কুয়াশার জেরে ব্যাহত বিমান ও ট্রেন পরিষেবা

প্রকাশিত: ৯:৫৭ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৯, ২০১৫

কুয়াশার জেরে ব্যাহত বিমান ও ট্রেন পরিষেবা

এসবিএন ডেস্ক:
শীত পড়তে না পড়তেই ঘন কুয়াশার মোড়কে রাজ্য। কুয়াশার জেরে ট্রেন এবং বিমান পরিষেবাও ব্যহত। কলকাতাগামী বিমানগুলি ভুবনেশ্বরে অবতরণ করানো হচ্ছে। ইতিমধ্যে চারটি কলকাতাগামী বিমানের জরুরি অবতরণ হয়েছে ভুবনেশ্বরে। এছাড়া সকালে কলকাতা থেকে যে সমস্ত বিমান ছাড়ার কথা ছিল, সেগুলির সময় পরিবর্তন করা হয়েছে। ইতিমধ্যে দমদম বিমানবন্দরে বহু বিমান আটকে রয়েছে। ৩৪টি বিমানের ওঠানামায় সমস্যায় রয়েছে।

সেগুলিও ভুবনেশ্বরে পাঠানোর চিন্তা-ভাবনা চলছে। দুপুরের আগে বিমান চলাচল স্বাভাবিক হবে না বলেই মনে করছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। বিমান ছাড়তে দেরি করায় বিমানবন্দরে বহু যাত্রী আটকে রয়েছেন।

কুয়াশার জেরে শুক্রবার রাত থেকেই বিমান চলাচলে সমস্যা দেখা দেয়। রাতেই দমদম বিমানবন্দরের ৫টি আন্তর্জাতিক বিমান বাতিল করা হয়েছিল। তবে এদিন সকাল থেকে বিমান চলাচল স্বাভাবিক হবে বলে আশা করেছিলেন দমদম বিমানবন্দরের কর্তারা। কিন্তু বেলা ন’টা বেজে গিয়েছে। এখনও বিমান চলাচল স্বাভাবিক হল না। দৃশ্যমানতা স্পষ্ট না থাকার দরুণ বিমান পরিষেবা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না বলে বিমানবন্দরের তরফে জানানো হয়। দৃশ্যমানতা এতটাই অভাব যে, এখনও যাত্রীদের ওঠা-নামায় সমস্যা হচ্ছে।

তাই ঝুঁকি এড়াতে কলকাতাগামী চারটি বিমানকে ভুবনেশ্বরে অবতরণ করানো হয়েছে বলে কর্তৃপক্ষ জানান। এই চারটি বিমানের মধ্যে দুটি দিল্লি-কলকাতা, একটি ঢাকা-কলকাতা এবং একটি মুম্বই-কলকাতার উড়ান রয়েছে। আরও ১০টি বিমানকে ভুবনেশ্বরে অবতরণ করানো হবে। যদিও ন’টার পর দমদম থেকে বিমান চলাচল শুরু হয়েছে। মুম্বই ও হায়দ্রাবাদগামী উড়ান শুরু হয়েছে। তবে দুপুর সাড়ে বারোটার আগে পরিষেবা স্বাভাবিক হবে না বলেই মনে করছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ।

বিমানের পাশাপাশি ট্রেন চলাচলেও সমস্যা দেখা দিয়েছে। শিয়ালদহ, হাওড়া শাখার প্রায় সমস্ত ট্রেনই নির্ধারিত সময়ের থেকে দেরিতে ছেড়েছে। ফলে সমস্যায় পড়েছেন অফিস যাত্রীরা। প্রতিটি স্টেশনেই যাত্রীদের ভিড় চোখে পড়ার মত। এর ফলে যে ট্রেন আসছে, প্রায় সবকটিতেই তিল ধারণের জায়গা নেই।

ছড়িয়ে দিন