কেয়া চৌধুরীর ওপর হামলার ঘটনায় মামলা

প্রকাশিত: ৮:২১ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২০, ২০১৭

কেয়া চৌধুরীর  ওপর হামলার ঘটনায় মামলা

সুমন দেঃ হবিগঞ্জের বাহুবলে সংসদ সদস্য আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরীর জনসভায় হামলার ঘটনায় উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানসহ কয়েজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। ইউনিয়ন মেম্বার পারভিন বেগম বাদী হয়ে এদের মধ্যে ৩ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করেন বলে রেডটাইমস ডট কম ডট বিডি কে জানান বাহুবল মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাসুক আলী । তিনি অরো জানান মামলা নং-৬, তারিখ ১৮/১১/২০১৭।বাদী  বর্তমান উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান তারা মিয়া, জেলাপরিষদ সদস্য আলাউর রহমান শাহেদ এবং জসিম উদ্দিন। বাকী ১৫ জনকে অঞ্জাত করে মামলা করা হয়।

ঘটনার সময় বাহুবল মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাসুক আলী সেখানে উপস্থিত ছিলেন কি-না জানতে চাইলে তিনি রেটটাইমস ডট কম ডট বিডিকে বলেন আমি উপস্থিত ছিলাম তবে তদন্তের স্বার্থে  এখন কিছু বলতে পারবনা। এখন পর্যন্ত কাউকে আটক করা হয়েছে কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন এরা সবাই পলাতক রয়েছে, তবে আমাদের অপারেশন অব্বাহত রয়েছে।

Related imageগত ১১ অক্টোবর বাহুবল উপজেলার মিরপুর একটি অনুষ্ঠানে সংসদ সদস্য আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরী ও উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান তারা মিয়ার লোকজনের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে উভয়পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছিল পুলিশ। এ ঘটনার পর সাংসদ কেয়া চৌধুরী সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্যে ঢাকা প্রেরণ করা হয়।

ওসি মাসুক বলেন, বাহুবলের লামাতাসী ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত ওয়ার্ডের নারী সদস্য পারভীন আক্তার শনিবার রাতে উক্ত মামলাটি করেন।

এতে সাংসদ কেয়া চৌধুরীর উপর হামলার অভিযোগ আনা হয়েছে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. তারা মিয়া ও জেলা পরিষদ সদস্য আওয়ামী লীগ নেতা আলাউর রহমান সাহেদের বিরুদ্ধে ও জসিম উদ্দিনের।

সোমববার রাত পর্যন্ত এ মামলায় কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি বলে জানিয়েছেন ওসি মাসুক।