি অবমুক্তকালে উপস্থিত ছিলেন বন্যপ্রাণী ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) আবু মুছা সামছুল মুহিত চৌধুরী,রেঞ্জ কর্মকর্তা মোনায়েম হোসেন, বন্যপ্রানী সেবা ফাউন্ডেশনের পরিচালক স্বপন দেব সজল প্রমুখ।

বাংলাদেশ বণ্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনে পরিচালক স্বপন দেব সজল জানান , গত ২৩ মে কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরে পাচারকারীদের হাত থেকে কুড়িগ্রাম পুলিশ বনরুইটি উদ্ধার করে। পরে ২৫ মে সেখান থেকে নিয়ে গিয়ে রাজশাহী বন বিভাগের কাছে বনরুইটি হস্তান্তর করা হয়। সেখান থেকে ঢাকা বন বিভাগের কাছে সেটি হস্তান্তর করা হলে সেখান থেকে শ্রীমঙ্গলে প্রাণীটিকে নিয়ে আসা হয়। ৩০ তারিখ প্রাণীটি লাউয়াছড়ায় অবমুক্ত করার কথা থাকলেও প্রাণীটি মারাত্মকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়লে আর ছাড়া হয় নি। অবশেষে চারদিন চিকিৎসা শেষে প্রাণীটি পূর্ণ সুস্থ হলে  অবমুক্ত করা হয়।  তিনি জানান এই প্রাণীটিকে মহা বিপন্ন না বলে বলতে হবে বিশ্ব বিপন্ন, কারন এটি বর্তমানে বিশ্বে বিপন্ন প্রাণীর তালিকায়। স্বপন দেব সজল আরো বলেন এটি এযাবতকালের সর্ববৃহৎ বনরুই যার ওজন প্রায় পাঁচ কেজিরও বেশি।